‘সবচেয়ে যোগ্য পথে’ আগ্রাসী চিনের মোকাবিলায় সক্ষম ভারত, হঠকারিতা করলে ‘বিরাট ক্ষতি’ পাকিস্তানের, হুঁশিয়ারি রাওয়াতের

পূর্ব লাদাখের গালওয়ান ও কিছু এলাকায় চিনের স্থিতাবস্থা বদলের প্রয়াসের পরিপ্রেক্ষিতেই কঠোর মনোভাব স্পষ্ট করলেন প্রাক্তন সেনাপ্রধান

ভারতের সশস্ত্র বাহিনী ‘সবচেয়ে মানানসই পন্থায়’ আগ্রাসী চিনের কার্যকলাপের মোকাবিলা করার ক্ষমতা রাখে। বললেন চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ (সি়ডিএস) জেনারেল বিপিন রাওয়াত। পূর্ব লাদাখের গালওয়ান ও কিছু এলাকায় চিনের স্থিতাবস্থা বদলের প্রয়াসের পরিপ্রেক্ষিতেই এই কঠোর মনোভাব স্পষ্ট করলেন প্রাক্তন সেনাপ্রধান। ভারত-মার্কিন কৌশলগত পার্টনারশিপ ফোরামে মতামত বিনিময়ের সেশনে তিনি বলেন, ভারতের এনগেজমেন্ট নীতির পিছনে বিশ্বাসযোগ্য সামরিক শক্তি ও আঞ্চলিক প্রভাবের জোর না থাকলে তার অর্থ হবে ওই অঞ্চলে চিনের প্রাধান্য়, আধিপত্য মেনে নেওয়া।

তিনি আরও বলেন, পরমাণু থেকে শুরু করে সাব-কনভেনশনাল অর্থাত প্রচলিত-সম্ভাব্য সংঘাতের সবচেয়ে জটিল ও চ্যালেঞ্জের সামনে রয়েছে ভারত। তবে সশস্ত্র বাহিনী তার মোকাবিলায় তৈরি। রাওয়াত স্পষ্ট বলেন, সম্প্রতি চিনের দিক থেকে কিছু আগ্রাসী আচরণের মুখে পড়েছে ভারত, কিন্তু আমরা সবচেয়ে যোগ্য পথে তার মোকাবিলা করতে পারি।

পাকিস্তানকেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি। চিনের সঙ্গে ভারতের সীমান্ত বিবাদের সুযোগ নিয়ে ভারতের বিরুদ্ধে কোনও হঠকারী পদক্ষেপ করতে গেলে পাকিস্তানের ‘বিরাট ক্ষতি’ হবে বলে জানিয়ে দেন রাওয়াত। পাকিস্তান কীভাবে ভারতের বিরুদ্ধে ছায়াযুদ্ধ চালাচ্ছে, জম্মু ও কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদীদের ঢুকিয়ে দিচ্ছে, ভারতের অন্য অংশেও সন্ত্রাসবাদ ছড়িয়ে দিচ্ছে, তা বিস্তারিত জানান তিনি।

ইন্দো-প্য়াসিফিক এলাকায় ভারতের পরিকল্পনা, আমেরিকার সঙ্গে ভারতের প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা সংক্রান্ত সম্পর্কের তাত্পর্য্য ও প্রতিরক্ষায় ম্যানুফ্যাকচারিংয়ে আত্মনির্ভর হয়ে ওঠার জন্য় সরকারের গুরুত্ব দেওয়ার প্রসঙ্গও ওঠে তাঁর বক্তব্যে।

Reply