যোগী আদিত্যনাথের শাসনকালে সবথেকে বেশি সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের অপরাধীর এ’ন’কা’উ’ন্টা’র করেছে পুলিশ

উত্তর প্রদেশ বিধানসভার আগামী অধিবেশনের জন্য সম্পূর্ণ ভাবে প্রস্তুত যোগী সরকার । এ’ন’কা’উন্টা’র নিয়ে বি’রোধীদের হা’ঙ্গা’মা’র কথা মাথায় রেখে সরকার প্রতিটি সম্ভাব্য প্রশ্নের উত্তরও প্রস্তুত করে ফেলেছে। উল্লেখ্য, ব্রাহ্মণের হ-ত্যা আর এ’ন’কা’উ’ন্টা’র নিয়ে বি’রোধীদের সরকার তাঁর সাড়ে তিন বছরের কার্যকালে এ’ন’কা’উ’ন্টা’র কর অপরাধীদের লিস্ট তৈরি করেছে। এই লিস্টের মাধ্যমেই বি’রোধীদের জবাব দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার। এই লিস্ট অনুযায়ী, ৯ আগস্ট ২০২০ পর্যন্ত রাজ্যে হওয়া এ’ন’কা’উ’ন্টা’রে মোট ১২৪ জন অ’পরাধী নি’কেশ হয়েছে। আর সেটির মধ্যে সর্বাধিক ৪৫ জন সংখ্যালঘু আছে। আর ব্রাহ্মণ আছে ১১ জন।

উল্লেখ্য, বিধানসভায় এ’ন’কা’উ’ন্টার’ নিয়ে সম্ভাব্য প্রশ্নের উত্তর সরকার তৈরি করে নিয়েছে। সাড়ে তিন বছরের কার্যকালে ১২৪ জন দাগি অ’পরাধী এ’ন’কা’উ’ন্টা’রে নি’কেশ হয়েছে। আর মৃ-ত অপরাধীদের মধ্যে ৪৫ জন সংখ্যালঘু, ১১ জন ব্রাহ্মণ আর ৮ জন যাদব আছে। অন্য ৫৮ জন দাগি অ’পরাধীদের মধ্যে ঠাকুর, বৈশ্য, পিছিয়ে পড়া এসসি-এসটি জাতের অপরাধী আছে।

৩১ মার্চ ২০১৭ থেকে ৯ আগস্ট ২০২০ পর্যন্ত উত্তর প্রদেশে ১২৪ জন অ’পরাধী নি’কেশ হয়েছে। গত ৮ মাসে ৮ জন ব্রাহ্মণ অ’পরাধী নি’কেশ হয়েছে। এদের মধ্যে ৬ জন অ’পরাধী কানপুরের বিকারু গ্রামের বিকাশ দুবের গ্যাংয়ের সাথে যুক্ত ছিল। সবথেকে বেশি এ’ন’কা’উ’ন্টা’র মেরঠে হয়েছে। সেখানে ১৪ জন অ’পরাধীকে নি’কেশ করা হয়েছে। এরপর মুজফরনগরে ১১, সাহারানপুরে ৯, আজমগড়ে ৭ আর শামলিতে ৫ জন অ’পরাধীকে নি’কেশ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, বিকাশ ডুবে আর রাকেশ পাণ্ডের এ’ন’কা’উ’ন্টা’রে’র পর একটি জাতি বিশেষ অ’পরাধীদের এ’ন’কা’উ’ন্টা’র করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করা হয়। এবার সরকার এই পরিসংখ্যান তুলে ধরে এটাই বোঝানোর চেষ্টা করবে যে, অপরাধী কোন জাতি আর কোন ধর্মের সেটা না দেখে, কতটা ভয়ানক অ’পরাধী সেটা দেখা হয়। আর বি’রোধীদের ব্রাহ্মণ ভোট ব্যাংক গড়ার পরিকল্পনা ব্যর্থ করতে সরকার এই লিস্ট বানিয়েছে।

Reply