“কয়েকমাস পরেই গান গাইবে একটু জায়গা দাও মা মন্দিরে বসি”, ফিরহাদকে কটাক্ষ শমীক ভট্টাচার্যের

দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেছেন শুভেন্দু অধিকারী। এরপর কাঁথিতে বুধবার সভা করে তৃণমূল। সভামঞ্চে থেকে দাঁড়িয়ে ফিরহাদ হাকিম, সৌগত রায় বিজেপিকে আ’ক্র’মণ করে।

সাংবাদিক বৈঠকে তারই জবাব দিলো বিজেপি। পুর ও নগরায়ন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীকে খোঁটা দিয়ে বলেন,”শুভেন্দুর লজ্জা লাগা উচিত। কৃষকদের যারা হত্যা করেছে তাদের সঙ্গে গেলেন। অমিত শাহের পা ছুঁয়ে কী বললেন একটু জায়গা দাও?”

পৌরসভার মেয়রের মন্তব্যের কড়া জবাব দিয়েছে বিজেপি। এ প্রসঙ্গে শমীক ভট্টাচার্য বলেন,”আর কয়েকটা মাস যেতে দিন না। দেখবেন ফিরহাদ গান গাইছে একটু জায়গা দাও মা মন্দিরে বসি।”

কাঁথির সভা মঞ্চ থেকে ফিরহাদের অভিযোগ, শিশির অধিকারী নিজের যোগ্যতায় কিছু করতে পারেনি। পাল্টা দিয়েছেন শমীক ভট্টাচার্য। তিনি বলেন,”বাবা ছেলের জন্য করবেন তা নিয়ে আলাদা করে বলার কিছুই নেই।”

কাছের সভামঞ্চে দাঁড়িয়ে শুভেন্দু অধিকারীকে বিশ্বাসঘাতক বলে মন্তব্য করেন ফিরহাদ হাকিম। এই নিয়ে সমীক ভট্টাচার্য বলেন,”মানুষ প্রকৃত সত্য বুঝতে পারছেন”।

তিনি আরো বলেন,”রাজ্যবাসীকে নতুন করে দেওয়ার বা বলার তৃণমূলের আর কিছু নেই। অমিত শাহ যেখানে গিয়েছেন। সেই বাউলের বাড়িতেই গিয়েছেন অনুব্রত মণ্ডল। অমিত শাহ যেখানে যাচ্ছেন সেখানে উন্নয়নের ছোঁয়া লাগছে।”

অন্যদিকে একুশের নির্বাচনে আসন দখল নিয়ে তৃণমূলকে কটাক্ষ করেছেন মুকুল রায়। তিনি বলেন,”আগামী বিধানসভা ভোটে তৃণমূলের আসন যদি পঞ্চাশের উপর যায় তাহলে ভাববেন অনেক পেয়েছে। তৃণমূলের আসন সংখ্যা দু’দশকে পৌঁছবে কিনা সন্দেহ।”

তিনি আরো বলেন,”তৃণমূল বিধায়কদের ফোনে ফোনে আর থাকা যাচ্ছে না।”আগামী একুশের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি কীভাবে করবে সেই মেয়েটি মধ্যে আলোচনা সেরে ফেলেছেন শুভেন্দু অধিকারী এবং জেপি নাড্ডা।

Reply