বেআইনি বোমা তৈরীর আঁতুড়ঘরে পরিণত হয়েছে পশ্চিমবাংলা, মমতা ও পুলিশকে বিঁধলেন ধনকড়

বাংলার রাজ্যপাল হয়ে আসার পর থেকেই সরকারের সঙ্গে আদায়-কাঁচকলায় সম্পর্ক রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের। বঙ্গের আইন-শৃঙ্খলা ইস্যুতে মাঝেমধ্যেই সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয়ে ওঠেন তিনি। সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গ থেকে ছয়জন সন্দেহভাজন আল-কায়েদা জ’ঙ্গি গ্রেফতার হওয়ার পর রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা ইস্যুতে সরকারকে তোপ দাগলেন তিনি। একের পর এক টুইটে পুলিশের সমালোচনা করার পাশাপাশি তার অভিযোগ, ‘বেআইনি বোমা তৈরীর আঁতুড়ঘরে পরিণত হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ’।

শনিবার নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে পরপর তিনটি টুইট করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। তার সেই টুইটে সরকারের বিরুদ্ধে রীতিমতো খড়গহস্ত হয়ে ওঠেন তিনি। লেখেন, ”রাজ্য বোমা তৈরীর আঁতুড়ঘরে পরিণত হয়েছে। এর ফলে গণতন্ত্র বিপন্ন হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।’ এরপরই রাজ্য পুলিশকে এক হাত নিয়ে তিনি লেখেন, রাজ্য পুলিশ প্রশাসন ব্যস্ত বিরোধীদের মোকাবিলা করতে। যারা উচ্চ পদে রয়েছেন তারা নিজেদের দায়িত্ব এভাবে এড়িয়ে যেতে পারেন না।’

উল্লেখ্য, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ ও কেরলের একাধিক অঞ্চলে তল্লাশি অভিযান চালান সদস্যরা। এর পরই পশ্চিমবঙ্গ থেকে ছয়জন ও কেরল থেকে তিনজন সন্দেহভাজন আল-কায়েদা জ’ঙ্গিকে গ্রেফতার করা হয়। দেশের একাধিক জায়গায় হামলার ছক কষেছিল এই জ’ঙ্গিরা এমনটাই জানা গিয়েছে এনআইএ সূত্রে। তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ বি’স্ফো’র’ক ও নানাবিধ নি’ষিদ্ধ বস্তু উদ্ধার করা হয়। আমার পরপরই টুইট করে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে আ’ক্রমণাত্মক হয়ে ওঠেন রাজ্যপাল।

উল্লেখ্য, রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা ইস্যুতে এই প্রথমবার নয় এর আগেও একাধিকবার সরব হয়েছেন জগদীপ ধনকড়। কখনো প্রশাসনকে শাসকদলের ‘দলদাস’ হিসেবে অভিযোগ করেছেন কখনো আবার তিনি বলেছেন খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্যই প্রশাসন ঠিকমতো কাজ করতে পারে না। সেই আবহেই এবার রাজ্যপালের এই টুইট সংঘাতের আগুনে নতুন করে ঘি ঢাললো।

Reply