কনকনে ঠাণ্ডাতেও যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত ভারত, ২৬ হাজার ফুট উচ্চতায় সফল উড়ান রুস্তম-২ ড্রোনের

আর বেশী দেরি নেই, সামনেই পূর্ব লাদাখের রুপের এক বিশাল পরিবর্তন হতে চলেছে, কারণ কনকনে শীতে পূর্ব লাদাখের প্রাকৃতিক রুপরেখা একেবারেই পরিবর্তন হতে চলেছে, কিন্তু তার জন্য থেমে নেই ভারতীয় সেনা বাহিনী। তারা কিন্তু সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েই চলেছে। এবার সেই কাজেই যোগ দিল রুস্তম-২ নামক একটি ড্রোন। এই ড্রোন এমন ক্ষমতা শুধুয এ নজরদারী চালাবে সেটা কিন্তু নয়, এই ড্রোন ২৬ হাজার ফুট উচ্চতায় পৌছে দেবে অ-স্ত্রও।আর এই পরীক্ষামূলক উড়ান সফল হয়েছে কর্ণাটকের চিত্রদূর্গে।

এই ড্রোন তৈরী করেছিল ডিআরডিও প্রথমেই, কিন্তু প্রথম পরীক্ষামূলক উড়ান কিছুতেই ভালো ছিল না। কারণ প্রথম উড়ানে ভেঙ্গে পরে এই ড্রোন। কিন্তু এবারের উড়ান একেবারেই সফল। টানা ৮ ঘন্টা জুড়ে এই ড্রোন ১৬ হাজার ফুট উচ্চতায় উড়েছে, যার পরেই এর নাম পরে গেছে দ্য ওয়ারিওর। এই যে রুস্তম-২ এটি কিন্তু মিডিয়াম অল্টিটিউট আন ম্যান্ড এরিয়াল ভেহিকল। লাদাখের এখন উত্তপ্ত পরিস্থিতিতে ভারতের হয়ে তুরুপের তাস হিসেবে কাজ করবে এই ড্রোন এমনটাই জানিয়েছে বিশেষজ্ঞরা।

এই ড্রোনের মধ্যে আছে-
টানা ১৮ ঘণ্টা ওড়ার ক্ষমতা।
সাড়ে তিনশো কেজি ওজন বইতে সক্ষম।
উড়ান এবং অবতরণের প্রক্রিয়া স্বয়ংক্রিয়।
দুই ইঞ্জিনের চালকহীন ড্রোন যা নজরদারি তো বটেই যু-দ্ধা-স্ত্রও বইতে পারে।
২৬ হাজার ফুট পর্যন্ত উচ্চতায় উড়তে পারে রুস্তম ২।

ড্রোনে রয়েছে ডিজিটাল ফ্লাইট কন্ট্রোল এবং নেভিগেশন সিস্টেম।
সিন্থেটিক অ্যাপারচার রেডার, ইলেকট্রনিক্স ইনটেলিজেন্স সিস্টেম এবং সিচুয়েশনাল অ্যাওয়ারনেস সিস্টেম রয়েছে।
ডিজিটাল কমিউনিকেশন সিস্টেম এর অন্যতম বৈশিষ্ট্য।
প্রায় ২৫০ কিলোমিটার দূর থেকে শত্রুঘাঁটিতে নজর রাখতে পারে।

Reply