Saturday , September 18 2021
Breaking News

জেনে নিন এ বছরে আপনার রাশিফল কি বলে

মেষ

আয় হবে অনেক। ব্যয় হবে কম। জমা হবে বেশি। কর্মে উন্নতির লক্ষণ স্পষ্ট। বেকার ব্যক্তির নতুন কর্মলাভের যোগ আছে। কর্মক্ষেত্রে সুনাম বাড়বে। স্বাধীন ব্যবসায় উন্নতি হবে। শরীর মোটের উপর ভাল থাকবে। মাথা ও পেট ব্যথা হতে পারে। অর্শর মতো রোগের আশঙ্কা আছে। লেখাপড়া ও পরীক্ষার ফল ভাল হবে। সাহিত্যচর্চায়ও উন্নতি লাভের যোগ দেখা যায়। ভাই-বোনদের শরীর ভাল থাকবে। তাদের সঙ্গে সদ্ভাব নষ্ট হবে না। বন্ধুভাব বেশি ভাল নয়। একটি বন্ধুর আকস্মিক মৃত্যু বা বড় রোগভোগ জাতকের মানসিক কষ্টের কারণ হবে। বন্ধুর দ্বারা উপকার আশা করতে পারেন। সন্তানভাব শুভ। তাদের শরীর ভাল থাকবে। তাদের লেখাপড়া ও পরীক্ষার ফল আনন্দের কারণ হবে। একটি সন্তানের কৃতিত্বে জাতকের মুখ উজ্জ্বল হবে। পিতা-মাতার সঙ্গে সদ্ভাব বজায় রাখার চেষ্টা করুন। তাঁদের দৈহিক অবস্থাও খুব ভাল যাবে না। দাম্পত্যকলহ এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন। না হলে মানসিক অশান্তি বাড়বে। অবিবাহিতের বিবাহযোগ প্রবল। দু’একজন ব্যক্তি ক্ষতির সামান্য চেষ্টা করলেও শত্রুভাব শুভ বলা যায়। শত্রুর দ্বারা বেশি অনিষ্টের আশঙ্কা নেই। শত্রুরা পরাজয় স্বীকারে বাধ্য হবে। রূঢ় আচরণ ও অসংলগ্ন কথা বন্ধ করে ধর্মাচরণে মনযোগ হলে অনেক সুফল পাওয়া যাবে। কোন সাধক পুরুষের সান্নিধ্যলাভ হতে পারে।
অর্থ– এই বছর অর্থ ভাগ্য খুব ভাল যাবে। ব্যবসায়ীদের অর্থ নিয়ে একটু চিন্তা থাকবে। ঋণ নিতে হতে পারে গৃহনির্মাণের জন্য। পাওনা টাকা আদায়ে দেরি হতে পারে।
পরিবার – পরিবারে সকলের সঙ্গে অশান্তি একটু বাড়তে পারে। আত্মীয়ের সঙ্গে কোনও ব্যবসা নিয়ে বিবাদ বাড়তে পারে। স্ত্রীর সঙ্গে বিবাদ বৃদ্ধি। সন্তান মতের বিরুদ্ধে কাজ করবে।
সম্পর্ক – এই বছর সম্পর্ক একটু ভাল হতে পারে। বাইরের কোনও সম্পর্ক নিয়ে অশান্তি। স্ত্রীর সঙ্গে কোনও অন্য ব্যক্তির জন্য বিবাদ। পরিবারে সম্পর্ক ঠিক থাকবে না।
জীবিকা – ব্যবসার ক্ষেত্রে চিন্তা থেকে মুক্তি। চাকুরির স্থানে কোনও ছোট অশান্তি থেকেই যাবে। খরচ বেশি হওয়ার জন্য সঞ্চয় কম হতে পারে। ব্যবসার ক্ষেত্রে অর্থ যোগান ভাল হবে না।

