সম্পূর্ণ দেশীয় পদ্ধতিতে তৈরি, সাফল্যের সঙ্গে ট্রায়াল শেষ করে এবার সেনাতে নিযুক্ত করা হল হ্যালের কপ্টারের

লাইট ইউটিলিটি হেলিকপ্টার। হিমালয়ের অতি উঁচু ও দুর্গম পার্বত্য এলাকায় ভারতীয় সেনার নজরদারি বাড়াতে তৈরি এই কপ্টার। সম্পূর্ণ দেশীয় পদ্ধতিতে হিন্দুস্তান এয়ারোনটিকস লিমিটেড তৈরি করেছে কপ্টারটি। এটি অত্যন্ত শুষ্ক ও তীব্র দাবদাহের মধ্যেও সমান দক্ষতায় কাজ করতে পারে।

এই ধরণের লাইট ইউটিলিটি হেলিকপ্টার বা এলইউএইচ বুধবার পার্বত্য এলাকায় ট্রায়াল শেষ করল। গত ১০ দিন ধরে দৌলতাবাগ ওলডির উচ্চ শুষ্ক পার্বত্য খাড়াইতে ট্রায়ালে ছিল এই কপ্টার। সাফল্যের সঙ্গে ট্রায়াল শেষ করে এবার সেনাতে নিযুক্ত করা হবে এলইউএইচকে।

হিন্দুস্তান এয়ারোনটিকস লিমিটেডের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৩৩০০ মিটার ওপরে লেহতে এই ট্রায়াল চলছিল। প্রতিটি বিভাগেই অর্থাৎ, উচ্চতা-তীব্র তাপমাত্রায় সমান ভাবে পারদর্শী এই কপ্টার। দৌলত বাগ ওলডির অ্যাডভান্স ল্যান্ডিং গ্রাউন্ডে ট্রায়াল শেষ হয়। উল্লেখ্য এই গ্রাউন্ড সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৫৫০০ মিটার উঁচুতে অবস্থিত।

জানানো হয়েছে এই হেলিকপ্টারটি সিয়াচেন হিমবাহেও কাজ করতে সক্ষম। ভারী জিনিস বহনে সক্ষম এলইউএইচ সেনাবাহিনীতে খুব তাড়াতাড়ি নিয়োগ করা হবে। হ্যালের সিএমডি আর মাধবন বলেন সেনাবাহিনীর ছাড়পত্র পেলেই এটিকে কাজে লাগানো হবে। এটি কাজ করতে পুরোপুরি প্রস্তুত।

হ্যালের ডিরেক্টর অরূপ চ্যাটার্জী জানান, এই হেলিকপ্টারের পারফরম্যান্স অত্যন্ত ভাল। সেনাবাহিনীতে খুবই কাজে লাগবে এলইউএইচ। প্রতিটি পরীক্ষাই সাফল্যের সঙ্গে উতরে গিয়েছে এলইউএইচ।

মাস খানেক আগেই পূর্ব লাদাখে চিনা সেনার ওপর নজর রাখতে দেশে তৈরি লাইট কমব্যাট হেলিকপ্টার মোতায়েন করেছে ভারত। এই ধরণের দুটি কপ্টার মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানানো হয়। হ্যাল বা হিন্দুস্তান এয়ারোনটিকস লিমিটেডের তৈরি এই স্বল্প ওজনের হেলিকপ্টার অতি উচ্চতায় বায়ুসেনার নজরদারিতে সাহায্য করবে বলে জানানো হয়।

Reply