বিহারের পথেই দিদির হাত থেকে মুক্তি বাংলার, মন্তব্য লকেট চট্টোপাধ্যায়ের

বিহারের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে দেশ জুড়ে এখন সরগরম রাজনৈতিক মহল। এই ফলাফল সামনে আসার পরেই নানা মহলে শুরু হয়ে গেছে তরজা, এ সম্পর্কে মন্তব্য করেছেন একাধিক রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ। সেই ধারা বজায় রেখেই বিহারের ফলাফল নিয়ে এবার মুখ খুললেন লকেট চট্টোপাধ্যায়ও। কয়েক মাস পর পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনেও যে বিহারের মতোই ফল দেখা যাবে, এদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই কথাই জানিয়েছেন রাজ্যের বিজেপি নেত্রী।

বুধবার দুপুরে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিহার নির্বাচনের ফল নিয়ে নিজের মন্তব্য প্রকাশ করেছেন বিজেপি নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়। নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডেলে হুগলী লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ এদিন লিখেছেন, “বিহারের দেখানো পথেই দিদির শাসনের হাত থেকে মুক্ত হবে এবার পশ্চিমবঙ্গ।” সেই সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তাঁর ভাইপো তৃণমূল কংগ্রেস নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে লকেটের বক্তব্য,”পায়ের তলার মাটি সরছে দেখে ভয়ার্ত পিসি ভাইপো আজ দিশেহারা।”

শুধু তাই নয়, বিহার নির্বাচনে এনডিএ জোটের জয়ের পরেই রাজ্য বিজেপির তরফে চালু হয়েছে নতুন স্লোগান, “এবার বাংলা পারলে সামলা”। লকেট চট্টোপাধ্যায় তাঁর ট্যুইটের সঙ্গে এই স্লোগানও জুড়ে দিয়েছেন। সব মিলিয়ে বিহারের ফলাফল দেখে যে খুশির আমেজ রাজ্য বিজেপির অন্দরমহলে তা বলাই বাহুল্য।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বিহারে বিজেপির সাফল্যের পর উচ্ছাস প্রকাশ করে মন্তব্য করেছিলেন রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষও। উত্তর পূর্বের পর এবার সমগ্র পূর্ব ভারতেই একচেটিয়া আধিপত্য বিস্তারের স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছে গেরুয়া শিবির। ২০২১ সালে পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফলও যে বিহারের পথেই এগোবে, সে বিষয়ে আশাবাদী তাঁরা।

গতকাল ১০ নভেম্বর ছিল বিহার বিধানসভা নির্বাচনের ভোট গণনা। গণনাকে কেন্দ্র করে সকাল থেকেই উন্মাদনা তুঙ্গে ছিল বিহার তথা সমগ্র দেশের মানুষের। আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদব এবং বিহারের ভূতপূর্ব মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারের মধ্যে কাল সারাদিন ধরে চলেছিল হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। তবে শেষ হাসি হাসেন নীতিশই। এনডিএ জোটের সাফল্যে উৎসবের আমেজ গেরুয়া শিবিরে।

Reply