অপেক্ষা বিজ্ঞানীদের সবুজ সংকেতের, সমস্ত দেশবাসীই পাবে করোনা ভ্যাকসিন : প্রধানমন্ত্রী

স্বাধীনতা দিবসের দিন ভ্যাকসিন নিয়ে বড় ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আজ লালকেল্লা থেকে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে তিনি বলেন, দেশে একটি নয়, তিনটি ভ্যাকসিনের বিভিন্ন পর্যায়ের ট্রেনিং চলছে। বিজ্ঞানীরা একবার সবুজ সংকেত দিলেই সমস্ত ভারতবাসীর কাছে তা পৌঁছে দেওয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী আরও বলেছেন, ভারতের আত্মনির্ভরতার পথে করোনা সংকট বাধা হয়ে দাঁড়াবে না। তিনি বলেন, “করোনা সংকট একটি বড় সংকট, কিন্তু তা আত্মনির্ভর ভারতের প্রতিজ্ঞাকে টলিয়ে দিতে পারবে না।”

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “দেশে এই মুহূর্তে করোনার তিনটি ভ্যাকসিন টেস্টের বিভিন্ন পর্যায়ে আছে। একবার বিজ্ঞানীদের সবুজ সংকেত পেলেই এই ভ্যাকসিন বিপুল পরিমাণে উৎপাদন করা হবে এবং সমস্ত ভারতবাসীর কাছে তা দ্রুততার সঙ্গে পৌঁছে দেওয়া হবে। সরকার ভ্যাকসিন পৌঁছানোর পরিকল্পনাও তৈরি করে ফেলেছে ইতিমধ্যেই।” ভারতে এই মুহূর্তে ভারত বায়োটেকের তৈরি কোভ্যাক্সিন এর প্রথম পর্যায়ের ট্রায়াল প্রায় শেষ হয়ে এসেছে। এছাড়াও, অক্সফোর্ড এবং জাইদাস ক্যাডিলার ভ্যাকসিনেরও শীঘ্রই হিউম্যান ট্রায়াল শুরু হবে।

করোনায় বিপর্যস্ত গোটা দেশ। স্বাধীনতা দিবসে তাই করোনা নিয়ে লালকেল্লা থেকে কি বার্তা দেন প্রধানমন্ত্রী সেদিকেই নজর ছিল সকলের। লালকেল্লা থেকে মোদী তাঁর বক্তৃতায় বুঝিয়ে দিলেন, শুধুমাত্র অপেক্ষার পালা। একবার ভ্যাকসিন তৈরি হয়ে গেলেই ব্যাপক ভাবে তা উৎপাদন করা হবে এবং ভারতের সমস্ত নাগরিকদের কাছে তা পৌঁছে দেওয়া হবে।

করোনার জন্য এবছর স্বাধীনতা দিবসে লালকেল্লার অনুষ্ঠানে ব্যাপক কাটছাঁট করা হয়েছিল। ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের উপর জোর দেওয়া হয়েছিল এবছর। প্রথা ভেঙে এবছর লালকেল্লায় শিশুদের প্রবেশ করার অধিকার দেওয়া হয়নি। এই বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমরা খুব কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। আজ আমি আমার সামনে ছোট ছোট শিশুদের দেখতে পাচ্ছি না। করোনা যোদ্ধাদের প্রতি আমরা সবাই কৃতজ্ঞ।”

Reply