“সব ধাক্কা সহ্য করে নেব, কিন্তু দেশকে রক্ষা করব”, বললেন রাহুল গান্ধী

হাথরসের নির্যা’তিতার পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার পথে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ আটক করে রাহুল গান্ধী এবং প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে। এমনকি গলাধাক্কা দিয়েছিল তাঁদের।

মঙ্গলবার পঞ্জাবে সেই প্রসঙ্গ তুলে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী পরিষ্কার জানিয়ে দেন যে, যোগী আদিত্যনাথ সরকারের পুলিশের এই ধরনের আচরণ তিনি কানেই তুলতে চান না। রাহুলের বলেন,”যদি আমাকে ধাক্কা দেওয়া হয় তাতে কী-ই বা হয়েছে, আমাদের কাজ দেশকে রক্ষা করা।”

“খেতি বাঁচাও যাত্রা” নামে পাঞ্জাবে তিন দিনের এক “ট্রাক্টর র‌্যালি” র আয়োজন করা হয়। সেখানেই শেষ দিনের অনুষ্ঠানে যোগ দেন রাহুল গান্ধী। ট্রাক্টরের সওয়ারি হিসেবে চালকের আসনে বসেন তিনি। তিনি বলেন,”ওই সরকার (কেন্দ্র) গোটা দেশের মানুষকেই ধাক্কা দিয়ে কোণঠাসা করে দিয়েছে। তাই আমাকে ধাক্কা দেওয়া হয়েছে কি না, সেটা কোনও বড় বিষয় নয়।”

হাথরস-কাণ্ড নিয়ে একটি কথা বলেননি প্রধান মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এদিন সে প্রশ্নও এ দিন তুলেছেন কেরলের ওয়েনাড়ের কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী। প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার হাথরসে নিহত দলিত তরুণীর পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার সময় যমুনা এক্সপ্রেসওয়েতে রাহুল এবং প্রিয়াঙ্কার কনভয় আটকায় উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। সে সময় এক পুলিশ অফিসারের ধাক্কায় রাহুলের মাটিতে পড়ে যান।

এই নিয়ে রাহুল জানান,”আমি ধাক্কা সহ্য করে নেব। কিন্তু আসলে ভয়ঙ্কর ধাক্কা খেয়েছে ওই পরিবার। যাঁদের বাড়িতে কন্যাসন্তান রয়েছে, তাঁরা পরিস্থিতিটা উপলব্ধি করতে পারবেন। আপনার মেয়েকে কেউ মে’-রে ফেলছে! আপনাকে আপনারই বাড়িতে তালা বন্ধ করে রাখা হচ্ছে! জেলাশাসক আপনাকে হু’মকি দিচ্ছেন! ওই পরিবার যাতে নিজেদের একা না-ভাবে, তাই আমি সেখানে যাচ্ছিলাম।”

শনিবার ফের হাথরসে যাওয়ার পথে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের অ’শালীন আচরণের শিকার হতে হয় প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে। এক পুরুষ পুলিশকর্মী তার পোশাক ধরে টেনে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু রাহুল ব্যক্তিগত সমস্যা নিয়ে আলোচনা না করে বৃহত্তর স্বার্থে সমস্যার সমাধান চান বলে জানান।

সংসদে মোদী সরকারের পাশ করা তিনটি কৃষি বিল কৃষকদের সর্বস্বান্ত করবে বলে মনে করেন রাহুল। ওই কালা কানুন বাতিলের জন্য লাগাতার আন্দোলন চলবে কংগ্রেস।

Reply