ডোকলাম মালভূমি থেকে একটু দূরে সামরিক অ’স্ত্র মজুতের বাঙ্কার তৈরি করে ফেলেছে চীন!‌

প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার কাছে ডোকলাম মালভূমি অঞ্চলে ভারত ও চীনের মধ্যে ফের উত্তেজনা বাড়ছে। ২০১৭ সালের ওই সঙ্ঘাতস্থল থেকে মাত্র ৯ কিলোমিটার দূরে ভুটানের জমিতে চীনের বসতি স্থাপন ঘিরে ইতিমধ্যেই পরিস্থিতি খানিক উত্তপ্ত। ওই ডোকলাম মালভূমির পূর্বে শিনচে লা পাস থেকে মাত্র আড়াই কিলোমিটার দূরে সামরিক অস্ত্রশস্ত্র মজুতের বাঙ্কারও নাকি তৈরি করে ফেলেছে চীন!‌ স্যাটেলাইট চিত্র খতিয়ে দেখে জানাচ্ছে সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

সামরিক পর্যবেক্ষকদের দাবি, এলাকায় সামরিক প্রস্তুতি বাড়াতেই ডোকা লা–র সঙ্ঘাতস্থল থেকে ৭ কিলোমিটার দূরে বাঙ্কার গড়েছে চীন। ডোকলামে সঙ্কট তৈরি হলে দ্রুত সেনা সমাবেশ বাড়িয়ে যাতে ‘‌স্ট্র‌্যাটেজিক’ অবস্থান নিতে পারে ‌গণফৌজ, তাই এই তৎপরতা, বলছেন সামরিক পর্যবেক্ষক এবং স্যাটেলাইট চিত্রের বিশেষজ্ঞ সিম ট্যাক।

আগের স্যাটেলাইট ছবি খতিয়ে দেখে জানা গেছে, গত বছরের ডিসেম্বরেও এই বাঙ্কার তৈরির কাজ শুরু হয়নি। ২৮ অক্টোবরের ছবিতে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে, নির্মাণ কাজ এখনও শেষ হয়নি। মূলত গোলাবারুদ, গ্রেনেড জাতীয় অস্ত্র মজুত করতেই এই বাঙ্কার তৈরি করা হচ্ছে, বলছেন উত্তরের প্রাক্তন সেনা আধিকারিক লেফটেন্যান্ট জেনারেল এইচএস পানাগ।

মাক্সার টেকনোলজিস–এর ‘‌হাই–রেজিলিউশন’ ছবিতে দেখা যাচ্ছে, চীনা বাঙ্কার ও শিনচে লা পাস সংযোগকারী রাস্তা গিয়ে জুড়েছে চীনের তৈরি রাস্তায়। সব ঋতুতেই যাতে যাতায়াত করা যায়, তা মাথায় রেখে সুড়ঙ্গ সহ রাস্তা তৈরি করছে চীন। যা কিনা ডোকলাম মালভূমি থেকে ৫ কিলোমিটার দূর পর্যন্ত ছড়িয়ে রয়েছে। পাশাপাশি গত তিন বছর ধরে ভারত সীমান্তের কাছে বায়ু সেনার ঘাঁটি এবং হেলিপোর্ট বাড়িয়ে দিল্লিকে চাপে রাখাই এখন মূল উদ্দেশ্য চীনের, বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

Reply