মেষ রাশির ব্যক্তিদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য
রাশি চক্রের প্রথম রাশি মেষ। এই রাশির অধিকর্তা গ্রহ মঙ্গল। এই রাশির ব্যক্তি ছোটবেলা থেকেই তেজস্বী, স্পষ্টবক্তা ও নির্ভীক প্রকৃতির হয়ে থাকে। নানা রকম রোমাঞ্চকর কাজ, সাহসিকতার কাজ করতে পারলে খুব আনন্দিত হয়। গুরুজন ও শ্রদ্ধেয় ব্যক্তিদের প্রতি ভক্তিযুক্ত। কাজ বা কথার সমালোচনা সহ্য করতে পারে না। পরিশ্রমি তবে কায়িক শ্রমের চেয়ে মস্তিষ্কের শ্রমেই বেশি সফল। এরা খুব তোষামোদ প্রিয় ও বন্ধুবৎসল। তবে সকলের সঙ্গে সমান ভাবে মিশতে পারে না। আবেগ প্রকাশ বা নিজেকে বড় করে দেখবার চেষ্টা এদের খুব বেশি। এরা সব বিষয়ে বড় হতে ও নেতৃত্ব করতে হয়। নিজের ক্ষমতায় না হলে পেছনের পথ দিয়ে এগোতেও কুণ্ঠিত হয় না। এদের মতে উন্নতিই আসল, সেখানে পৌঁছনোর পন্থাতা গৌণ। এদের উদ্ভাবনী শক্তি প্রবল। সহজে কথার খেলাপ করে না। নিজের ক্ষতি করেও কথা রাখতে চেষ্টা করে। মন চঞ্চল ও মাঝে মাঝে উগ্র প্রকৃতির হয়ে ওঠে।

—শ্রী জয়দেব

বৃষ

বছরটা খুব ভাল যাবে বলে মনে হয় না। অনেক ঝড়-ঝাপটা আসতে পারে। আয় খারাপ হবে না। ব্যয় বেশি হবে। অর্থ জমা করা কষ্টকর হয়ে দাঁড়াবে। তবে টাকার অভাবে কোন কাজ নষ্ট হবে না। চাকুরিতে অল্প উন্নতিলাভের আশা করা যায়। তবে, সাহিত্যিকদের পক্ষে বছরটি বেশি ভাল বলা যায় না। আমদানি-রপ্তানি-র সঙ্গে যাঁরা যুক্ত, তাঁদের কাজে কিছু উন্নতি হতে পারে। কাজের জন্য বিদেশে যেতে হতে পারে। শরীর ভাল-মন্দ নিশিয়ে চলবে। তবে মন্দ অপেক্ষা ভালর ভাগ বেশি হবে। শ্লেষ্মা, হজমের গোলমাল কিছু কষ্ট দেবে। এ বছর আঘাত পাওয়ার ভয় আছে। সুগার এবং প্রেসার কিছু কষ্ট দেবে বলে মনে হয়। ভাই-বোনদের সঙ্গে মাঝে মাঝে মতের মিল না হলেও তা স্থায়ী হবে না। একটি বোনের শরীর নিয়ে চিন্তায় পড়া অসম্ভব নয়। অপেক্ষাকৃত কম সংখ্যক বন্ধুর সহযোগিতা পাওয়া যাবে। পিতা-মাতার স্বাস্থ্য ভাল থাকবে না। পিতার শরীরে কোন ক্ষত দেখা দিলে বিশেষ সাবধান হওয়া দরকার। বাবা-মায়ের সঙ্গে সামান্য মনোমালিন্যের আশঙ্কা আছে। নিজের লেখাপড়ার অবস্থা মোটামুটি ভাল চললেও ছেলে মেয়েদের লেখাপড়ায় গাফিলতি, অমনোযোগ দেখা দেবে। তাদের পরীক্ষার ফলও আশানুরূপ না হতে পারে। তাদের আচরণেও কিছু কিছু ত্রুটি দেখা দেবে। পত্নীর স্বাস্থ্য ভাল থাকবে না। তার চিকিৎসার জন্য একাধিকবার দূরদেশ যেতে হতে পারে। তার ভাগ্যে এ বছর কিছু সম্পদ লাভের যোগ দেখা দিতে পারে। তার সঙ্গে সদ্ভাব বজায় থাকবে। শত্রুরা বেশি ক্ষতি করতে পারবে না। তবু সাবধান থাকা ভল। মাঝে মাঝে মন চঞ্চল হয়ে উঠলেও ধর্মাচরণে মতি থাকবে ও কিছু সুফল পাওয়া যাবে।
অর্থ – এই বছর অর্থ ব্যপারে খুব ভাল সুযোগ কাজে লাগান। ব্যবসায়ীদের খুব ভাল অর্থ আসবে। চাকুরির স্থানে কোনও বাধা থেকে মুক্তি লাভ। উন্নতির জন্য বছরটি ভাল। সঞ্চয় মধ্যম।
পরিবার – এই বছর পরিবারের জন্য খুব ভাল বলে গণ্য হতে পারে। ভাইয়ের সঙ্গে কোনও বিবাদ মিটে যাবার সম্ভাবনা। স্ত্রী ও সন্তানের সঙ্গে খুব ভাল সম্পর্ক থাকবে।
জীবিকা – ব্যবসাযীদের ভাল আয় হতে পারে। চাকুরির স্থানে উন্নতির যোগ। আগের বছরের তুলনায় এ বছর আয় বাড়তে পারে। সব মিলিয়ে এ বছর জীবিকা ভাল যাবে।
সম্পর্ক – সকলের সঙ্গে সম্পর্ক ভাল থাকতে পারে এই বছর। প্রেমের ব্যাপারে কোনও ভাল খবর আসবে। পুরোনো কোনও সম্পর্ক নিয়ে একটু চিন্তা বাড়তে পারে। নতুন কোনও সম্পর্কে না জড়ানোই ভাল।

