চীনের নাম মুখে আনতে মোদির এত ভয় কিসের? আবারো নরেন্দ্র মোদীকে নিশানা রাহুলের

ফের রাহুলের নিশানায় প্রধানমন্ত্রী। স্বাধীনতা দিবসের লালকেল্লা থেকে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সেই প্রসঙ্গে আবারো প্রধানমন্ত্রীকে বিঁধলেন রাহুল গান্ধী। এইদিনের ভাষণে প্রধানমন্ত্রীর মুখে চীনের নাম একবারের জন্যও শোনা যায়নি।

ঠিক এই কারণেই কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী বলেন, প্রধানমন্ত্রী কি চীনকে নিয়ে ভয় পান? সেই বিষয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। ভারতীয় ভূখণ্ডে যাত্রা ঢুকে পড়ছে তাদের নাম মুখে আনতে ভয় কিসের? প্রশ্ন কংগ্রেসের।

প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ শেষ হতেই পাল্টা আ’ক্র’মণ করেছেন কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সিং সূর্যেওয়ালা। তিনি বলেন, প্রত্যেক ভারতীয়র আজকের দিনে প্রধাণমন্ত্রীর কাছে প্রশ্ন করা উচিত, দেশকে সুরক্ষিত রাখতে এবং চীনকে পিছু হটাতে কি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন তারা।

এদিন প্রধানমন্ত্রী বলেন, লাদাখ হোক বা কাশ্মীর, দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষা করতে শত্রুপক্ষকে যোগ্য জবাব দিয়েছ দেশের সে’নারা। চীনের নাম না করে তিনি বলেন, উপযুক্ত জবাব দিতে সারাদেশ ল’ড়ে’ছে একসাথে।

মোদীর ভাষণ এর পাল্টা জবাবে রণদীপ বলেন,”কংগ্রেসের প্রত্যেকটি কর্মী এবং ১৩০ ভারতবর্ষে আমাদের সশস্ত্র সে’না’বা’হিনী দের নিয়ে গর্বিত এবং তাদের ওপর পূর্ণ আস্থা রয়েছে। চীনকে যোগ্য জবাব দেয়ার জন্য আমরা ভারতীয় সে’না’দের স্যালুট জানাই।

কিন্তু যারা ক্ষমতায় রয়েছেন তাদের কি? তারা মুখে চীনের নাম আনতে ভয় পান কেন? এমন একটা সময় যখন চীন ভারতীয় ভূখণ্ডে ঢুকে গেছে তখন প্রত্যেক ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী কে প্রশ্ন করা উচিত।

দেশকে সুরক্ষিত রাখতে চীনকে পিছু হটাতে কি করেছে তারা? স্বাধীনতা দিবসের প্রত্যেকের এই প্রশ্নই করা উচিত। গণতন্ত্রের আসল মানে এটাই।” তাদের আরো প্রশ্ন, বর্তমানে ভারত সরকার আদেও বাক স্বাধীনতায় বিশ্বাস করেন কিনা।

Reply