কী আছে রাফায়েলে, যাতে শত্রুর বুকে কাঁপুনি ধরায় এই যু-দ্ধ বিমান

চিনের সঙ্গে সীমান্ত সঙ্ঘাত চরমে পৌঁছেছে ভারতের। এরই মধ্যে আজ আনুষ্ঠানিকভাবে ভারতীয় বিমানবাহিনীতে যোগ দেবে রাফায়েল যু-দ্ধবিমান। আম্বালা বায়ুসেনা ঘাঁটিতে বায়ুসেনার ১৭ নম্বর স্কোয়ার্ড্রনে যোগ দেবে রাফায়েল জেটগুলি।

দীর্ঘ রাজনৈতিক বিতর্ক এবং প্রক্রিয়া সমাপ্তির পরে ভারতে পৌঁছেছে রাফায়েল যু-দ্ধবিমান। অত্যাধুনিক প্রযুক্তি নিয়ে এই যু-দ্ধবিমান যোগ দিচ্ছে বায়ুসেনায়। তবে আসল প্রশ্ন হল, কী এমন এই যু-দ্ধ বিমানের বিশেষত্ব, যাতে ঘাবড়ে যায় শুত্রুশিবির।

১) রাফালে রয়েছে দুটি Snecma M88 ইঞ্জিন। এই ইঞ্জিনের সুবিধা হল এই ইঞ্জিনের শক্তি নিয়ন্ত্রণ করা সহজ।

২) রাফায়েলে স্কাল্প ইজি স্টর্ম শ্যাডো, এএএসএম, ৭৩০ এ ট্রিপল ইজেক্টর র‍্যাক, ড্যামোক্লস পড, হামার মি’সা’ই’ল অ-স্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা যেতে পারে। মোট তিন ধরনের মি’সা”ইল বসানো যেতে পারে। এয়ার-টু-এয়ার মেটিওর মি’সা’ই’ল, এয়ার-টু-গ্রাউন্ড স্কাল্প মি’সা’ই’ল এবং হ্যামার মি’সা’ই’ল। এরফলে কয়েকগুণ শক্তিবৃদ্ধি হয় সেনার।

৩) রাফালের আকার এই যু-দ্ধবিমানকে হাওয়ায় লড়াই করতে সাহায্য করে। রাফায়েল দৈর্ঘ্যে ও প্রস্থে যথাক্রমে ১৫.২৭ মিটার ও ১০.৮০ মিটার। অন্যদিকে চেঙ্গদু লম্বায় ২০.৪ মিটার ও চওড়ায় ১৩.৫ মিটার।

৪) রাফালে সর্বাধিক গতি রয়েছে ২১৩০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা। যা সমস্যায় ফেলতে পারে অন্য যু-দ্ধবিমানকে। এছাড়া রাফায়েল মাত্র ১ মিনিটে ১৮ হাজার মিটার উচ্চতায় যেতে পারে। যা একে অনন্য করে তুলেছে।

৫) রাফায়েলের রাডার এবং এভিওনিক্স সিস্টেমটি অত্যাধুনিক। ফলে ডজ দিয়ে শত্রুবাহিনীকে চমকে দিতে পারে এই যু-দ্ধবিমান।

৬) এই যু-দ্ধবিমানে একবার জ্বালানী ভরা হলে এটি ১০ ঘন্টা একটানা হাওয়ায় উড়তে পারে। এছাড়া উড়তে উড়তেও জ্বালানী ভরতে পারে এই যু-দ্ধবিমান।

Reply