“ভাতা নয়, চাকরি চাই”, চাকরির দাবিতে কলকাতায় বিক্ষোভ যুবশ্রীদের

দীর্ঘ ৭ বছর পর টনক নড়েছে রাজ্যবাসীর। রাজ্যজুড়ে যেখানে যে সমস্যায় হোক না কেন রাজ্যবাসীকে সাহায্য করতে এগিয়ে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে চাকুরী দিয়ে নয়, কোন ভাতা কিংবা প্রকল্প চালু করে সহায়তা করেছেন।

তাতে সাময়িক সুরাহা মিটলেও যুবসমাজের সসম্মানে চাকরিপ্রাপ্তির সুযোগ ঘটে নি। রাজ্যে কর্মসংস্থান শিল্পোন্নয়নের অভাব। তাই এবার চাকরি চাইতে পথে নামল যুবসমাজ।

ভাতা নয়, চাকরি চাই, এই দাবিতে বৃহস্পতিবার বেন্টিঙ্ক স্ট্রিটে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন যুবশ্রী প্রকল্পের আওতাভুক্ত যুবক-যুবতীরা। যুবক যুবতীদের চাকরি দেওয়ার জন্য মুখ্যমন্ত্রী যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তা যদি তিনি পালন করতে না পারেন তবে ভবিষ্যতে আরও বৃহত্তর গণআন্দোলন গড়ে তোলার কথা বলেন তারা।

পশ্চিমবঙ্গ যুবশ্রী এমপ্লয়মেন্ট ব্যাঙ্ক কর্মপ্রার্থী সমিতির সদস্যরা জানিয়েছেন,২০১৩ সালে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের যুবশ্রী প্রকল্প চালু করার সময় বলেছিলেন, যুবশ্রী প্রকল্পের আওতাভুক্ত ১লাখ যুবক-যুবতী প্রত্যেক মাসে দেড় হাজার টাকা করে ভাতা পাবেন। রাজ্য সরকারের গ্রুপ সি এবং গ্রুপ ডি পদে নিয়োগ করা হবে তাদের। মাঝখানে প্রায় সাত সাতটি বছর পেরিয়ে গেলেও চাকরি জোটেনি।

চাকরি পাওয়া তো দূরের কথা, বহু যুবশ্রী প্রকল্পের আওতাভুক্ত যুবক-যুবতীদের ভাতা বন্ধ করে দিয়েছে রাজ্য সরকার। মুখ্যমন্ত্রী যে চাকরির যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন সেই মত চাকরি যাতে দেওয়া হয় তার দাবিতে বেন্টিঙ্ক স্ট্রিটে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন চাকরিপ্রার্থীরা। এমনকি শ্রম মন্ত্রি মলয় ঘটকের কাছে ডেপুটেশন জমা দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে তাদের।

বিক্ষোভকারীদের দাবি, দীর্ঘ সাত বছর হয়ে গেলেও কোন চাকরি পাননি তারা। বাড়িতে বৃদ্ধ মা বাবার দায়িত্ব নিতে হিমশিম খাচ্ছেন কর্মসংস্থান না থাকার কারণে। তাই সরকারের থেকে কোনো ভাতা নয় বরং চাকরি আশা করছেন তারা।

Reply