ভোটে হেরে ভাটপাড়া-নৈহাটি সমবায় ব্যাংকের চেয়ারম্যান পদ ছাড়তে বাধ্য হলেন অর্জুন

ব্যারাকপুরের দাপুটে নেতা অর্জুন সিং এর বি’রু’দ্ধে ইতিপূর্বে আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ। বহুবার পুলিশি ঝামেলায় জড়িয়েছেন অর্জুন সিং। যদিও রাজনৈতিক দ্ব’ন্দ্বের কারণে তার বি’রুদ্ধে এমন সব মিথ্যে অভিযোগ আনা হয়েছে বলে দাবি জানিয়েছিলেন অর্জুন সিং।

পুলিশের কাছে একই অভিযোগ জানিয়েছিলেন তিনি। তবে তার শেষ রক্ষা আর হলো না। ভাটপাড়া-নৈহাটি সমবায় ব্যাংকের চেয়ারম্যান পদ থেকে সরে যেতে হল অর্জুন সিং কে।

রবিবার ১২-০ ভোটে অপসারিত হন তিনি। অর্জুন সিং এর এই অপসারণের ফলে বিজেপির উপর যে চাপ বাড়ল তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। বছর দুয়েক আগে ভাটপাড়া নৈহাটি সমবায় ব্যাংকের অপসারিত চেয়ারম্যান অর্জুন সিং এর বি’রুদ্ধে প্রায় ২০ কোটি টাকা ঋণ অবৈধভাবে পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে।

তদন্ত করে জানতে পারা যায়,ভাটপাড়া পুরসভার ঠিকাদার অভিজিৎ চক্রবর্তীকে ২০১৮-র অক্টোবরে দু’দফায় মোট ১৩ কোটি টাকা ঋণ পাইয়ে দিয়েছেন অর্জুন সিং। কিন্তু সেই টাকা নাকি অভিশাপ চক্রবর্তীর পরিবর্তে অন্য কারো একাউন্টে চলে যায়।

ব্যাংকের তৎকালীন সিইও চন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যেরও নাম জড়িয়ে ছিল এই ঘটনায়। চন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য এবং অভিজিৎ চক্রবর্তীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। একই মামলায় নাম জড়িয়ে যায় ব্যারাকপুরের সংসদ অর্জুন সিং এর।

যদিও প্রথম দিন থেকে নিজের বি’রুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে গিয়েছেন অর্জুন সিং। বিজেপির দলে যোগ দেওয়ার কারণে তার নামে সকলে মিথ্যা অভিযোগ এনেছেন বলে অভিযোগ জানানোর জন্য। তবুও অর্জুন সিং এর ওপর সকলেরই সন্দেহ থেকে যাওয়ার কারণে রবিবার ভোট হয়। সমবায় ব্যাংকের চেয়ারম্যান পদে ১২-০ ভোটে অপসারিত হলেন অর্জুন সিং। বিষয়টি মেনে নেওয়া তার পক্ষে খুবই অস্বস্তির।

Reply