৭৮ বছরের বৃদ্ধ বিয়ে করছেন ১৭ বছরের যুবতীর সঙ্গে, উত্তাল নেটপাড়া

কথাতেই আছে বিয়ে করার আর প্রেমের কোন বয়স নেই। মানুষকে কোন বয়সেই কারো প্রেমে পড়তে পারে এবং সেই মানুষকে ইছা থাকলে নিজের জীবনসঙ্গী করতে পারে।

কিছুদিন কিছুদিন আগেই ইন্দোনেশিয়ায় এরকমই এক ঘটনা ঘটে গেল। সেই ঘটনা সমাজকে এক নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপন করল। এক বাহাওর বছর বয়েসের বৃদ্ধের সাথে এক সাতেরো বছরের যুবতীর বিবাহ হয়েছিল কিছুদিন আগেই।

বৃদ্ধের নাম আবাহ সারনা এবং যুবতীর নাম ননি নভিতা তারা একে অপরকে ভালোবেসে বিবাহ করেছিলেন। বিবাহের আগে তাদের একটি গভীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। তারপরেই তারা ঠিক করলেন তারা বিবাহসূত্রে আবদ্ধ হবে।

সেই অনুযায়ী তারা দুজনেই দুজনের কাছে বিবাহের প্রস্তাব দেয় এবং তারা বিবাহসূত্রে আবদ্ধ হয়। বয়সের কারণে তাদের পরিবার থেকে কিছুটা আপত্তি ছিল। কিন্তু দুজন দুজনকে এতটাই ভালোবাসতো পরে তারা সবাই মেনে নিয়েছিল তাদের সম্পর্ক।

তারপরে দুই পরিবারের সম্মতিতে দুজনের বিবাহ সম্পন্ন হয় এবং বিবাহের পর তারা দুজনেই সুখে সংসার করছিলেন। তাদের বৈবাহিক সম্পর্কের মধ্যে ভালোবাসা কোন দিকেই কম ছিলনা।

একে অপরের হাত ধরে দুজন দুজনকে ভালোবেসে সংসার করছিলেন দুজনেই। কিন্তু এই সুখের উপর কারো নজর লেগে যায়। বিয়ের বাইস দিনের মাথায় আবাহ সারনা ননিকে ডিভোর্স চিঠি পাঠান।

ডিভোর্স চিঠি মাএ ননি নিজেকে সামলাতে পারেননা, সে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে। পরিবারের তরফ থেকে জানা গিয়েছে, ননি যেদিন ডিভোর্স চিঠি পেয়েছিলেন সেইদিন কোনো খাওয়া-দাওয়া করেনি।

পরিবারের লোকেরাও হতবাক হয়ে গেছিল এত ভালো সম্পর্ক ভেঙে গেল। তবে পাড়া-প্রতিবেশীদের থেকে শোনা যাচ্ছে যে, ননি বিয়ের আগে অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন এবং তার স্বামী সেই কথা জানতেন না। যখনই একথা জানতে পারে তার স্বামী তাকে ডিভোর্স চিঠি পাঠায়।

Reply