একসময়ের বিশ্বের ষষ্ঠ ধোনি ব্যাক্তি! বর্তমানে গয়না বেঁচে উকিলের খরচ জোগাচ্ছেন অনিল আম্বানি

আজ যে রাজা কাল সে ফকির, এমন ঘটনার নজির আমরা অনেক দেখেছি। কিন্তু সেই অবস্থার স্বীকার রিলায়েন্স কমিউনিকেশনের কর্ণধার অনিল আম্বানি। এক সময় যিনি কিনা বিশ্বের ষষ্ঠতম ধনী ব্যক্তি ছিলেন।

বর্তমানে তিনি দেউলিয়া। বন্ধ হয়ে গেছে কোম্পানি। বন্ধ হয়ে গেছে রোজগারের সব রাস্তা। পরিস্থিতির কাছে হার মেনে শেষ পর্যন্ত উকিলের খরচ মেটাতে গয়না বিক্রি করতে হচ্ছে তাকে। সূত্রের খবর, সবচেয়ে ধনী ব্যক্তির ভাই আম্বানি ব্রিটেনের এক আদালতে এমনটাই জানিয়েছেন।

আম্বানির সংস্থাকে ঋণ বাবদ কয়েক হাজার কোটি টাকা দিয়েছে বলে দাবি করেছে চিনের রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাংক,চায়না ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক, ইন্ডাস্ট্রিয়াল এন্ড কমার্সিয়াল ব্যাংক অব চায়না এবং এক্সিম ব্যাংক অব চায়না। ব্যক্তিগত গ্যারান্টিতে ঋণ গ্রহণ করেছেন অনিল আম্বানি।

ব্যবসায়িক কাজে ক্ষতি হওয়ায় এই ব্যাংকগুলির ঋণ তিনি মেটাতে ব্যর্থ অনিল। উপায় না দেখে ব্যাংকগুলি একই সঙ্গে ব্রিটেন এবং ভারতের আদালতে অনিলের বিরুদ্ধে মামলা করে। ব্রিটেনের আদালত চিনের তিনটি ব্যাংকের প্রায় ৫ হাজার ৪৪৮ কোটি টাকা ঋণ শোধ করার নির্দেশ দিয়েছে।

অনিল আম্বানি জানিয়েছেন,আমার চাহিদা সর্বদাই স্বল্প। মাত্র একটিই গাড়ি চেপে ঘুরি এখনও।” অনিলের মুখপাত্র জানান যে, অনিল আম্বানির স্পোর্টস কারের বিষয়ে সংবাদমাধ্যম গুজব রটিয়েছে।

অনিলের মুখপাত্র জানিয়েছেন,”৬১ বছরের অনিল আম্বানি আধ্যাত্মিক জীবনযাপনের পাশাপাশি পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতেও ভালোবাসেন। মদ্যপান বা ধূমপান থেকে সর্বদা দূরে থেকে সর্বদা সুস্থ জীবনযাপন করতে অভ্যস্ত তিনি। বিলাসবহুল জীবনযাপন না করে নানাবিধ শরীরচর্চায় নিজেকে সবল রাখেন তিনি।”

ব্রিটেনের আদালতের নির্দেশ,প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার কোটি টাকা ঋণ মেটাতে হবে অনিল আম্বানিকে। তাঁর বর্তমান পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে তিনি গাড়ি ছিল না। তিনি বর্তমানে মাত্র একটি গাড়ি ব্যবহার করেন।

আর ২০২০ সালের জানুয়ারী থেকে জুনের মধ্যে তার সমস্ত গয়না বিক্রি করে তিনি ৯.৯ কোটি টাকা পেয়েছেন, তাই দিয়েই আইনি খরচ চালাচ্ছেন। তিনি জানিয়েছেন এই মুহূর্তে ঋণ মেটানো সম্ভব নয় তার।

Reply