লাদাখে সংঘাত, ভারতীয় সেনার গতিবিধির উপর নজর রাখার নির্দেশ ওলি সরকারের

নতুন করে উত্তপ্ত লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোল। লাদাখে ফের মুখোমুখি ভারত ও চিনের সেনাবাহিনী। গোপনে ভারতের দিকে এগিয়ে আসার চেষ্টা লালচিনের। আর তা প্রতিহত করতে সবরকমভাবে প্রস্তুত ভারতীয় সেনা। দিল্লিতেও চলছে দফায় দফায় বৈঠক। এবার ভারতীয় সেনার উপর বিশেষ নজর রাখার নির্দেশ দিল নেপাল সরকার।

নেপালের বাহিনী এই এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। লিপুলেখ অঞ্চলে ভারতীয় সেনার গতিবিধির উপর বিশেষ নজর রাখার কথা বলা হয়েছে। উত্তরাখণ্ডে কালাপানি উপত্যকার উপর অবস্থিত এই লিপুলেখ। আর এই অঞ্চল হল ভারত, নেপাল ও চিনের সংযোগস্থল। তাই এই অঞ্চল নিয়ে চিন্তায় রয়েছে নেপাল সরকার। গত সপ্তাহে ওলি সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে নেপালের আর্মিড পুলিশ ফোর্সকে (NAPF) ওই অঞ্চল মনিটর করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

লিপুলেখে ৪৪ ব্যাটেলিয়ন NAPF মোতায়েন করা হয়েছে লিপুলেখে। লং রেঞ্জ প্যাট্রলিং চালানোর কথা বলা হয়েছে ওই বাহিনীকে। ভারত-চিনের সংঘাতে সেখানে পৌঁছে যেতে পারে, এই আতঙ্কেই রয়েছে নেপাল।

একইসঙ্গে চিনও লিপুলেখে তাদের বাহিনী মোতায়েন করেছে। ওই সংযোগস্থলে মোতায়েন করা হয়েছে ১৫০ লাইট কম্বাইন্ড আর্মস ব্রিগেড। সীমান্ত থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে পালাতেও সেনা মোতায়েন করে রেখেছে চিন।

জুলাইতে ১০০০ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে পালাতে। এমনকি একটি স্থায়ী পোস্টও তৈরি করা হয়েছে।

কিছুদিন আগে এই লিপুলেখ নিজেদের মানচিত্রে প্রকাশ করেছে নেপাল। সেই ম্যাপে নেপালের অন্তর্গত হিসেবে দেখানো হচ্ছে লিপুলেখ, কালাপানি ও লিম্পিয়াধুরা এলাকাকে।

ভারত নিজেদের বলে দাবি করছে, এমন বিতর্কিত ভূখণ্ড কালাপানি আর লিপুলেখকে নিজেদের মানচিত্রে অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নেপালের সরকার।

অগাস্টের শেষের দিক থেকে কমপক্ষে তিনবার ভারতে প্রবেশের চেষ্টা চালিয়েছে চিন। ভারতের দিকে এগিয়ে আসতে দেখা গিয়েছে অন্তত ৭ থেকে ৮ টি চিন সেনার হেভি ভেইকল। চিনের চেপুঞ্জি ক্যাম্প থেকে গাড়িগুলি এগিয়ে আসছে বলে জানা গিয়েছে।

ভারতীয় সেনাবাহিনীও তৈরি রেখেছে। যে কোনও ধরনের অনু্প্রবেশ রুখতে সব ব্যবস্থা করে রাখা হয়েছে। চিনের কার্যকলাপে বিরক্ত ভারত। তাই সেনা মোতায়েন একধাক্কায় অনেকটা বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। বিতর্কিত জায়গার দখল ইতিমধ্যেই নিয়েছে ভারত।

মঙ্গলবার ফের উসকানিমূলক কাজে জড়িয়েছে চিন। চলছে মিলিটারিস্তরে আলোচনা। সেই বৈঠকেই চিনের সঙ্গে অন্যান্য সীমানায় নজরদারি বাড়াতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে। চিন, নেপাল, ভুটান নিয়ে ভারতীয় সেনাবাহিনীতে জারি হয়েছে হাই অ্যালার্ট।

তথ্যসুত্রঃ khobor24x7

Reply