“তৃণমূল ত্যাগী, সারদা – নারদা থেকে বাঁচতে বিজেপির পায়ে পড়েছে সিপিএম”, মন্তব্য মমতার

উৎসবের মরশুম শেষ। এবার রাজ্যজুড়ে বিধানসভা নির্বাচনের তোড়জোড় শুরু হয়ে গিয়েছে। ক্রমেই বাড়ছে রাজনৈতিক উত্তাপ। শাসক দল থেকে শুরু করে বিরোধী দলগুলো বিভিন্ন ভাবে একে অপরের বিরুদ্ধে ব্যক্তিগত ভাবে হোক বা রাজনৈতিকভাবে আ’ক্র’মণ করে চলেছে।

এবার প্রায় আট মাস পর রাজনৈতিক জনসভা করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সেই জনসভা থেকেই কংগ্রেস-বিজেপি এবং সিপিআইএমকে তুলোধোনা করলেন তিনি। দলীয় কর্মীদের উদ্দেশ্যে মমতার বার্তা, তৃণমূল করতে গেলে ত্যাগী হতে হবে।

এদিন বাঁকুড়ার জনসভায় উপস্থিত হয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন,”রাজনীতিতে তিন ধরণের লোক থাকে। একটা লোভী, একটা ভোগী, একটা ত্যাগী।

সিপিএম আজকে সব থেকে বড় লোভী, বিজেপি হচ্ছে ভোগী আর তৃণমূল কংগ্রেস যদি করতে হয় আপনাদের হতে হবে ত্যাগী। ওদের পাল্লায় পড়বেন না”।

বাঁকুড়ায় অনুষ্ঠিত তৃণমূল কংগ্রেসের রাজনৈতিক জনসভা থেকে সিপিআইএমকে ব্যক্তিগতভাবে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি তিনি। এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন,”সিপিএমকে দেখে লজ্জা হয়।

এরা বিজেপির পায়ে পড়েছে নিজেদের চু”রি বাঁচবার জন্য। আরে আমরা তো তোমাদের কিছু করিনি। স্লোগান দিয়েছিলেন, বদলা নয়, বদল চাই। চুরিও করেছো ডাকাতিও করেছো আরাম করে খেয়েও যাচ্ছো। এখন আবার বিজেপিকে ধরেছো। যাতে সারদা – নারদা তোমার না হয়। তুমিই কিন্তু করেছো”।

গত লোকসভা নির্বাচনে বাঁকুড়ায় তৃণমূলের থেকে দুটি আসন ছিনিয়ে নিয়েছে বিজেপি। জেলায় বিধানসভায় তৃণমূলের ফলাফল শোচনীয়। তাই এই সময় বিধানসভা নির্বাচনের পূর্বে রাজনৈতিক কর্মসূচি বাঁকুড়া জেলা থেকে শুরু করলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Reply