বড় উদ্যোগ রাজ্যের, বাংলাবাসীর জন্য ভেলোরের সিএমসি এবং দিল্লি এইমসে বিনামূল্যে চিকিৎসা

পশ্চিমবঙ্গবাসীর জন্য সুখবর। ভেলোরের ক্রিশ্চিয়ান মেডিক্যাল কলেজ তথা সিএমসই এবং দিল্লির এইমস হাসপাতাল সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গ সরকারের স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের আওতাভুক্ত হয়েছে। যার ফলে এবার থেকে এই দুই হাসপাতালে বিনামূল্যে স্বাস্থ্য পরিষেবা পাবেন বাংলার মানুষ। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফ থেকে রাজ্যবাসীর স্বাস্থ্যসুরক্ষা খাতে এটি সত্যি এক বড় উদ্যোগ।

দিল্লির এইমস এবং ভেলোর বরাবরই চিকিৎসা ব্যবস্থার দিক দিয়ে দেশের মধ্যে প্রথম স্থানে রয়েছে। বিশেষত, স্বাস্থ্য পরিষেবার জন্য পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দারা ভেলোরের উপরেই বেশি নির্ভর করেন। গত শনিবার, নবান্নের স্বাস্থ্য দপ্তরের তরফ থেকে এক আধিকারিক রাজ্য সরকারের এই নতুন উদ্যোগের কথা জানালেন। তিনি আরো জানিয়েছেন, রাজিব যে সকল বাসিন্দাদের “স্বাস্থ্য সাথী” প্রকল্পের সুবিধা পান তারাই একমাত্র ভেলোর এবং দিল্লির এই দুটি হাসপাতালে বিনামূল্যে চিকিৎসার সুবিধা পাবেন।

রাজ্য সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, প্রতিবছর প্রায় হাজার হাজার মানুষ পশ্চিমবঙ্গ থেকে ভেলোরে চিকিৎসার প্রয়োজনে যান। কিন্তু ভেলোরে চিকিৎসা করানো অত্যন্ত ব্যয়সাধ্য। ফলে সাধারণ মানুষের পক্ষে বেশিদিন সেখানে চিকিৎসা পরিষেবা নেওয়াটা সম্ভব হয় না। সাধারণ মানুষের সেই সমস্যার কথা বিবেচনা করেই এই হাসপাতালকে স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের আওতায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। যার ফলে সাধারণ মানুষ চিকিৎসা খরচের হাত থেকে বাঁচবেন।

উল্লেখ্য “স্বাস্থ্য সাথী” প্রকল্পের আওতাভুক্ত রাজ্যবাসী এতদিন রাজ্যের মধ্যেই যে কোনো হাসপাতালে বিনামূল্যে চিকিৎসা করানোর সুযোগ পেতেন। কিন্তু এবার দিল্লি এবং ভেলোরে গিয়েও চিকিৎসা করাতে পারবেন তারা। তবে, একমাত্র যাদের “স্বাস্থ্য সাথী” কার্ড রয়েছে তারাই একমাত্র এই পরিষেবা নিতে পারবেন। স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত না হলে বিনামূল্যে চিকিৎসা করানো যাবে না।

Reply