বৃষ রাশির ব্যক্তিদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য
রাশি চক্রের দ্বিতীয় রাশি বৃষ। এই রাশির অধিকর্তা গ্রহ শুক্র। এই রাশির ব্যক্তিরা সাধারণত সুন্দরের পূজারী ও শিল্পরসিক হয়ে থাকে। বিপরীত লিঙ্গের মন সহজে জয় করতে পারে ও একাধিক মানুষের প্রতি আকৃষ্ট হতে পারে। এরা মনে প্রাণে সর্বদা উচ্চ ভাব সম্পন্ন। নিজের প্রতিভায় সবার উপরে সহজেই আধিপত্য বিস্তারে সক্ষম হয়। আত্মীয় সজনের জন্য প্রচুর ত্যাগ স্বীকার করে থাকে। এদের জীবনে উত্থান পতন খুব কম। দীর্ঘসুত্রিতা এদের চরিত্রের এক বিশেষ ধর্ম। ফলে জীবনের অনেক ভাল সুযোগ নষ্ট করে। এরা প্রায়ই তীক্ষ্ণ বুদ্ধির, দৃঢ় প্রতিজ্ঞ ও ধৈর্যশীল হয়ে থাকে। স্মৃতিশক্তি প্রখর, সহজে কোনও কিছু ভোলে না এরা। খুব বন্ধু বত্সল ও স্নেহশীল মানুষ। ধর্মে প্রবল উৎসাহ থাকে। এরা ঈশ্বর ভক্তি প্রবল, প্রাচীন শক্তিতে বিশ্বাসী, আনন্দময় ও আত্মবিশ্বাসী হয়। প্রায়ই উত্তরাধিকার সুত্রে আত্মীয় স্বজনের অর্থ বা সম্পত্তি পেয়ে থাকে। জাতক বা জাতিকার জীবনে উন্নতির প্রধান অন্তরায় হল বিলাসিতা ও অমিতব্যয়িতা। এ বিষয়ে সংযত হওয়া প্রয়োজন।

