“কথা দিচ্ছি! ক্ষমতায় এলে বাতিল হবে কৃষিবিল”, কৃষকদের প্রতিশ্রুতি দিলেন রাহুল

পাঞ্জাবে কৃষি বিল বিরোধী আন্দোলনে যোগদান করার কথা ছিল কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীর। কথা রাখলেন তিনি। একই সঙ্গে পাঞ্জাবের কৃষকদের এক বড় প্রতিশ্রুতি দিলেন তিনি। এদিন রাহুল।বলেন,”কেন্দ্রে ক্ষমতায় এলে এই কালো আইন প্র’ত্যাহার করবে কংগ্রেস।”

পাঞ্জাবের কৃষক আন্দোলনে রবিবার নেতৃত্ব দিয়েছিলেন রাহুল গান্ধী। চাষি এবং আন্দোলনকারীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখতে গিয়ে রাহুল গান্ধী বলেন,”ন্যূনতম সহায়ক মূল্য, সরকারি সংস্থার ফসল কেনা ও খুচরো বাজার-কৃষির তিন স্তম্ভ।

বিজেপির একমাত্র লক্ষ্য ন্যূনতম সহায়ক মূল্য ও সরকারি সংস্থার ফসল কেনা ক্ষমতা নষ্ট করে দেওয়া। কিন্তু কংগ্রেস তা করতে দেবে না।” একইসঙ্গে এই আইন প্রত্যাহারের আশ্বাস দিয়ে বলেন,”কথা দিচ্ছি, কংগ্রেস কেন্দ্রে ক্ষমতায় এলে এই কা’লো কানুন প্রত্যাহার করবে। ততদিন নরেন্দ্র মোদির সরকার যাতে এই আইন কার্যকর করতে না পারে, তার জন্য লড়াই চলবে।”

পাঞ্জাবের তিনদিনের ট্রাক্টর যাত্রার উদ্বোধন করলেন রাহুল গান্ধী। এমনকি মিছিলেও সঙ্গ দিয়েছিলেন তিনি। তার সাথে ছিলেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং। লোকসভায় উত্থাপিত বিলগুলি হল “অত্যাবশ্যক পণ্য আইন” সংশোধন, “কৃষি পণ্য লেনদেন ও বাণিজ্য উন্নয়ন” এবং “কৃষিপণ্যের দাম নিশ্চিত রাখতে কৃষকদের সুরক্ষা ও ক্ষমতায়ন চুক্তি” বিল।

এগুলির মধ্যে “কৃষিপণ্য লেনদেন ও বাণিজ্য উন্নয়ন” এবং “কৃষিপণ্যের দাম নিশ্চিত রাখতে কৃষকদের সুরক্ষা ও ক্ষমতায়ন চুক্তি” বিল রাজ্যসভায় পাস করা হয়েছে। কৃষকদের আশঙ্কা বাজার থেকে সরকারি নিয়ন্ত্রণ উঠে যাবে৷

সরকার ন্যূনতম সমর্থন মূল্যে ফসল কেনা বন্ধ করে দেবে৷ সেই কারণেই অন্যান্য বিরোধী দলগুলোর মত ময়দানে নেমেছে কংগ্রেস। পাঞ্জাবে তিনদিনের খেতি বাঁচাও আন্দোলন চলছে। তারই সূচনা করেন রাহুল গান্ধী।

Reply