‘বুকের পাটা থাকলে অভিষেকের নাম নিয়ে দেখান’ শুভেন্দুকে তোপ কল্যাণের

তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী সহ 6 জন বিধায়ক। শনিবার মেদিনীপুরে অমিত শাহের হাত ধরেই বিজেপিতে যোগদান করেছেন তারা।

শনিবার শুভেন্দু অধিকারী যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতি চরম ক্ষোভ উগরে দিয়ে বলেছেন ‘তোলাবাজ ভাইপো হঠাও’। এক ,সাংবাদিক সম্মেলন শুভেন্দু কে এর পাল্টা উত্তরে তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, “ ব্যক্তি আ’ক্র’মণ কেন করছেন?

বুকের পাটা থাকলে অভিষেকের নাম নিয়ে দেখান ভাইপো বলে ব্যক্তি আক্রমণ কেন করছেন? বন্দ্যোপাধ্যায় পরিবারের কেউ মুখ্যমন্ত্রী হতে চাননি, বাংলার মানুষরা মমতাকে মুখ্যমন্ত্রী করেছিলেন।”

শুভেন্দু তৃণমূলের সঙ্গে ২১ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করে অমিত শাহের হাত থেকে পদ্ম পতাকা ধরেই মমতা ও অভিষেকের বিরুদ্ধে পরিবারতন্ত্রের অভিযোগ তোপ দাগলে সেই প্রসঙ্গে কল্যাণ পাল্টা উত্তর দিয়ে বলেছেন

“অধিকারী পরিবার নিয়ে কেন বলছেন না? তাদের নিয়েও বলুন , অধিকারীরা ও তো এত পদ পেয়েছে। ১০ বছর ধরে এই সরকারে থেকে এত কিছু ভোগ করে এখন আদর্শের কথা বলছেন? লজ্জা করে না?”

সভা থেকে এদিন শুভেন্দু বলেছিলেন যে একমাত্র গায়ত্রী অধিকারী অর্থাৎ তার নিজের গর্ভধারিণী মা ছাড়া শুধুমাত্র ভারত মাতাকেই মা বলবেন তাছাড়া আর কাউকে নয়।

শুভেন্দু-র এই বক্তব্যকে খোঁচা দিয়ে কল্যাণ বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তো কোনওদিন কাউকে বলেননি তাঁকে মা বলে ডাকতে।উনি তো অমিত শাহের পা ধরে প্রণাম করলেন।

অমিত শাহের সঙ্গে তো তলতলে বেশ দীর্ঘদিন ধরেই যোগাযোগ রেখেছিলেন, এতদিন তো কলকাতায় এসে মমতার পা ছুঁয়ে কে প্রণাম করতেন, সেটা কি তিনি ভুলে গেলেন?”

কল্যাণ আরও বিজেপি এবং অমিত সাহের বিরুদ্ধে মিথ্যাচারের অভিযোগ এনে বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কংগ্রেস ছেড়ে অন্য দলে যাননি, নিজে নিজের দল তৈরি করেছিলেন অথচ অমিত শাহ দিব্যি বলে দিলেন, মমতা কংগ্রেস ছেড়ে অন্য দলে গিয়েছিলেন। পশ্চিমবঙ্গের রাজনীতির বাস্তব রূপ অমিত শাহ জানেন না ৷ আর একুশে তৃতীয়বারের জন্য মমতাই বাংলার মসনদে বসবেন।”

Reply