—শ্রী জয়দেব

মিথুন

ধনভাব শুভ। আয় বেশ ভাল হবে। ব্যয় হবে কম। জমা হবে বেশি। শিক্ষক, অধ্যাপক ও ইঞ্জিনিয়ারদের বছরটি খুব শুভ। কোন আর্থিক অসুবিধা দেখা দেবে না। মাঝে মাঝে পেটের রোগে কষ্ট পেলেও শরীর বেশি খারাপ হবে না। দু-একবার জ্বরে আক্রান্ত হতে পারেন। হয়তো বা ওই জ্বর একটু বেশি হবে। তবে তা নিয়ে বেশি চিন্তা করতে হবে না। চলাফেরাটা একটু সাবধানে করা দরকার। আঘাত পাওয়ার যোগ আছে। ভাই-বোনদের সঙ্গে সদ্ভাব নষ্ট হবে না। নিজের দোষে লেখাপড়ায় কিছু ক্ষতি হতে পারে। তবুও পরীক্ষার ফল খারাপ হবে না। অসৎ বন্ধুর সান্নিধ্য ত্যাগ করা উচিৎ। না হলে ক্ষতি হবে। একাধিক বন্ধু উপকারে আসবে। সন্তানদের স্বাস্থ্যের অবস্থা মন্দ নয়। তাদের আচরণ, লেখাপড়া আনন্দের কারণ হবে। একটি গৌরবর্ণ পুত্র লাভের যোগ আছে। অবিবাহিতের বিবাহ যোগ দেখা যায়। বিবাহিত জীবনে সুখ আসবে। নিজের খামখেয়ালির জন্য স্ত্রী মাঝে মাঝে বিরক্ত হয়ে উঠতে পারেন। পিতার আঘাত পাওয়ার যোগ। মাতার স্বাস্থ্যের অবনতি জাতকের মানসিক ক্লেশের কারণ হবে। বন্ধুরূপী শত্রু সম্বন্ধে সাবধান থাকা উচিৎ। ধর্মাচরণে মতি থাকবে না। আধ্যাত্মিক উন্নতি লাভের আশাও কম।
জীবিকা – জীবিকা ব্যপারে চিন্তা বাড়তে পারে। ব্যবসার ক্ষেত্রে চাপ বৃদ্ধি। চাকরির স্থানে বিবাদ বাড়তে পারে। যতই চাপ বৃদ্ধি হোক, ঋণ না করাই শ্রেয়। শেয়ার কারবারে একটু বাঁধা আসতে পারে।
অর্থ – অর্থ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন। খরচ বাড়তে পারে তাই সঞ্চয় একটু কম হতে পারে। ব্যবসার ক্ষেত্রে পাওনা অর্থ ব্যাপারে চাপ বাড়তে পারে। চাকুরিজীবীদের বাড়তি অর্থ পাবার আনন্দ।
পরিবার – পরিবারে সকলের সঙ্গে সম্পর্ক ব্যাপারে একটু চিন্তা বাড়তে পারে। পিতার সঙ্গে কোনও ছোট কারণে এই বছর বিবাদ বাড়তে পারে। ভাইয়ের সঙ্গে সমস্যা মিটে যেতে পারে।
সম্পর্ক – শত্রুর কারণে সম্পর্ক নষ্ট হতে পারে। বাড়িতে সকলের সঙ্গে একটু বুঝে চলতে হবে। কারণ বছরের মধ্যভাগে বিবাদ বাধার সম্ভাবনা প্রবল। বাইরের কোনও সম্পর্কের ব্যপারে চাপ বাড়তে পারে।

মিথুন রাশির ব্যক্তিদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য
রাশি চক্রের তৃতীয় রাশি মিথুন। এই রাশির অধিকর্তা গ্রহ বুধ। বুধ চঞ্চলমতি, উদ্যমী বালক গ্রহ। বালকের মতোই এর কার্যকরিতা এই রাশির ব্যক্তিদের উপর সেই ভাবে প্রতিফলিত হয়। এদের মেধা শক্তি তীক্ষ্ণ, তবে এরা অস্থিরমনা এবং নরম গরম ভাবযুক্ত। এরা চিন্তাশীল কিন্তু বাচাল। এদের মনের মধ্যে একই সঙ্গে দ্বিবিধ ভাবের খেলা চলে। একই সঙ্গে কাউকে ভালবাসে, আবার ঘৃণাও করে। কখনও বিশ্বাস করে তো কখনও সন্দেহ করে। কখনও কৃপণ আবার কখনও আর্থিক ভাবে উদার। কখনও কুটিল, কখনও সরল। প্রয়োজনের চেয়ে বেশি ভাবুকতা এদের এক বৈশিষ্ট্য। এরা কাজ পাগল। কিন্তু কোন কাজ করবে বা কোন কাজ করবে না তা সব সময় ঠিক করতে পারে না। আইনি, চিকিৎসা, হিসাব, শিল্পসাহিতা, রেস, জুয়া ইত্যাদিতে তিব্র ঝোঁক থাকে এবং কিছু সাফল্যও অর্জন করে। প্রায়ই পেটের রোগ বা বদহজমে ভোগে, তোষামোদ প্রিয়।

