ভারত-পাক সীমান্তে গুপ্ত টানেল উদ্ধার, তল্লাশি বিএসএফের

ফের পর্দা ফাঁস পাক অনুপ্রবেশের। ভারত পাকিস্তান সীমান্তে গুপ্ত টানেল উদ্ধার করল বর্ডার সিকিওরিটি ফোর্স বা বিএসএফ। জম্মুতে ভারত পাকিস্তানের আন্তর্জাতিক সীমানার খুব কাছেই টানেলটি উদ্ধার করে বিএসএফ জওয়ানরা। শনিবার এই খবরে চাঞ্চল্য ছড়ায়।

ওই এলাকায় তল্লাশি চালাচ্ছিল বিএসএফ। আচমকাই প্রায় ঢাকা দেওয়া ওই টানেলটি নজরে আসে বিএসএফ আধিকারিকদের। সঙ্গে সঙ্গে জোরদার তল্লাশি শুরু হয়। ভারতে পাক জ’ ঙ্গি’ দের অনুপ্রবেশের জন্যই টানেলটি বানানো হয়েছিল বলে মনে করছে বিএসএফ। বিএসএফ ডিরেক্টর জেনারেল রাকেশ আস্থানা বলেন জম্মু দিয়ে ভারতে প্রবেশ করতে পারে পাক জ’ ঙ্গি’ রা, এই খবর গোপন সূত্রে পেয়েই তল্লাশি শুরু হয়।

তখনই এই সাফল্য মেলে। ফ্রন্টিয়ার কমান্ডাররা জানিয়েছেন, এই টানেলটি ব্যবহার করার পরিকল্পনা ছিল পাক জঙ্গিদের। সীমান্তের কাঁটাতারের বেড়া থেকে এই টানেলটি শুরু হয়েছে। ৫০ মিটার লম্বা টানেল শেষ হয়েছে ভারতে এসে। সাম্বা সেক্টরে এটি উদ্ধার করেন বিএসএফ আধিকারিকরা। পুরো টানেলটি খতিয়ে দেখেছে বিএসএফ।

জানানো হয়েছে পাকিস্তানি চিহ্ন দেওয়া কয়েকটা বালির বস্তা উদ্ধার হয়েছে। সূত্রের খবর টানেলটি ২৫ ফুট গভীর। এই টানেল উদ্ধার হওয়ার পরেই জোরদার সার্চ অপারেশন শুরু হয়েছে জম্মু জুড়ে। টানেল দিয়ে শুধু পাক জ’ ঙ্গি অনুপ্রবেশই নয়, মা’ দক ও অ’ স্ত্র চোরাচালানের কাজও চালাত পাকিস্তান।

৮ থেকে ১০টি প্লাস্টিকের বালির বস্তা উদ্ধার হয়েছে, যার ওপর করাচি ও শাকারগড় লেখা রয়েছে। বস্তাগুলির ওপর ম্যানুফ্যাকচারিং ডেট ও এক্সপায়ারি ডেট লেখা। টানেলটি থেকে পাক বর্ডারের দূরত্ব মাত্র ৪০০ মিটার। উল্লেখ্য অতি সম্প্রতি সন্দেহজনক পাকিস্তানি অনুপ্রবেশকারী গু’ লি করে মারে বিএসএফ।

রাজস্থানের বারমেড় জেলার আন্তর্জাতিক সীমান্তে এই ঘটনা ঘটে। বিএসএফ পেট্রোলিংয়ের সময় এক সন্দেহভাজনকে সীমান্তে প্রবেশ করতে দেখে। ওই ব্যক্তি কাঁটাতার পেরিয়ে ভারতে ঢোকার চেষ্টা করছিল বলে জানা যায়। তখনই তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে বিএসএফ।

তথ্যসূত্র : kolkata24x7

Reply