বাড়ির বা অফিসের ব্রহ্মস্থানটি সঠিক নিয়ম অনুসারে রেখেছেন তো? না হলেই বিপদ

আমরা সকলেই জানি, বাড়ির হোক বা অফিস— যে কোনও জায়গাতেই ব্রহ্মস্থানটি হল খুবই গুরুত্বপূর্ণ। শাস্ত্রমতে, বাড়ির চারটে দিকের মধ্যে বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে ব্রহ্মস্থানের। তাই বাড়ি তৈরির সময় বিশেষ ভাবে নজর দিতে হয় ব্রহ্মস্থানের উপর। সেই স্থান যেন কোনও ভাবে ক্ষত না হয়। ব্রহ্মস্থান অক্ষত রেখেই বাড়ি নির্মাণ করতে হয়। বাড়ির যেমন ব্রহ্মস্থান সঠিক নিয়মে রাখতে হয়, ঠিক তেমন ঘরের ব্রহ্মস্থানও সঠিক নিয়ম মেনেই রাখতে হয়। যদি ব্রহ্মস্থান কোনও ভাবে ক্ষত হয়, তা হলে জীবনে নানা সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে।

দেখে নেওয়া যাক, ব্রহ্মস্থানে কী কী করতে নেই—

• বাস্তুতে, গৃহে, শোওয়ার ঘরে, কলকারখানায় বা যে কোনও স্থানে ব্রহ্মস্থান সব সময় খালি রাখতে হবে।

• এই স্থানে কোনও গর্ত, থাম, চেম্বার, পাতকুয়ো, আবর্জনা প্রভৃতি রাখা যাবে না। যে কোনও ব্রহ্মস্থান সব সময় পরিষ্কার রাখা উচিত।

• ব্রহ্মস্থানে ছোট ফুলের গাছ রাখা যেতে পারে।

• ব্রহ্মস্থানে কোনও জুতো, নোংরা বস্তু, এঁটো ফেলা বা রাখা উচিত নয়।

• এই স্থানে কোনও শুভ অনুষ্ঠান করা যেতে পারে।

• কলকারখানার ব্রহ্মস্থানটিতে কোনও ভারী জিনিসপত্র রাখা যাবে না।

• ফ্ল্যাটবাড়ি বা ছোট গৃহে যেখানে ব্রহ্মস্থান খালি রাখার কোনও জায়গা নেই, সেই জায়গাটিতে বা ঘরটিকে লিভিং রুম করা যায়।

• অফিস ঘরের ব্রহ্মস্থানটিতে বিগ্রহ রাখা যেতে পারে।

• কলকারখানার ব্রহ্মস্থানটিতে মন্দির করা যেতে পারে। ঠাকুরের মুখ যেন পুর্বদিকে থাকে।

• অফিসের ব্রহ্মস্থানটিতে মিটিং বা কনফারেন্স রুম করা যায়।

• ব্রহ্মস্থানে কোনও চেয়ার, টেবিল, সোফা না রাখাই উচিত।

Reply