“রাজ্যপাল আইনজীবী নন, লাইনজীবী” মোদির সঙ্গে লাইন করে টিকে আছেন, রাজ্যপালকে কটাক্ষ জিতেন্দ্র তিওয়ারির

রাজ্যপালকে নিয়ে শাসকদলের কটাক্ষের কারণে সরব হয়েছিলেন বাবুল সুপ্রিয়। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় বলেছিলেন,”রাজ্যপাল বলিষ্ঠ ব্যক্তি ও বিশিষ্ট আইনজীবী। তাই অসাংবিধানিক মন্তব্য তিনি করেন না।” বাবুল সুপ্রিয়র হুঁ’শিয়ারিতে থেমে না গিয়ে ফের কটুক্তি তে মেতেছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস।

এদিন আসানসোলের মেয়র তথা জেলা তৃণমূল সভাপতি জিতেন্দ্র তিওয়ারি রাজ্যপাল জগদীপ ধনকরকে কটাক্ষের সুরে বলেন,”জগদীপ ধনকর শুধু আইনজীবী নন, উনি লাইনজীবী।

মোদির সঙ্গে লাইন করে এখানে টিকে আছেন। রাজ্যের একজন সাংবিধানিক প্রধান হয়েও তিনি আরএসএস ও বিজেপির লাইনেই চলেন। উনি সবার সঙ্গে লাইনটা তৈরি করেছেন বলেই আমাদের সাংসদের এত প্রিয়।”

বুধবার আসানসোলের দলীয় কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে হাজির ছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। সেখানেই তিনি রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে একের পর এক অভিযুক্ত ধরেন। এই প্রসঙ্গে জিতেন্দ্র তিওয়ারি বলেন,”যে কাজ উনি করেননি তার কৃতিত্ব নেওয়ার জন্য অসত্য কথা বলে যাচ্ছেন।”

তার অভিযোগ,কুলটির জল প্রকল্প থেকে আসানসোল এর সমস্ত উন্নয়নের কাজ নিজে করেছেন বলে দাবি জানিয়েছেন বাবুল সুপ্রিয়। এবার তিনি কোন দিন বলে বসবেন যে ইন্ডিয়া গেট তিনি তৈরি করেছেন।

বিদ্রূপের সুরে বাবুল সুপ্রিয় কে কটাক্ষ করে তিওয়ারি বলেন,”এক ধরনের পাখি আছে বুলবুল। সে যখন রেগে যায় তখন জোরে জোরে কথা বলে। বাবুল সুপ্রিয় সেরকম এখন জোরে জোরে কথা বলছেন! সেই কথাগুলি সবটাই অসত্য। তাই বাবুল সুপ্রিয় না বলে বুলবুল সুপ্রিয় বলে ডাকা উচিত।”

জিতেন্দ্র তিওয়ারি এমন বক্তব্যে থেমে থাকেনি বিজেপি। এ সম্পর্কে জনপ্রিয় একটি জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যমকে বাবুল সুপ্রিয় বলেন,”যে নোংরা ভাষা উনি ব্যবহার করেন, সেটাকে ইংরাজিতে বার্কিং বলেন। তাছাড়া এমনিতেও তিওয়ারিকে আমি সিরিয়াসলি নিই না। বিজেপির জুনিয়র ছেলেরাই ওটা হ্যান্ডেল করে নেবে।”

Reply