কপালে গেরুয়া টিপ, কাঁথির বাড়ি থেকে মেদিনীপুরের পথে শুভেন্দু

অমিত শাহের সভাতেই তাঁর বিজেপিতে যোগদান প্রায় নিশ্চিত। সেই উদ্দেশেই কাঁথির বাড়ি থেকে বেরিয়ে সড়কপথে মেদিনীপুরের উদ্দেশে রওনা দিলেন শুভেন্দু অধিকারী।

বেলা ঠিক সকাল ১১টা ৫০ মিনিট। কাঁথির শান্তিকুঞ্জের বাড়ি থেকে বেশ খোশমেজাজেই বেরিয়ে পড়লেন শুভেন্দু অধিকারী। কপালে গেরুয়া টিপ। পরনে পছন্দের সাদা পাজামা-পাঞ্জাবী। তার উপরে কালো হাফ জ্যাকেট। বাড়ির সদর দরজা থেকে বেরিয়েই সামনে দাঁড়িয়ে থাকা নিজের পুরনো কালো স্করপিও গাড়িতে চড়ে বসলেন শুভেন্দু। এখান থেকে তিনি সোজা মেদিনীপুর কলেজ মাঠে অমিত শাহের সভায় গিয়েই হাজির হবেন।

গত কয়েকদিন রাজনৈতিক টানাপোড়েনের জেরে শুভেন্দু নিজেকে একেবারেই গুটিয়ে রেখেছিলেন সংবাদমাধ্যমের কাছে। শনিবার অনেক দিন পর বাড়ি থেকে বেরিয়ে উপস্থিত সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিদের উদ্দেশ্যে তিনি হাত নেড়ে হাসি মুখে বেরিয়ে যান।

অন্য দিকে ইতিমধ্যেই মেদিনীপুরে পৌঁছে গিয়েছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী। তিনি স্থানীয় মন্দিরে দর্শনের পর এক কর্মীর বাড়িতে দুপুরের আহারের পর সোজা সভা মঞ্চে যাবেন। তবে শুভেন্দু সরাসরি অমিত শাহের সঙ্গে সভা মঞ্চেই মিলিত হবেন বলে জানা গিয়েছে।

তবে এদিন প্রত্যাশা মতোই শুভেন্দুর সঙ্গে তাঁর ভাই তমলুকের তৃণমূল সাংসদ দিব্যেন্দু বা কাঁথির সাংসদ বাবা শিশির অধিকারী অথবা তৃণমূল পরিচালিত কাঁথি পুরসভার চেয়ারম্যান ছোট ভাই সৌমেন্দু বের হননি। শুভেন্দুর সঙ্গী হননি জেলার কোনও তৃণমূল নেতাও। যদিও নন্দীগ্রাম-সহ জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে দাদার অনুগামীদের একটা বড় দলই এদিন সকাল থেকেই মেদিনীপুরের অভিমুখে রওনা দিয়েছেন। অনেকে সভাস্থলে পৌঁছেও গিয়েছেন।

Reply