“খালি ভাইপোকে মুখ্যমন্ত্রী করার ভাবনা আপনার”, মমতাকে কটাক্ষ অমিত শাহের

ভাইপোকে মুখ্যমন্ত্রী করতে চাইছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনটাই অভিযোগ অমিত শাহের।মেদিনীপুরের সভামঞ্চে উপস্থিত হয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন,”এটা মা-মাটি-মানুষের সরকার নয়।

তোলাবাজি, তোষণ ও ভাতিজাবাদের সরকার”। শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগদান করার পর প্রথম রাজনৈতিক সভায় বলেছিলেন “তোলাবাজ ভাইপো হঠাও”। অমিত শাহের কন্ঠেও একই সুর।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপির উপর তৃণমূলের ভাঙ্গানোর অভিযোগ চাপিয়েছিলেন। এই অভিযোগের পাল্টা জবাব দিলেন অমিত শাহ।

মেদিনীপুরের সভায় তিনি বলেন,”আপনার মূল দল ছিল তো কংগ্রেস। কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূল করেছেন। সেটা দলবদল ছিল না? ভাই শুভেন্দু আপনার সঙ্গ ছেড়ে মোদীজির পাশে এসেছেন। নির্বাচন আসতে আসতে আপনি একা থেকে যাবেন।”

অমিত শাহ আরও বলেন,” ভাবনাচিন্তা করে দলবদল করেন একটা লোক। মা-মাটি-মানুষের স্লোগান দিয়েছিলেন। মা-মাটি মানুষ স্লোগান আজ তোলাবাজি, তোষণ ও ভাতিজাবাদে পরিণত হয়েছে।

১০ কোটি বাঙালির ভবিষ্যত আপনি দেখতে পাচ্ছেন না! কোটি কোটি যুবকের ভবিষ্যত দেখতে পাচ্ছেন না! আপনার চোখে এখন শুধুই ভাইপো, কখন তাঁকে মুখ্যমন্ত্রী করবেন।”

বাংলা জুড়ে গত ১০ বছরে প্রচুর উন্নয়ন হয়েছে বলে দাবি জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীর কথাকে নস্যাৎ করে দিলেন অমিত শাহ। উল্টে তিনি মুখ্যমন্ত্রীর দিকে প্রশ্ন ছুড়ে দেন, বলেন,”আমি প্রশ্ন করতে চাই, বাংলার যুবকদের, কেন উন্নয়ন হচ্ছে না বাংলায়?

কেন কৃষকরা ৬ হাজার টাকা পাচ্ছেন না? দেশের ১০ কোটি কৃষকদের অ্যাকাউন্টে এখনও পর্যন্ত ঢুকেছে ৯৫ হাজার কোটি। এক টাকাও পাননি বাংলার চাষিরা। তালিকা পাঠাননি মমতাদিদি। গরিবদের জন্য ৫ লক্ষ টাকার স্বাস্থ্যবিমার সুবিধা দিচ্ছেন নরেন্দ্র মোদী। মমতা দিদি ক্ষমতায় থাকলে বাংলার মানুষ আয়ুষ্মান যোজনার ফায়দা পাবেন না।”

Reply