—শ্রী জয়দেব

কর্কট

এ বছরটা ভালই যাবে। আয় খুব ভাল হবে। ব্যয় হবে কম। জমা হবে অনেক বেশি। তবে বাড়ি-ঘরের সংস্কার বা নতুন বাড়ি ঘর তৈরির জন্য মোটা টাকা ব্যয় হতে পারে। তবুও স্বাচ্ছন্দ বজায় থাকবে। চাকরি বা ব্যবসা যে কোনও কাজেই ভাল উন্নতি হবে। চাকরিতে পদোন্নতি হবে। ব্যবসায় আয় হবে অনেক বেশি। চিকিৎসক, অধ্যাপক, শিক্ষক ও শিল্পপতিদের সুবর্ণ সুযোগের বছর। শরীর মাঝে মাঝে সামান্য খারাপ হতে পারে। পেটের রোগ ও বাতরোগে অল্প কষ্ট পাওয়ার যোগ আছে। লেখাপড়ায় মন বেশি না বসলেও পরীক্ষার ফল খারাপ হবে না। দুর্মুখ-দোষ ত্যাগ করলে সকল বিষয়ে ভাল ফল পাওয়া যাবে। ভাইবোনের সঙ্গে সদ্ভাব থাকবে। তাদের সঙ্গে পূর্বের কোনও বিরোধের নিস্পত্তি হতে পারে। এক ভাইয়ের শারীরিক ক্লেশ চিন্তার কারণ হয়ে উঠতে পারে। বন্ধুদের সঙ্গে সদ্ভাব নষ্ট হবে না। তাদের সাহায্য পাওয়া যাবে। পারিবারিক শান্তিতে একাধিক বার বিঘ্ন ঘটতে পারে। বাবা-মায়ের স্বাস্থ্য ভাল থাকবে বলে মনে হয়। যাদের বয়স ৫৫ বছরের বেশি, তাঁদের পিতৃবিয়োগ বা মাতৃবিয়োগ অসম্ভব নয়। সন্তানের স্বাস্থ্য বেশি খারাপ না হলেও ছেলের শরীরে আঘার লাগার আশঙ্কা। তাদের আচরণ ভাল হবে। অবিবাহিতের বিবাহ যোগ প্রবল। দাম্পত্য সুখ নষ্ট হবে না। এমনকি পূর্বসৃষ্ট বিরোধের অবসান হতে পারে। বিবাহের পর আর্থিক উন্নতি হবে। নিজের কথার দোষে শত্রু তৈরি হতে পারে। তবে তারা বেশি ক্ষতি করতে পারবে না। ধর্মাভাব শুভ। এ বছরটি সদগুরুলাভ ও আধ্যাত্মিক উন্নতি লাভের বছর।

অর্থ: আর্থিক ব্যাপারে কোনও চিন্তা থাকলে সেটা মিটে যেতে চাপ বাড়বে। এ বছর একটু অভাবে দিন কাটতে পারে। ব্যবসার দিকে কোনও কারণে মন্দা বাড়তে পারে। চাকরির দিকে একটু চিন্তা বাড়বে। কিন্তু কোনও সমস্যাই অনেক দিন টিকে থাকবে না।
পরিবার: পরিবারে একটু বিবাদ, তা নিয়ে চিন্তা। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব মিটিয়ে নেওয়াই ভাল। পাশের বাড়ির লোকের সঙ্গে একটু বুঝে চলুন। ভাই-ভাই একটু মিল রাখার চেষ্টা করুন। স্ত্রীকে একটু সময় দিন। মাথা একটু ঠিক রাখার চেষ্টা করুন।সম্পর্ক: সব সম্পর্ক খুব ভাল থাকবে না। কিছু সম্পর্কে একটু চিড় ধরতে পারে। নতুন কোনও সম্পর্কের ব্যাপারে একটু চিন্তাভাবনা করে নেওয়াই ভাল। বাড়িতে কোনও লোকের সঙ্গে সম্পর্ক ঠিক রাখার জন্য সকলের মন জুগিয়ে চলুন।জীবিকা: জীবিকার ব্যাপারে কোনও চাপ নেই বললেই চলে। চাকরিস্থলে খুব বুঝে চলবেন। গুপ্ত শত্রু বৃদ্ধি। কোনও ছোট কারণ বিবাদের জন্ম দিতে পারে। ব্যবসার দিকে কোনও বিবাদ বাড়তে পারে।

