ভারতের তিরাঙ্গা উড়বে বিদেশের মাটিতেও, নায়াগ্রা ফলসের সামনে উড়বে ভারতের জাতীয় পতাকা

৭৪ তম স্বাধীনতা দিবসে জোড়া সুখবর ভারতীয়দের জন্য। ঐতিহাসিক টাইমস স্কোয়্যারে উড়বে ভারতের জাতীয় পতাকা। তা আগে থেকেই ঠিক করা ছিল। এবার আরও এক নতুন রেকর্ড গড়বে ভারত। এই প্রথমবার ভারতের স্বাধীনতা দিবসে নায়াগ্রা ফলসের সামনে উড়বে ভারতের ঐতিহ্যবাহী জাতীয় পতাকা।শনিবার বিকেলে ওই জলপ্রপাতের সামনে ভারতীয় তেরঙ্গা উত্তোলন করা হবে বলে জানিয়েছেন কানাডার ভারতীয় দূতাবাস। এবারের স্বাধীনতা দিবসের দিনটি যে ভারতের ইতিহাসে অন্যতম দিন হিসেবে পরিচিত হতে চলেছে তা নিঃসন্দেহে বলা যায়।

রাত পোহালেই ভারতের ৭৪তম স্বাধীনতা দিবস। ক’রো’না সংক্রমণের কারণে এইবছর আগের মত সমারোহে পতাকা উত্তোলিত হবে না। স্কুল কলেজ বন্ধ থাকার কারণে পড়াশোনা যেরকম অনলাইনে হচ্ছে ঠিক একইভাবে যেকোনো ধরনের সরকারি বা বেসরকারি সমাবেশ ভার্চুয়ালি করার দিকেই ঝুঁকছে সকলে।

তবে এবার স্মার্টফোন কিংবা কম্পিউটার স্ক্রিনে নজর রাখলে দেখা যাবে বিভিন্ন প্রান্তের অনুষ্ঠিত বিভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠান। মোবাইলের স্ক্রিন-এ চোখ রেখেই দেশের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে হবে দেশবাসীকে।

একসাথে জমায়েত করে জাতীয় পতাকার নিচে দাঁড়িয়ে জাতীয় সংগীত গাওয়া এবছর না হওয়ায় বেশ আক্ষেপের সুর শোনা যাচ্ছে ভারতীয়দের কণ্ঠে। কিন্তু এই পরিস্থিতিতেও পৃথিবীর বিভিন্নপ্রান্ত পালিত হবে ভারতের ৭৪ তম স্বাধীনতা দিবস।

কানাডার ভারতীয় দূতাবাস সূত্রে খবর,কাল বিকেলে নায়াগ্রা ফলসের সামনে ভারতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। টরন্টোর ভারতীয় কনসোল জেনারেল অপূর্ব আগরওয়াল বলেছেন, শুধু নায়াগ্রা ফলস নয়,কানাডার আরও দুটি বিখ্যাত জায়গায় কাল ভারতীর তেরঙ্গা উড়বে।

গেরুয়া, সাদা, সবুজে সাজবে টরন্টোর সিটি হলের সামনে থ্রিডি সাইন টরন্টো লেখাটি। টরন্টোর ৫৫২ মিটার উঁচু সিএন টাওয়ারে আগামীকাল ভারতীয় পতাকা উড়বে। কানাডায় বসবাস কারী ভারতীয়রা প্রত্যেক বছর ভারতের স্বাধীনতা দিবস পালন করেন মহাসমারোহে। এবছর তা না হওয়ায় তাদের মনেও রয়েছে আক্ষেপ।

ভার্চুয়াল প্রোগ্রাম-এর মাধ্যমে কানাডায় বসবাসকারী ভারতীয়রা স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন। ওটাওয়ায় ভারতীয় হাই কমিশনে পতাকা উত্তোলনের লাইভ স্ট্রিমিং হবে। টরন্টো ও ভ্যানকুভারের কনসুলেটে পতাকা উত্তোলনের মুহূর্ত ভার্চুয়ালি দেখানো হবে।

ক’রো’না পরিস্থিতিতেও কানাডার ভারতীয়রা ফুড ফেস্টিভেল-এর আয়োজন করেছেন। তবে এবার অবশ্য সেইসব খাবার চেখে দেখার সুযোগ নেই। সেলেব্রিটি শেফরা বিভিন্ন সুস্বাদু ভারতীয় পদ তৈরি করবেন। সশরীরে থাকার সৌভাগ্য না হলেও লাইভ সম্প্রচার চলবে, এতেই মন্দের ভালো হিসেবে সন্তুষ্টি থাকা ছাড়া আর কোন উপায় নেই।

Reply