১৩ লক্ষ সদস্যের লক্ষ্য বিজেপির

২০২১-এর বিধানসভা ভোটের আগে জেলার প্রতিটি বিধানসভা কেন্দ্রে দেড় লক্ষ করে সদস্য সংগ্রহের পরিকল্পনা নেওয়ার কথা জানিয়েছে বিজেপি। দলের জেলা সভাপতি লক্ষ্মণ ঘোড়ুই বলেন, ‘‘দুর্গাপুজোর মধ্যে সারা জেলায় মোট ১৩ লক্ষ সদস্য সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা রাখা হয়েছে। সেই লক্ষ্যে সাংগঠনিক প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।’’

কিন্তু এই সদস্য সংগ্রহের প্রয়োজনীয়তা কেন পড়ল? বিজেপি পশ্চিম বর্ধমানের দু’টি লোকসভা আসন-সহ গোটা রাজ্যেই ২০১৯-র লোকসভা ভোটে ভাল ফল করে। এই মুহূর্তে ২০২১-র বিধানসভা ভোটই দলের ‘চ্যালেঞ্জ’, মনে করছেন দলের কর্মী, নেতাদের একাংশ। তৃণমূল, সিপিএম-সহ অন্য রাজনৈতিক দলগুলির দাবি, লোকসভা ভোটের পরে বিজেপির প্রতি মানুষের ‘মোহভঙ্গ’-ও দেখা যাচ্ছে। অন্য দল থেকে বিজেপিতে যাওয়া অনেকেই আবার পুরনো দলে ফিরে এসেছেন বলে তৃণমূল, সিপিএম, কংগ্রেসের মতো দলগুলির দাবি। যদিও তা স্বীকার করছেন না বিজেপির জেলা নেতৃত্ব। তবে, জেলার রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশের মতে, হয়তো এই সদস্য সংগ্রহের মাধ্যমেই সাংগঠনিক এবং এলাকাভিত্তিক তৎপরতা, জন-সংযোগ বাড়াতে চাইছে বিজেপি।

কিন্তু কী ভাবে এই লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করা সম্ভব? বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে, এ বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে হবে দলের নীচু তলার নেতা-কর্মীদের। কী ভাবে তাঁরা সদস্য সংগ্রহ অভিযানের প্রক্রিয়া পরিচালনা করবেন সে ব্যাপারে প্রয়োজনীয় নির্দেশ ও পরামর্শ দিচ্ছেন দলের জেলা সভাপতি। তিনি নিয়ম করে জেলার প্রতিটি মণ্ডল কমিটির নেতা ও কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করছেন। শনিবার দুর্গাপুর পূর্বের ১ ও ২ মণ্ডলের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। ডিএসপি টাউনশিপের বিদ্যাসাগর অ্যাভিনিউয়ের দলীয় কার্যালয়ে বৈঠক হয়। সদস্য সংগ্রহ অভিযানে দ্রুত নেমে পড়ার নির্দেশ দেওয়া হয় দলীয় নেতা, কর্মীদের।

লক্ষ্মণবাবু বলেন, ‘‘বিধানসভা পিছু দেড় লক্ষ সদস্য সংগ্রহের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। হাতে মাস দু’য়েক সময় রয়েছে। তার মধ্যেই প্রক্রিয়া সেরে ফেলতে হবে।’’ তিনি জানান, দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের নেতৃ্ত্বে সারা রাজ্যেই নতুন করে সদস্য সংগ্রহ অভিযান শুরু হয়েছে।

যদিও, বিজেপির এই কর্মসূচিকে বিশেষ আমল দিতে চাইছে না অন্য দলগুলি। সিপিএম নেতা পঙ্কজ রায়সরকার বলেন, ‘‘বিজেপির প্রতি মানুষের মোহভঙ্গ হয়েছে। তাই, এখন ‘মিসড কল পার্টি’ নানা ভাবে জমি পাওয়ার চেষ্টা করছে। কোনও চেষ্টাই সফল হবে না।’’ তৃণমূলের জেলার অন্যতম মুখপাত্র অশোক রুদ্র বলেন, ‘‘অন্য দলের কর্মসূচি নিয়ে আমরা মন্তব্য করি না। তবে, বিজেপি এক জন সদস্যও সংগ্রহ করতে পারবে বলে মনে হয় না।’’

Reply