কর্কট রাশির ব্যক্তিদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য
রাশিচক্রের চতুর্থ রাশি কর্কট। এই রাশির অধিকর্তা গ্রহ চন্দ্র। এই ব্যক্তিরা সচরাচর কল্পনা প্রিয়, শিল্পী, ভাবপ্রবণ ও রোম্যান্টিক ধরনের হয়ে থাকে। বিলাসি অথচ আদর্শবাদী। আত্মকেন্দ্রিক অথচ স্পর্শকাতর। দিনের চেয়ে রাত বেশি প্রিয়। ঠান্ডা জিনিস এদের প্রিয়। ভ্রমণ বিলাসী ও বাবা মায়ের ভক্ত হয়। দোষের মধ্যে একটু খুঁতখুঁতে চঞ্চল ও ভীতু, সব বিষয়ে হুড়োহুড়ি করা ও চঞ্চল প্রকৃতির হয়। ব্যবসা বুদ্ধি জন্মগত, তাই চাকরির চেয়ে ব্যবসাতেই জাতক বেশি উন্নতি করে। বিশেষ করে সাদা ও তরল দ্রব্যের, জলজ দ্রব্য বা খাদ্যদ্রব্যের ব্যবসা করলে খুব লাভবান হতে পারে। স্বাস্থ্য খুব একটা মজবুত হয় না। বায়ুর প্রকোপ খুব বেশি। হৃদরোগ, পেটের রোগ, মাথার রোগ, যক্ষ্মা, হাঁপানি হওয়ার প্রবণতা থাকে। এরা সব সময় ছিমছাম ও বেহিসেবি হয়ে থাকে।

—শ্রী জয়দেব

সিংহ

আয় খারাপ হবে না। ব্যয় কিছু বেশি হবে। আর্থিক চাপ থাকবে। বছরের মাঝামাঝি সময়ে কিছু ঋণ করতে হতে পারে। তবে ওই ঋণ সহজেই পরিশোধ করা যাবে। শরীর ভাল না-ও থাকতে পারে। সুগার, প্রেসার ও পেটের রোগের আশঙ্কা রয়েছে। কোন অকাল মৃত্যু যোগ নেই। ভাইবোনের সঙ্গে মতবিরোধের যোগ প্রবল। তবে বিচ্ছেদ হবে না। ভাইবোনের স্বাস্থ্যের অবনতির আশঙ্কা। বন্ধুদের সাহায্য পাওয়া যাবে অনেক কম। নিজের এবং ছেলেমেয়েদের লেখাপড়া ও পরীক্ষার ফল আশানুরূপ হবে। একটি সন্তানের বিয়ের ব্যাপারে মানসিক চিন্তা, উদ্বেগ অনেক বাড়বে। ছেলেমেয়েদের আচরণ ভাল থাকবে। বাবা-মায়ের স্বাস্থ্য ভাল থাকবে না। বিশেষত মায়ের জীবনহানি ঘটতে পারে। বাবা-মায়ের সঙ্গে মতানৈক্য ও সামান্য মনোমালিন্যের আশঙ্কা রয়েছে। দাম্পত্য জীবনে অশান্তি হতে পারে। তবে বিচ্ছেদের কোনও সম্ভাবনা নেই। স্ত্রীর ভাগ্যে এ বছর ধনসম্পদ লাভ অসম্ভব নয়। সপত্নীক বিদেশে যাওয়ার যোগ রয়েছে। শত্রু থাকবে। বিশেষ করে কর্মক্ষেত্রে শত্রুরা ক্ষতির চেষ্টা করবে। গুপ্ত শত্রু সম্বন্ধে সাবধান থাকা উচিত। ধর্মভাব অশুভ নয়। ধর্মাচরণে মতি থাকবে। হতাশা কাটিয়ে জপ, ধ্যানে মন দিলে অনেক উন্নতি হবে।

