রাজনীতির ময়দানে তপ্ত বাংলা-দিল্লি, শীতের লড়াই সেয়ানে সেয়ানে

রাজনৈতিক দিক দিয়ে বাংলার দিকে কড়া নজর দিল্লির। এবার আবহাওয়ার নিরিখে দিল্লির ‘দিল’-এ যেমন ঠাণ্ডা জাঁকিয়ে বসে রয়েছে, তেমনই ঠাণ্ডা জাঁকিয়ে রয়েছে সমগ্র বাংলার আনাচে কানাচে। রাজনীতির মতোই শীতে দিল্লির সঙ্গে জোড় টক্কর চলছে বাংলার দার্জিলিঙের।

বুধবার দিল্লির সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৩.৬ ডিগ্রি, যা আজ বৃহস্পতিবার নেমে গিয়েছে ৩.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। দার্জিলিং ,দিল্লি যেন শীত মানুষকে কাঁপিয়ে দিতে সেয়ানে সেয়ানে লড়ছে। কেন্দ্র ও রাজ্যের আবহাওয়া দফতরের তথ্য সেই কথাই জানাচ্ছে। কারণ আজ দার্জিলিঙে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৩.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দিল্লির অবস্থা এই মুহূর্তে এমন কেন? হাওয়া অফিস জানাচ্ছে ,উত্তর ভারত জুড়েই চলছে শৈত্যপ্রবাহ। যা পূর্ব ঘোষিত। পাহাড়ি এলাকার নতুন জায়গায় নতুন করে বরফপাত হচ্ছে। তাই দ্রুত নামছে এখানকার পারদ। এদিকে বাংলার দিকে নজর রাখলে দেখা যাচ্ছে, ৩১ ডিসেম্বর শীত যেমন প্রথম থেকে জাঁকিয়ে বসেছিল ঠিক তেমনই রয়েছে উত্তরবঙ্গে। আগেই আভাস মিলেছিল যে শীত আরও জমাটি হবে উত্তরের জেলাগুলিতে ঠিক সেটাই হয়েছে। বুধবারের তুলনায় উত্তরের পাহাড় থেকে সমতল সর্বত্র পারদ নেমেছে। বৃহস্পতিবার কোচবিহারে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৭.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, কালিম্পংয়ে ৭.০ ডিগ্রি সেলসিয়া, মালদহে ১৩.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, জলপাইগুড়িতে ৯.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, শিলিগুড়ির ৮.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

জাঁকিয়ে শীতকে সঙ্গে নিয়েই বর্ষবরণের দিকে এগোচ্ছে কলকাতা। হাওয়া অফিসের তিলত্তমার পারদ মাপক রেকর্ড সেই তথ্যই দিয়েছে। সকাল থেকেই হাজির উত্তুরে হাওয়া, সঙ্গে স্বাভাবিকের নীচেই অবস্থান করা সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। বৃহস্পতিবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি কম। দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে বজায় রয়েছে শীতের দাপট। বৃহস্পতিবার আসানসোলের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১১.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, বাঁকুড়ায় ১১.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ব্যারাকপুরে ১০.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ক্যানিংয়ে ১১.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, দিঘায় ১২.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, হলদিয়ায় ১৪.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, পানাগড়ে ১০.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, শ্রীনিকেতনে ৯.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, কলাইকুন্ডায় ১০.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

প্রসঙ্গত দেশের বিভিন্ন প্রান্তে যেখানে শীত আসে সেখানেও কিন্তু ঠাণ্ডার ধুমাধার ব্যাটিং জারি রয়েছে। মৌসম ভবন সেই কথাই জানাচ্ছে। সারা ভারতের নিরিখে যে সমস্ত স্থানে ব্যাপক শীত রয়েছে সেখানকার সর্বনিম্ন পারদও দেখে নেওয়া যাক। কোথায় কতটা নেমেছে পারদ। আবহাওয়া দফতরের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, আজ বৃহস্পতিবার শ্রীনগরের সর্বনিম্ন তাওমাত্রা মাইনাস ৫.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমেছে। কারণ পশ্চিমী ঝঞ্ঝা। জম্মু ও কাশ্মীর, লাদাখ, হিমাচলপ্রদেশ এবং উত্তরাখণ্ডের সর্বত্রই বরফপাত চলছে। উত্তর ভারতের অনেক জায়গাতেই তাপমাত্রা নেমে গিয়েছে। জয়পুরে তাপমাত্রা ৪.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, লখনউতে ৪.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রাজকোটে ৮.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ইম্ফলে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৩.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, অসমের ডিব্রুগড়ে পারদ নেমেছে ৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসে, আগরতলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৯.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

Reply