ত্রিপুরার শ’ হী’ দ জওয়ানকে শ্রদ্ধা, ক্ষ’ তি’ পূরণের ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের

অবশেষে ঘরে ফিরল কাশ্মীর সীমান্ত অঞ্চলে নি’ হ’ ত’  বাঙালি জওয়ান সুদীপ সরকারের দেহ। গত কাল তাঁর দে’ হ নিয়ে আসা হয় ত্রিপুরার আগরতলায় তাঁর বাড়িতে। তিন দিন আগে কাশ্মীর সীমান্তে সেনা-জ’ ঙ্গি সং’ ঘ’ র্ষে’  প্রাণ হারান তিনি। তাঁর অকাল মৃ’ ত্যু’ তে শো’ ক প্রকাশ করেছেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব সহ রাজনৈতিক নেতারা।

গতকাল দুপুর ২টোয় নি’ হ’ ত সুদীপ সরকারের দেহ নিয়ে আসা হয় আগরতলায়। সেখানে তাঁর প্রতি শ্র’ দ্ধা জ্ঞাপন করে ত্রিপুরার মানুষ। ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী এবং বিজেপি নেতা বিপ্লব কুমার দেব ছাড়াও রাজ্যের অন্যান্য রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ সেখানে উপস্থিত থেকে শ্র’ দ্ধা জানান শ’ হী’ দ সুদীপ সরকারকে। শুধু তাই নয়, এদিন সুদীপ সরকারের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে পাঁচ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথাও ঘোষণা করেন বিপ্লব দেব। ত্রিপুরার চিফ মিনিস্টার রিলিফ ফান্ড থেকে ওই টাকা দেওয়া হবে বলে জানা গেছে।

নি’ হ’ ত সুদীপ সরকার বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্সের অধীনে কর্মরত ছিলেন। কিছুদিন আগেই কিছুদিন আগেই পঞ্জাব থেকে বদলি হয়ে তিনি গিয়েছিলেন শ্রীনগরে। কিন্তু সেখান থেকে আর ঘরে ফেরা হয় নি তাঁর। আজ সকালে সেখান থেকেই ত্রিপুরায় ফোন করে বিএসএফের আধিকারিকেরা জানান, গত কাল রাতে জ’ ঙ্গি’ দে’ র সঙ্গে সং’ ঘ’ র্ষে নি’ হ’ ত হয়েছেন সুদীপ। এর আগে শ্রীনগরে বিএসএফের তরফ থেকে পুষ্পস্তবক এবং বিজয়মাল্যের সঙ্গে ত্রিপুরার বাঙালি শ’ হী’ দ সুদীপ সরকারের প্রতি শ্র’ দ্ধা জ্ঞাপন করা হয়।

ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব এর আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় শোক প্রকাশ করেছিলেন সুদীপ সরকারের মৃ’ ত্যু’ তে। টুইট করে তিনি বলেছিলেন, ‘‘বীর যো’ দ্ধা সুদীপ সরকার আমাদের রাজ্য ও দেশের গর্ব। স’ ন্ত্রা’ স’ বা’ দী’ দের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে তিনি শ; হি’ দ হয়েছেন। তাঁর আ’; ত্মা’ র চিরশান্তি কামনা করছি। বীর সন্তানের মা ও তাঁর পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি।’’

প্রসঙ্গত, গত ৮ নভেম্বর রাত একটা নাগাদ কাশ্মীরের কুপওয়ারা জেলার মাছিল সেক্টরে টহলদারি দিচ্ছিলেন সুদীপ সরকার। সেই সময়েই নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে জ’ ঙ্গি’ দের অনুপ্রবেশের চেষ্টা লক্ষ্য করেছিল টহলদারি দলটি। বিএসএফের অন্য জওয়ানদের সঙ্গে অনুপ্রবেশ আটকানোর চেষ্টা করেছিলেন সুদীপও। কিন্তু জ’ ঙ্গি’ রা তাঁদের দিকে নিশানা করে গু’ লি ছুঁড়তে শুরু করে। গুলি লেগে গুরুতর আ’ হ’ ত হন সুদীপ।পরে রাতেই মৃ’ ত্যু হয় তাঁর। রাতে প্রায় তিন ঘণ্টা ধরে লড়াই চলেছে খবর বিএসএফ সূত্রে।

Reply