“ক্ষমতায় আসলে রাজ্যের পুলিশকে প্রত্যন্ত এলাকায় বদলি করে দেব”, হুমকি অগ্নিমিত্রা পালের

রাজ্য পুলিশের দ্বিচারিতা নিয়ে আবারো সরব হয়েছেন বিজেপি মহিলা মোর্চার রাজ্য সভানেত্রী অগ্নিমিত্রা পাল। শিলিগুড়িতে মিছিল করতে গিয়ে বাধাপ্রাপ্ত হন তিনি। তৎক্ষণাৎ রাজ্য পুলিশের বি’রু’দ্ধে হুম’কি দিয়ে বলেন, ক্ষমতায় আসলে তাদের প্রত্যন্ত অঞ্চলে বদলি করে দেওয়া হবে।

শুক্রবার শিলিগুড়ির কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়াম থেকে রাজ্য বিজেপির একটি মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। এই মিছিলের উদ্দেশ্য আইনশৃঙ্খলার অবনতির বি’রু’দ্ধে প্রতিবাদ করা। বিজেপি মহিলা মোর্চার রাজ্য সভানেত্রী অগ্নিমিত্রা পল, সাংসদ সৌমিত্র খাঁ, সায়ন্তন বসু-সহ বিজেপির অন্যান্য নেতাকর্মীরা এই মিছিলে পা মেলান।

হাসপাতাল মোড় এর কাছে পৌঁছাতে দেখা যায় পুলিশ সেই রাস্তায় ব্যারিকেড দিয়ে ঘিরে দিয়েছে। ব্যারিকেড বেরিয়ে এগোতে থাকে মিছিল। হাসমিচকের সাহায্যে বাধা দেওয়া হয় মিছিল কে।

বারিকের পেরিয়ে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে মিছিলে পা মিলানো বিজেপি নেতা কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের খণ্ডযুদ্ধ বাঁধে। পুলিশি হামলায় বেশ কয়েকজন জখম হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে বিজেপির পক্ষ থেকে।

সামগ্রিক পরিস্থিতির উপর বিচার করে অগ্নিমিত্রা পাল পুলিশের উদ্দেশ্যে কড়া ভাষায় বলেন,”যে সমস্ত পুলিশ অতিসক্রিয় হয়ে বাধা দিচ্ছে। ৬ মাস পর আমাদের সঙ্গে কাজ করতে হবে তাঁদের। প্রত্যন্ত এলাকায় বদলি করে দেওয়া হবে। রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করতে পারছেন না মুখ্যমন্ত্রী।

তাঁর অবিলম্বে পদত্যাগ করা উচিত।” থেমে থাকেননি বিষ্ণুপুরের সংসদ সৌমিত্র খাঁ। তিনি বলেন,”ক’রো’না পরিস্থিতিতে শুধু তৃণমূলই রাস্তায় বেরতে পারে। বিজেপি কর্মীরা পথে নামলেই বাধা দেওয়া হচ্ছে।

আমরা বদলা নেব। বদলও করব।” তাদের সঙ্গে তাল মিলিয়ে সায়ন্তন বসু বলেন,”কাটমানি, চালচুরি, রেশন দুর্নীতির দল তৃণমূল। আমরা ক্ষমতায় আসলে রাজ্যে রামরাজত্ব ফিরিয়ে আনা হবে।” এদিকে বিজেপির বিক্ষোভ কর্মসূচির ফলে হাসপাতালে নিরাপত্তা আরও বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

Reply