মোদীর আমলেই ভারতীয়দের থেকে ধনী হবেন বাংলাদেশিরা, অর্থনীতি নিয়ে বিজেপিকে বিঁধলেন রাহুল

ভারতীয় অর্থনীতি নিয়ে চাপ বাড়লো কেন্দ্রীয় সরকারের। লকডাউনের জেরে কোটি কোটি মানুষ কর্মসংস্থান হারিয়ে ফেলেছেন। সূত্রের খবর,ইন্টারন্যাশনাল মনিটরি ফান্ড বা আইএমএফ-র পূর্বাভাস, আগামী দিনে ভারতে মাথাপিছু জিডিপি বাংলাদেশের চেয়েও কম হতে পারে।

যদিও আগামী বছর ভারতীয় অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াতে পারবে বলে জানা গেছে। এই পরিস্থিতির জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে দুষলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী।

আইএমএফ-এর অনুমান, চলতি বছরে ভারতের জিডিপি ১০.৩ শতাংশ সংকুচিত হবে! তবে, আগামী বছর ঘুরে দাঁড়াবে ভারতীয় অর্থনীতি। আর্থিক বৃদ্ধির হার ৮.৮ শতাংশ হতে পারে। অন্যদিকে এই বছর মাথা পিছু জিডিপি ভারতের চেয়ে বেশি হবে প্রতিবেশী বাংলাদেশের। এই তথ্য আসার পরেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব বিরোধীরা।

প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী বিজেপির নীতিকে দোষ দিয়ে টুইট করে লেখেন,”যে ছয় বছর ধরে যে ঘৃণা মিশ্রিত সাংস্কৃৃতিক জাতীয়তাবাদের রাজনীতি চালাচ্ছে বিজেপির, তারই দারুন একটি কৃতিত্ব এই ফলাফল।”

উদ্বেগ বাড়িয়ে ভারতীয় অর্থনীতি ১০.৩ শতাংশ হারে সঙ্কুচিত হতে পারে বলে পূর্বাভাস পাওয়া গেছে। ব্রাজিলের অর্থনীতি ৫.৮ শতাংশ হারে, রাশিয়ার অর্থনীতি ৪.১ শতাংশ হারে এবং দক্ষিণ আফ্রিকার অর্থনীতি ৮ শতাংশ হারে সঙ্কুচিত হতে পারে বলে সূত্রের খবর। ব্যতিক্রমী ভাবে চীনের অর্থনীতি ১.৯ শতাংশ হারে বাড়তে পারে।

আইএমএফের হিসেব বলছে,ভারতের মাথা পিছু জিডিপি ১৭৮৮ ডলার করে কমবে। যেখানে বাংলাদেশের মাথা পিছু জিডিপি হবে ১৮৮৮ ডলার। বাংলাদেশীরা ভারতীয়দের থেকে অর্থনৈতিক ভাবে উন্নত হবেন।

আগামী বছরই ভারতের অর্থনীতি ৮.৮ শতাংশ হারে বৃদ্ধি হবে। এমনকি দ্রুততম হাতে অর্থনীতি বৃদ্ধির সম্মান পাবে ভারত। আইএমএফ জানিয়েছে যে,বিশ্ব অর্থনীতি এবছর ৪.৪ শতাংশ হারে সংকুচিত হবে ও আগামী বছর ৫.২ শতাংশ হারে বাড়বে। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক থেকে জানানো হয়েছে যে,চলতি অর্থবর্ষে মোটের ওপর নয় শতাংশের ওপর সংকুচিত হবে জিডিপি।

Reply