অ্যাকাউন্ট হ্যাকের পর প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে হু’মকি, তদন্তে এনআইএ

প্রথমে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নিজস্ব ওয়েবসাইট এবং মোবাইল অ্যাপের টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক এবং পরে তিন শব্দের হু’মকি মেল কার্যত জাতীয় সুরক্ষাকে প্রশ্নের মুখে এনে দাঁড় করিয়ে দিয়েছে। প্রধানমন্ত্রীকে মেরে ফেলার হু’মকি দিয়ে একটি মেল করা হয়। যাতে মাত্র তিনটি শব্দ লেখা রয়েছে। ‘কি’ল নরেন্দ্র মোদি’। নেশনাল ইনভেস্টিকেশন এজেন্সির তরফে এই মেল প্রকাশ করা হয়। এই খবর প্রকাশে আসা মাত্র দেশজুড়ে হইচই পড়ে গিয়েছে। যেখানে দেশের প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে, সেখানে সাধারণ মানুষ কতটা নিরাপদ সেই প্রশ্ন উঠছে বিভিন্ন মহলে।

৮ অগাস্ট একটি অজ্ঞাত মেইল আইডি [email protected] থেকে আর এক আইডি-তে [email protected] এই মেল পাঠানো হয়েছিল। এনআইএ-র তরফ থেকে এ বিষয়ে দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রককে চিঠি পাঠানো হয়েছে। গোটা বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। কে বা কারা এই মেলের পেছনে রয়েছে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তাকেও আরও আঁটোসাঁটো করে দ্বিগুণ করা হয়েছে বলে সূত্রে খবর। কিন্তু এর পেছনে কে ব কারা তা এখনও যথাযথভাবে জানানো সম্ভব হয়নি। প্রধানমন্ত্রীর অ্যাকাউন্ট হ্যাক এবং পরে এই হু’মকি চিঠি দুটি বিষয় নিয়ে কার্যত দেশের গোয়েন্দাদের রাতের ঘুম ছুটেছে।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট এবং মোবাইল অ্যাপের টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়েছিল। সেখানে ক্রিপ্টো কয়েনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে অনুদান দেওয়ার আবেদন জানানো হয়। এছাড়াও অনেক অসংলগ্নমুলক টুইট করা হয়। সকলে বুঝতে পারে যে প্রধানমন্ত্রীর অ্যাকাউন্টটি হ্যাক করা হয়েছে। যদিও সঙ্গে সঙ্গে টুইটারের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীর অ্যাকাউন্টটি পুনরুদ্ধার করা সম্ভব হয় এবং হ্যাকারদের করা সমস্ত টুইট মুছে ফেলা হয়। সব মিলিয়ে দেশের প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে, তা বলাই যায়।

Reply