ট্রেনযাত্রীর চাপ সামলাতে পথে নামবে চার হাজার বাস…

আজ, বুধবার থেকে চালু হচ্ছে লোকাল ট্রেন। দীর্ঘদিন কলকাতা থেকে বিচ্ছিন্ন থাকা অজস্র মানুষ আজ থেকে ফের শহরে যাতায়াত শুরু করবেন। রয়েছেন শহরের নিত্যযাত্রীরাও। তাই লোকাল ট্রেন চালুর প্রথম দিনে শহরের রাস্তায় নেমে মানুষকে সমস্যায় পড়তে হবে কি না, তা নিয়ে চলছিল জল্পনা।

রাজ্য পরিবহণ দফতরের আশা, শুরুর দিনে রাস্তায় চার হাজারের কাছাকাছি বাস নামানো যাবে। এ নিয়ে মঙ্গলবার বাসমালিক সংগঠনগুলির সঙ্গে বৈঠকও করেছেন পরিবহণ আধিকারিকেরা। রাস্তায় বেসরকারি বাসের সংখ্যা বাড়ানোর পাশাপাশি প্রয়োজন অনুযায়ী সরকারি বাসের পরিষেবাতেও একাধিক বদল ঘটছে।

পরিবহণ দফতর সূত্রের খবর, রাতের ও খুব ভোরের ট্রেনযাত্রীদের কথা ভেবে এ দিন থেকেই আবার নৈশ বাস পরিষেবা শুরু করছে পরিবহণ নিগম। পুজোর সময়ে দিন তিনেকের জন্য চালু হলেও লকডাউনের পর থেকে প্রায় সাত মাস বন্ধ ছিল ওই পরিষেবা। হাওড়া, শিয়ালদহ, বালিগঞ্জ, গড়িয়া, টালিগঞ্জ-সহ বিভিন্ন রেল স্টেশন ছুঁয়ে চলা রুটগুলিও চালু হচ্ছে। বাসের সংখ্যাও ধীরে ধীরে বাড়িয়ে স্বাভাবিক সময়ের অবস্থায় ফেরানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে বলে পরিবহণ দফতরের দাবি।

লকডাউনের সময়ে ট্রেন এবং মেট্রো না চলায় ডানলপ থেকে বালিগঞ্জের মধ্যে চলা এস ৯এ রুটটি গড়িয়া পর্যন্ত বাড়ানো হয়। আজ থেকে ট্রেন চালু হওয়ার পরে ওই সব বাসের বেশির ভাগই ফের বালিগঞ্জ থেকে ডানলপের মধ্যেই চলবে। বাসের সংখ্যা বাড়ছে হাওড়া শিয়ালদহ স্টেশন সংযোগকারী রুটগুলোতেও। উত্তর এবং দক্ষিণবঙ্গ পরিবহণের যে সব বাস কলকাতায় চলছে তা ধাপে ধাপে পুরনো জায়গায় ফিরিয়ে নেওয়া হবে বলেই খবর।

এ দিন বেলতলায় পরিবহণ দফতরের অফিসে এক বৈঠকে বাসমালিক সংগঠনের প্রতিনিধিদের বাসের সংখ্যা বাড়াতে বলা হয়েছে বলে খবর। অভিযোগ, যাত্রীর অভাবে রুটের সব বাস রাস্তায় না নামিয়ে এক এক দিন কিছু কিছু করে বাস নামাচ্ছিলেন মালিকেরা। হাওড়া, শিয়ালদহ-সহ একাধিক রুটের বহু বাস অস্থায়ী (টেম্পোরারি) পারমিট নিয়ে নিজস্ব রুট ছেড়ে অন্য রুটে চলছিল। ওই সব বাসকে এ দিন পুরনো রুটে ফেরাতেও মালিকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। হাওড়া, শিয়ালদহ-সহ দক্ষিণ শহরতলির বিভিন্ন স্টেশন ছুঁয়ে চলাচলকারী বেসরকারি বাসের পরিষেবা স্বাভাবিক করারও নির্দেশ দিয়েছে পরিবহণ দফতর। ওয়েস্ট বেঙ্গল বাস মিনিবাস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সম্পাদক প্রদীপনারায়ণ বসু বলেন, ‘‘লোকাল ট্রেন চললে বেসরকারি বাসেও যাত্রী বাড়বে। ফলে আগের তুলনায় অনেক বেশি বাস রাস্তায় নামবে বলে আশা করছি।’’

তবে সিটি সাবার্বান বাস সার্ভিসের সাধারণ সম্পাদক টিটু সাহা বলেন, ‘‘কর ছাড়ের প্রশ্নে সরকার কিছুটা সুরাহা দিলে আরও কিছু বাস রাস্তায় নামতে পারবে।’’ বাস মিনিবাস সমন্বয় সমিতির সাধারণ সম্পাদক রাহুল চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘‘সুষ্ঠু ভাবে বাস চালানোর জন্য পুলিশের সাহায্য প্রয়োজন।’’

Reply