“কাপুরুষ প্রধানমন্ত্রী, আমাদের সরকার হলে ১৫ মিনিটে চিনা সেনাকে উৎখাত করত”, দাবি রাহুল গান্ধীর

ভারতের উপর চিনা আগ্রাসন নিয়ে ফের প্রধানমন্ত্রী কে কটাক্ষ করলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। হরিয়ানার সভা থেকে প্রধানমন্ত্রীকে “কাপুরুষ” বলে আখ্যা দিলেন তিনি। রাহুলের দাবি, কংগ্রেস সরকার ভারতের ক্ষমতায় থাকলে এতদিনে চীনকে উৎখাত করে ফেরত পাঠিয়ে দিত,তাও আবার ১৫ মিনিটের মধ্যে।

মঙ্গলবারে হরিয়ানায় বক্তব্য রাখেন রাহুল গান্ধী। এদিন তিনি বলেন,”আমাদের দেশের ভিতরে পা রাখার ক্ষমতা চিনের ছিল না। বিষয়টা বুঝুন! আজ পৃথিবীতে এমন একটাই দেশ রয়েছে যার ভূখণ্ডে অন্য কোনও দেশের সে’না প্রবেশ করে ১২০০ বর্গকিলোমিটার দখল করে ফেলেছে। আর কাপুরুষ প্রধানমন্ত্রী বলছেন, দেশের জমি কেউ নেয়নি।

বিশ্বে শুধুমাত্র ভারতই এমন দেশ যার জমি দখল করে নেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নিজেকে দেশভক্ত হিসেবে দাবি করেন। এদিকে পুরো দেশ জানে ভারতের ভিতরে প্রবেশ করেছে চিনা সে’না। কেমন দেশভক্ত ও? আমি আপনাদের বলছি আমাদের সরকার থাকলে চিনা সে’নাকে উৎখাত করে দেশের বাইরে ফেলে দিত।

১৫ মিনিটও লাগত না। আমাদের বায়ুসে’নার ১৫ মিনিটও লাগত না চিনকে ১০০ কিলোমিটার দূরে পিছিয়ে দিত। এই প্রধানমন্ত্রী দেশকে বোঝে না, কৃষকদের বোঝে না, শ্রমিকদের শক্তি বোঝে না, হিন্দুস্তানের শক্তিই বোঝে না।”

ইতিপূর্বে ভারত এবং চিনের সমস্যা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন রাহুল গান্ধী। “ক্রোনোলজি” কি তা বুঝিয়ে দিয়েছিলেন টুইট করে। রাহুলের কথায়, প্রধানমন্ত্রী প্রথমে দাবি করেছিলেন যে ভারতে কোথাও চিনা অনুপ্রবেশ ঘটে নি। তারপরেই চিনের একটি ব্যাংক থেকে মোটা অঙ্কের ঋণ নেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রথমদিকে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং জানিয়েছিলেন, ভারতের জায়গা দখল করছে চিন। অন্যদিকে আবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানাচ্ছেন কোন অনুপ্রবেশ ঘটে নি। এরপরই প্রশ্ন উঠে, মোদি সরকার ভারতীয় সে’নার পক্ষে নাকি চিনের?

Reply