মঙ্গলগ্রহে জমি কিনেছেন, নাসার চন্দ্রযানের শৌচাগারের নকশা তৈরি করে নজির শ্রীরামপুরের যুবকের

মঙ্গল গ্রহে তিন হাজার টাকায় ১ একর জমি কিনে মঙ্গলে যাবার স্বপ্ন দেখছেন শ্রীরামপুরের শৌনক দাস! এক কাটা বা দুই কাঠা নয়, মঙ্গলগ্রহে একেবারে ১ একর জমির মালিক হলেন শ্রীরামপুর চাতরার ধর্মতলার বাসিন্দা শৌনক।

পেশায় একটি বেসরকারী সংস্থার ইন্সুইরেন্স কোম্পানিতে উচ্চপদস্থ কর্মচারী শৌনক। এরই পাশাপাশি বিভিন্ন গ্রহ, নক্ষত্র, গুগল ছাড়াও নানা বিষয়ে বরাবরই তাঁর আগ্রহ। গুগলের দপ্তরেও তিনি আমন্ত্রিত হয়ে গিয়েছেন।এমনই এক দিন গুগল সার্চ করতে গিয়ে হঠাতই তিনি দেখেন, মঙ্গলে জমি ব্রিক্রি চলছে। সঙ্গে সঙ্গে তিনি সেখানে জমি কেনার জন্য আবেদন করেন। ফলস্বরূপ বেশ কিছু দিন আগে তার কাছে মঙ্গলে জমির মালিক হয়েছেন জানিয়ে নাসার অনুমোদিত একটি বেসরকারি সংস্থা থেকে জমির দলিল আসে। তাঁর কেনা তিন একর জমির দাম পড়েছে মাত্র তিন হাজার টাকা।

জমি কেনার তালিকার মধ্যে গোটা বিশ্বের ৩২ হাজার ২৯৫ জনের মধ্যে নাম রয়েছে এই বাঙালি যুবক শৌনকেরও। ইতিমধ্যেই আগামী বছরের ১৮ ই ফেব্রুয়ারী নাসা থেকে পাঠানো মহাকাশযান মঙ্গলগ্রহের মাটি ছোঁবে। সেই মহাকাশযানে বিশ্বে এতজন মানুষের সাথে মাইক্রো চিপে নাম থাকছে শৌনকেরও। ইতিমধ্যেই আগামী দিনে এদের মধ্যে মুষ্টিমেয় কয়েকজন সত্যি সত্যি মঙ্গলে পাড়ি দিচ্ছেন বলে জানিয়েছে নাসা ।সেই তালিকায় অবশ্য নাম নেই এই বঙ্গ-সন্তানের।

তবে পরবর্তীকালে হয়তো তাঁর নাম সেই তালিকাতেও ঢুকে যাবে বলে স্বপ্ন দেখতে শুরু করে দিয়েছেন শৌনক। এরই পাশাপাশি নাসার তৈরি চন্দ্রযানের শৌচাগারের নকশা বানিয়েছেন এই যুবক। বিশ্বের তাবড় তাবড় ব্যাক্তির পাঠানো নকশাকে দুরে সরিয়ে রেখে তাঁর তৈরি চন্দ্রযানের শৌচাগারের নকশা গ্রহণ করেছে নাসা। এর ফলে নাসার ওয়েবসাইটে তাঁর নাম তো থাকছেই, সঙ্গে ভারতীয় মুদ্রায় মোট ২৮ লক্ষ টাকা তিনি পাবেন নাসার কাছ থেকে।

Reply