‘গার্লফ্রেন্ড’ শুনেই ক্ষেপলেন, মহেশ ভাট তার বাবার মত বললেন রিয়া চক্রবর্তী

সুশান্ত সিং রাজপুতের প্র’ য়া’ ণের পর রিয়া চক্রবর্তী এবং মহেশ ভাটের ঘনিষ্ঠতার ওপর বহুবার আঙ্গুল উঠেছে। সুশান্ত প্র’ য়া’ ণের পর ৬ দিন আগে অর্থাৎ ৮ ই জুন বাড়ি ছেড়েছে রিয়া চক্রবর্তী। বিগত এক বছর যাবত তারা লিভ-ইন রিলেশনশিপের ছিলেন। অথচ অসুস্থ সুশান্তকে ছেড়ে কেন চলে গেলেন রিয়া এই প্রশ্ন উঠতেই সরব হলেন অভিনেত্রী,”সুশান্তই আমাকে তাঁর বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়ার কথা বলেন।

যাঁকে আমি ভালবাসতাম, গত এক বছর ধরে দেখাশোনা করেছি, তিনি যদি বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়ার কথা বলেন, সেখানে কীভাবে আমি আর থাকতে পারি” একথা বলে পালটা প্রশ্ন তোলেন রিয়া।

রিয়া আরো জানান, সুশান্তকে তিনি ভালোবাসতেন বিগত এক বছর ধরে সে সুশান্তের দেখাশোনা করে আসছে। তারপর যখন সুশান্ত অসুস্থ হতে শুরু করে তখন তাকে বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়ার কথা বলা হয় এমনটাই দাবি করেন রিয়া। তিনি কারণ হিসেবে বলেন সুশান্তের দিদি নিতু সিং সুশান্তের কাছে আসতেন সেইজন্যই রিয়াকে অতিসত্বর বাড়ি থেকে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেন সুশান্ত।

সুশান্তের বাড়ি থেকে বেরোনোর পর মানসিকভাবে খুবই দুর্বল হয়ে পড়েন রিয়া। কি করবেন বুঝতে পারছিলেন না। একপ্রকার নিরুপায় হয়েই সে তার উপদেষ্টা মহেশ ভাট কে ফোন করেন। মহেশ ভাট তাঁর কাছে তার বাবার মত।

মহেশ ভাট এর কাছে তিনি এখন কি করবেন জানতে চাইলে, ভাট সাহেব রিয়াকে বলেন নিজের বাবার কথা ভাবতে। রিয়া বলেন মহেশ ভাট তাকে “মাই চাইল্ড” বলে সম্বোধন করেন। এর থেকে প্রমাণিত হয়েছে মহেশ ভাট রিয়াকে নিজের সন্তানতুল্য বলেই মনে করেন। প্রতিটি চ্যাটে এই বলে সম্বোধন করেছেন বলে দাবি করেন জেলেবী অভিনেত্রী।

রিয়া আক্ষেপ প্রকাশ করেন যে তার পিতৃসমান একজনকে আর প্রেমিক বলে দাবি করছেন সকলে। মহেশ ভাটের গার্লফ্রেন্ড বলে চিহ্নিত করা হচ্ছে রিয়া চক্রবর্তী কে। এখানে মহেশ ভাট গুরু তথা পিতা সমান।

তার সাথে সম্পর্ক নিয়ে এইরূপ গুজব ছড়ানো হচ্ছে এই বিষয়েও সরব হন রিয়া। পাশাপাশি তিনি এও প্রশ্ন তোলেন যে তিনি কি কারোর কাছ থেকে উপদেশ নিতে পারবেন না

তথ্যসূত্র : aajsakal

Reply