হাগিয়া সোফিয়ার পর এবার আরও ঐতিহাসিক চার্চ বদলে গেল মসজিদে

এবার বাইজেনটাইন চোরা চার্চকে মসজিদে পরিণত করা হল। এমনই ঘটনা ঘটেছে তুরস্কে। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এই পদক্ষেপ নিয়েছেন। তুর্কি প্রেসিডেন্ট তায়েপ এরদোগান ইস্তানবুলের অন্যতম জনপ্রিয় চার্চ বাইজেনটাইন চোরা চার্চকে মসজিদে পরিণত করেছেন বলে খবর।

২১শে অগাষ্ট চার্চটিকে মসজিদে পরিণত করার ঘোষণা করেছেন এরদোগান। এবার থেকে চার্চে মুসলিম সম্প্রদায়ভুক্ত মানুষরা নমাজ পড়তে পারবেন বলে জানানো হয়েছে। এই মধ্যযুগীয় চার্চটি প্রাচীন শহর কনস্টান্টিনোপলের কাছে বানানো হয়েছিল। চতুর্দশ শতাব্দীতে বাইজেনটাইরা বানিয়েছিল এই চোরা চার্চ। উল্লেখ্য ১৪৫৩সালে মুসলিম শাসক অটোমেনসরা এই শহর দখল করে। তখন চার্চটিকে ১৫১১ সালে মসজিদ হিসেবে গড়ে তোলা হয়।

পরে ১৯৪৫ সালে হাগিয়া সোফিয়ার মতোই এটিকে তুর্কি সরকার মিউজিয়াম হিসেবে গড়ে তোলে। ফেরএই চার্চটিকে মসজিদ বানানোর পরিকল্পনা করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগান। এরদোগানের দল এ কে পার্টি মূলত ইসলাম মনোভাবাপন্ন রাজনৈতিক দল। এই পদক্ষেপ নিয়ে বিতর্কের ঝড় উঠেছে তুরস্ক জুড়ে।

উল্লেখ্য গত মাসেই হাগিয়া সোফিয়া চার্চকে মসজিদ বানিয়ে দেয় তুরস্ক সরকার। ক্যাথলিক সমাজ এরদোগানের এই পদক্ষেপের কড়া নিন্দা করে। ঘটনার নিন্দা করে ইউনেসকোও। তবে বিশ্বে ওঠা বিতর্কের ঝড়কে পাত্তা দেয়নি এরদোগান সরকার। পশ্চিমের দেশগুলিও তুরস্কের এই পদক্ষেপে বেশ ক্ষুব্ধ।

২০১৯ সালেই চোরা চার্চকে মসজিদে পরিণত করার সিদ্ধান্ত নেয়। তবে তখন তা হয়ে ওঠেনি। এরদোগান সরকারের দাবি ৪৩৪ বছর ধরে এটি মসজিদ হিসেবে মেনে আসা হয়েছে। এখানে মুসলিম ধর্মাবলম্বীরা নমাজ পড়তেন। সেই ইতিহাসকে গুরুত্ব দিয়েই এই কাজ করছেন তাঁরা।

চোরা চার্চের স্থানীয় নাম কারিয়ে। সেই হিসেবে এই নতুন রূপান্তরিত মসজিদটির নামও হবে কারিয়ে মসজিদ বলে জানা গিয়েছে। শুক্রবার নতুন নির্দেশ সই করেন প্রেসিডেন্ট এরদোগান। ঘোষণা করেন কারিয়ে মসজিদ সাধারণ মানুষের জন্য খুলে দেওয়া হবে।

গত বছরের নভেম্বর মাসেই চোরা চার্চটিকে মসজিদে রূপান্তরিত করার অনু্মতি দিয়েছে তুর্কি আদালত। চলতি মাস বা সেপ্টেম্বর মাসেই সেই আদেশ রূপান্তরিত করা হবে বলে খবর।

Reply