‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ নয়, ‘মেক ইন ফ্রান্স হয়ে গেছে’, বিজেপিকে ফের রাফাল তোপ কংগ্রেসের

রাফাল ইস্যুতে বরাবরই কংগ্রেসের নিশানায় বিজেপি। সময় সুযোগ এই যু-দ্ধ বিমানের চুক্তিকে নিয়ে এখনও মোদী সরকারকে অতীতের তিন প্রশ্ন ছুড়ে বসেন রাহুল। সম্প্রতি এহেন রাফালকে কেন্দ্র করে প্রকাশ্যে এসেছে কেন্দ্রীয় সংস্থা ‘ক্যাগ’-এর রিপোর্ট। যেখানে দাবি করা হয়েছে রাফালের নির্মাণ সংস্থা ফ্রান্সের দাসোঁ এভিয়েশন নিজেদের ‘অফসেট চুক্তি’ (দেশীয় সংস্থাকে প্রযুক্তি হস্তান্তর করে যন্ত্রাংশ নির্মাণ) অনুযায়ী কাজ করেনি। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই এবার মোদী সরকারকে তীব্র আক্রমণ শানালো কংগ্রেস। বৃহস্পতিবার টুইট করে কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সিং সূর্যেওয়ালা জানালেন, ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ নয়, ‘মেক ইন ফ্রান্স হয়ে গেছে’। অথচ মোদীজি বলছেন, সব ঠিক আছে।

সম্প্রতি সংসদ অধিবেশনের একেবারে শেষ পর্বে কেন মোদী সরকারের সঙ্গে দাসোঁর ‘অফসেট চুক্তি’ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়নি সে বিষয়ে প্রশ্ন তোলা হয় ক্যাগ রিপোর্টে। স্বাভাবিকভাবেই এই ঘটনা মোদী সরকারের এই চুক্তি নিয়ে বিরোধীদের হাতে অ-স্ত্র তুলে দেয়। এরপরই সরকারকে তীব্র আক্রমণ সঙ্গে কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সূর্যেওয়ালা টুইট করে জানান, ‘ভারতের সবচেয়ে বড় প্রতিরক্ষা চুক্তির ক্রোনোলজি ধীরে ধীরে প্রকাশ্যে আসছে।

ক্যাগ এর নতুন রিপোর্টে স্বীকার করে নেওয়া হয়েছে রাফাল অফসেটে ‘প্রযুক্তি আদান-প্রদান’-এর বিষয়টিকে বাতিলের খাতায় ফেলে রাখা হয়েছে। শুরুতে মেক ইন ইন্ডিয়া মেকিং ফ্রান্স হয়ে গেল এবার ডিআরডিও প্রযুক্তি আদান-প্রদানের বিষয়টিকে বাতিলের খাতায় ফেলে রাখা হল। অথচ মোদীজি বলছেন, সব ঠিক আছে।’

উল্লেখ্য, রাফাল কেনার শর্ত অনুযায়ী চুক্তির মোট অংকের একাংশ প্রত্যক্ষ বিনিয়োগ হিসেবে ভারতে আসার কথা। কিন্তু ফ্রান্সের ওই সংস্থা সে শর্ত পালন করেনি। প্রাথমিক ভবে দাসো জানিয়েছিল চুক্তির শর্ত পূরণ করতে তারা ৩০ শতাংশ পূরণ করতে ডিআরডিওকে উন্নত মানের প্রযুক্তি বিনিময় করবে। এরপর ডিআরডিও হাল্কা যু-দ্ধ বিমান তৈরিতে কাবেরী নামক ইঞ্জিনের জন্য প্রযুক্তিগত সাহায্য চায় ওই সংস্থার কাছে। হবে সিএজির রিপোর্ট অনুযায়ী, প্রযুক্তিগত সাহায্যতো তারা করেনি উল্টে এ বিষয়ে কোনও বক্তব্য পেশ করেনি।

Reply