লাদাখে মাইনাস ৫০ ডিগ্রিতে মোতায়েন সেনার জন্য বিশেষ প্ল্যান, হবে কিছু খরচও

চিনের সঙ্গে লাদাখ সীমান্তে এই মুহূর্তে রয়েছে চোরা উত্তেজনা। সীমান্ত রক্ষায় মোতায়েন রয়েছে ৩০ হাজার ভারতীয় সেনা। এবার তাঁদের জন্য রয়েছে বিশেষ পরিকল্পনা। মোতায়েন সেনাদের শীতের জন্য বিশেষ পোশাকের মতো প্রাথমিক জিনিস সরবরাহ করতে সেনাবাহিনী আনুমানিক ৩৫০-৪০০ কোটি টাকা ব্যয় করবে। এই মুহূর্তে চিনের সঙ্গে শান্তি পুনরুদ্ধারের কোনও আশা নেই, সে কারণেই এই প্রস্তুতি নিয়েছে সেনা।

পূর্ব লাদাখে, প্রচণ্ড শীতের সময় তাপমাত্রা শূন্য থেকে কমে মাইনাস ৫০ ডিগ্রিতে নেমে যায়। এসময় ১২০০০ ফুট উচ্চতায় সেনাবাহিনীকে সহায়তা প্রদান করা একটি বড় চ্যালেঞ্জ। শীতের সময় পোস্টে থাকা এক জওয়ানের বিশেষ সরঞ্জামে ব্যয় হয় প্রায় এক লাখ টাকা। তুষার থেকে বেঁচে থাকার পোশাক, আশ্রয় এবং খাবারের কথা মাথায় রেখে ইতিমধ্যে প্রয়োজনীয় সামগ্রী সরবরাহের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

সামরিক কর্মকর্তারা বলছেন যে এই কঠিন পরিস্থিতিতে সেনাদের সঠিক জায়গায় মোতায়েন করা ও সেখানে সঠিক অবস্থা করা চ্যালেঞ্জিং কাজ। এই জন্য, আগে থেকে একটি পরিকল্পনা প্রস্তুত রাখা প্রয়োজন। এক অফিসার জানিয়েছেন, ১২,০০০ ফুটের বেশি উচ্চতায় সেনা মোতায়েন এমনিতেই খুব কঠিন কাজ। কিন্তু এই সেনা সংখ্যা যখন আরও বেড়ে যায়, তখন সমস্যা আরও বাড়ে। এতবেশি সংখ্যক সেনা মোতায়েনের জন্য ইতিমধ্যেই নানান ব্যবস্থা করা হয়েছে।

শীতের সময় উঁচু পাহাড়ে সেনা সদস্যদের যে জিনিস সরবরাহ করা হয় সেগুলির মধ্যে রয়েছে শীতের পোশাক, গিয়ার, থ্রি লেয়ার জ্যাকেট, ট্রাউজার্স, বুটস, স্নো গগলস, ফেসমাস্ক ইত্যাদি নানান জিনিস। লাদাখে ভ্যাপক ঠাণ্ডা নিয়ন্ত্রণের জন্য তাঁবু, টুপি ইত্যাদির প্রয়োজন হয়, যা কিনা অত উচ্চতাতেও তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে পারে এবং স্বাভাবিক মাত্রার অক্সিজেন বজায় থাকে। লাদাখের বেশিরভাগ কঠিন পয়েন্ট প্যানগং লেক এবং গ্যালভান ভ্যালি প্রায় ১৪ হাজার ফুট উচ্চতায় অবস্থিত।

তথ্যসূত্র : kolkata24x7.com

Reply