ভাইপোর দাদাগিরি শেষ করতেই বাংলার মানুষ পরিবর্তন চাইছেন, আ’ক্রমন অমিতের

তৃণমূল থেকে শুভেন্দু যোগ দান করেছেন বিজেপিতে। আর যোগদানের দিনই শুভেন্দু তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে আ’ক্রমণ করে স্লোগান তোলেন— ‘তোলাবাজ ভাইপো হটাও’।

তারপর রবিবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বোলপুর চৌরাস্তায় বিশাল রোড শো শেষে ফের ‘ভাইপো’র বিরুদ্ধে আওয়াজ তুললেন আর তারপর দাবি করেন ‘বাংলার মানুষ পরিবর্তন চাইছেন’ তাই তারা বিজেপিকে আনবে।এদিন অমিত শাহ মমতাকে কটাক্ষ করতে ভোলেন নি।

রবিবার দিন বোল পুরে এক বিশাল রোড শো হয় যা দেখে হতভম্ব হয়েছে খোদ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও। ওই শো–তে মানুষের উৎসাহ দেখে অমিত শাহ স্বীকার করেন যে তিনি তাঁর জীবনে তিনি এমন রোড শো সত্যিই দেখেননি।

তিনি বলেন, ‘‌বিজেপি–র সর্বভারতীয় সভাপতি থাকাকালীন আমি বহু রোড শো নিজেও করেছি এবং দেখেওছি কিন্তু এমন রোড শো আমি জীবনেও দেখিনি।

এই রোড শো থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রতি বাংলার মানুষের ভালবাসা আর বিশ্বাস একেবারে পরিষ্কার বোঝা যায়। আর একইসঙ্গে মমতাদিদির প্রতি বাংলার মানুষের কতটা ক্ষোভ রয়েছে তারও প্রমাণ এই রোড শো।’‌

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম না করেও তাকেই এদিন কটাক্ষ করে অমিত শাহ বলেন, ‘‌বাংলার মানুষ তো পরিবর্তন চাইছেন। এই রাজনৈতিক হিংসাকে শেষ করার জন্য, এবং তোলাবাজি বন্ধ করার জন্য এই পরিবর্তনের পরিবর্তন করার লোক বুঝেছে।ভাইপোর দাদাগিরি শেষ করার জন্যই বাংলার মানুষ এবার পরিবর্তন চাইছেন ।’‌

এদিন অমিত শাহের পাশে দিলীপ ঘোষ, অনুপম হাজরারাও ছিলেন। দিন অমিত শাহ পরিষ্কার বলেন, ‘‌বাংলার মানুষ যে পরিবর্তনটা চাইছেন তা কোনও মুখ্যমন্ত্রী বা নেতাকে পরিবর্তন করার নয় কিন্তু, আর তৃণমূলকে সরিয়ে বিজেপি–কে ক্ষমতায় আনার জন্যও এই পরিবর্তন নয়। এই পরিবর্তন বাংলার বিকাশের জন্য হতে চলেছে ।

এদিন তৃণমূল কংগ্রেসকে উৎখাত করে দেওয়ার বার্তা ও দিয়েছেন অমিত শাহ। বাংলার মানুষকে পদ্মফুলে ভোট দেওয়ার আবেদন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘‌আমি কথা দিচ্ছি, আপনারা আমাদের ক্ষমতায় আনলে বাংলাকে উন্নয়নের পথে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবে বিজেপি।’‌ তিনি মানুষের আরও বলেন,, ‘‌কংগ্রেসকেও সুযোগ দিয়েছেন, বামেদের সুযোগ দিয়েছেন, তৃণমূলকেও সুযোগ দিন।’

Reply