যে তৃণমূল নেতারা টাকা নিয়েছে তাদের নাম লাল ডায়েরিতে লিখে রাখুন

ফের বি’ স্ফো’ র’ক বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু। এবার ‘বর্তমান পশ্চিমবঙ্গ সরকার মাইনোরিটি সরকার হওয়ার পথে। সংখ্যালঘু সরকার হওয়ার পথে।সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারানোর পথে। ডিসেম্বর মাসেই এই সরকার সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারাবে।’ বলে প্রকাশ্য জনসভায় এমনই মন্তব্য করলেন তিনি।

এদিন মালদহের বৈষ্ণবনগরের এক জনসভায় এসে বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু আরও বলেন, “মহামহিম রাজ্যপালের উচিত মুখ্যমন্ত্রীকে নির্দেশ দেওয়া আস্থা ভোটে তাদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ করার জন্য। তা করতে পারবেন বলে আমাদের মনে হয় না। স্বাভাবিক ভাবেই সরকার যদি মাইনরিটি হয়ে যায় কেয়ারটেকার সরকারের ব্যবস্থা নেই সংবিধানে। রাজ্যপাল শাসন করতে হবে বা রাষ্ট্রপতি শাসন হবে। কিন্তু এটা আমাদের হাতে নেই। তৃণমূল কংগ্রেস যদি নিজেদের অন্তর্দ্বন্দ্বের কারণে ভেঙে যায় সরকার পড়ে যায় তার জন্য বিজেপি দায়ী থাকতে পারে না। দুর্ভাগ্যের হলেও সেদিকেই বর্তমান সরকার চলেছে বলে মনে হচ্ছে।”

তিনি এও বলেন, “আমাদের আবেদন করার বিষয় নেই। তার কারণ সংবিধানের নির্দিষ্ট ব্যবস্থা আছে রাজ্য সরকার যদি মাইনরিটি হয় সংখ্যাগরিষ্ঠতায় তাহলে রাষ্ট্রপতি শাসন হতেই হবে। অন্য কোনও অল্টারনেটিভ ব্যবস্থা এখানে নেই।”

এদিন তিনি আরও বলেন, “চাকরি দেওয়ার নাম করে যে যে তৃণমূল নেতারা টাকা নিয়েছে তাদের নাম লাল ডায়েরিতে লিখে রাখুন। যেদিন ক্ষমতায় আসবে তাদের পেট কেটে সেই টাকা বার করব। আপনাদের মধ্যে সেই টাকা ফিরিয়ে দেব।”

রবিবারের এই অনুষ্ঠানে তিনি ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলা বিজেপির কর্মী সমর্থকরা।

Reply