“শাড়ি পরা হিটলারি শাসন বরদাস্ত করা হবে না”, নাম না করে মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ সায়ন্তনের

এবার সায়ন্তন বসু নিশানায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অবশেষে মুখ্যমন্ত্রী কে “হিটলার” বলে কটাক্ষ করলেন তিনি। এদিন শান্তনুর মুখে আত্মবিশ্বাসের শোনা যায়। আত্মবিশ্বাসের সাথে তিনি বলেন, একুশের নির্বাচনের পর কালীঘাটে পড়ে থাকবেন মাত্র দুজন!

মঙ্গলবার মালদহে সাংগঠনিক বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু। সকালের দিকে পুরাতন মালদহের মঙ্গলবাড়ি এলাকায় চায় পে চর্চা তে যোগ দেন তিনি।

সেখানে গিয়ে শাসকদলের বিরুদ্ধে একেরপর এক ক্ষোভ উগরে দেন সায়ন্তন। এদিন সায়ন্তন বসুকে সুজাপুর বিস্ফোরণ নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন,ওই বি’স্ফো’রণ আরও বেশিসংখ্যক মৃ*ত্যু হয়েছে। কিন্তু সরকার সেটা গোপন করছে।

এমনকি দেহ লুকিয়ে ফেলা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। বাংলার বিভিন্ন প্রান্তে জ’ঙ্গি গ্রেপ্তারের ঘটনা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী কে কটাক্ষ করে সায়ন্তন বলেন,”পশ্চিমবঙ্গকে পশ্চিম বাংলাদেশ তৈরি করার চেষ্টা করছে রাজ্য সরকার।”

বিক্ষুব্ধ তৃণমূল বিধায়ক মিহির গোস্বামীর সঙ্গে দলের একাংশের সাক্ষাৎ নিয়ে মন্তব্য করেছেন সায়ন্তন বসু। তিনি বলেন,মেহেরগড় স্বামীকে বোঝাতে নয় বরং তার চিন্তাধারা জানার জন্যই তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করা হচ্ছে।

এরপর তিনি বলেন,” প্রাইভেট লিমিটেডের শাড়ি পড়া হিটলারি শাসন কেউ বরদাস্ত করবে না। একুশের পর কালিঘাটে মাত্র ২ জন থাকবেন। ডুবন্ত জাহাজ ছেড়ে পালাবেন বাকি সকলে।”

সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে সায়ন্তন বসু তৃণমূল বিরোধীদের উদ্দেশ্যে বিজেপি তে আসার জন্য আহ্বান জানান। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এবং শাসক দলকে নিয়ে সায়ন্তন বসু এই ধরনের মন্তব্য ভাল চোখে দেখেনি ঘাসফুল শিবির। সৌগত বসু এই নিয়ে বলেন,”ভুইফোঁড় নেতাদের জবাব দেবে মানুষ।”

Reply