অর্থ: এ বছর অর্থ ভাগ্য আগের বছরের থেকে একটু ভাল হতে পারে। আগের ঋণ একটু করে শোধ হতে পারে। ব্যবসার থেকে কিছু অর্থ আসতে পারে। চাকরির দিকে মধ্যম ভাব।
পরিবার: স্বামী-স্ত্রীর ভিতর বিবাদ মিটে যাওয়ার সম্ভাবনা। ভাইবোনের মধ্যে কোনও কারণে বিবাদ নিয়ে চিন্তা। বাবার অর্থ নিয়ে কোনও বিবাদ। পরিবারে সকলের অশান্তি থেকে মুক্তি লাভ।
সম্পর্ক: হঠাৎ পুরনো কোনও সম্পর্ক আবার ঠিক হতে পারে। প্রেমের কোনও নতুন ইঙ্গিত। বাড়িতে স্ত্রীর সঙ্গে ভাল সম্পর্ক হওয়ার জন্য মানসিক আনন্দ। বাইরের কোনও সম্পর্ক ঠিক থাকবে না।
জীবিকা: এ বছর জীবিকা একটু ভাল হতে পারে। ব্যবসার দিকে কোনও ভাল সুযোগ আসতে পারে। চাকরিরস্থলে উন্নতির যোগ। নতুন কোনও জীবিকার পরিকল্পনা করতে পারেন।

সিংহ রাশির ব্যক্তিদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য
রাশি চক্রের পঞ্চম রাশি সিংহ। এই রাশির অধিকর্তা গ্রহ রবি। এই রাশির ব্যক্তিরা প্রায়ই দৈহিক সৌন্দর্য যুক্ত হয়ে থাকে। দেহ রোগা মোটা বা দোহারা বা যাই হোক, পেশীবহুল হয়। সাধারণত শান্ত কিন্তু রেগে গেলে হিতাহিত জ্ঞানশূন্য হয়ে পরে। এরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ, জেদি, পরাক্রমশীল, গম্ভীর ও দয়াবান হয়। নিজের চেষ্টায় জীবনে উন্নতি করে। লাল বা হলুদ রঙের দ্রব্যের ব্যবসা করলে শুভ। ইঞ্জিনিয়ারিং ও চিকিৎসা ব্যবসায় দ্রুত উন্নতি। উচ্চ রক্তচাপ, চোখের রোগ, পেটের রোগে ভোগান্তি হয়। যে কোনও কাজে ঘনঘন মত পাল্টালে জাতকের ভাল হবে না। বৃশ্চিক, মীন, সিংহ ও মেষ রাশির নর নারির সঙ্গে বন্ধুত্ব বা বিবাহ সুখের হবে।

—শ্রী জয়দেব

কন্যা

এ বছর আয় অনেক ভাল হবে। তুলনামূলক ভাবে ব্যয় হবে কম। জমা কিছু বেশি হবে। যে কোনও কাজে আয় ভাল হবে। তবে শিল্পকর্মে অধিক উন্নতি যোগ দেখা যাচ্ছে। বিদেশে আয় অনেক বেশি হবে। দারিদ্রযোগ নেই। শরীর ভাল না-ও থাকতে পারে। বায়ুর প্রকোপ, শ্লেষ্মার প্রকোপ, শ্বাসকষ্ট প্রভৃতির আশঙ্কা আছে। ভাইবোনের সঙ্গে ঝগড়া, বিবাদ এড়িয়ে না চললে ক্ষতি হবে। তাদের স্বাস্থ্যের অবনতির আশঙ্কা আছে। বেশির ভাগ বন্ধুই অসহযোগিতা করবে। অল্প সংখ্যক বন্ধু উপকারে আসবে। কোনও এক নিকট বন্ধুর অধিক রোগ ভোগ কিংবা আকস্মিক মৃত্যুতে জাতক বিমূঢ় হয়ে পড়তে পারে। একটি সন্তানের উদ্ধত ভাব জাতকের মনোকষ্টের কারণ হতে পারে। সন্তানের স্বাস্থ্য বেশি ভাল থাকবে না বলে মনে হয়। জাতকের নিজের লেখাপড়া ও পরীক্ষার ফল মোটামুটি ভাল হলেও সন্তানদের লেখাপড়ায় অবহেলা। পরীক্ষায় আশানুরূপ ফল না হওয়া জাতকের মনোবেদনার কারণ হবে। বাবার শারীরিক অবস্থার বিশেষ কোনও পরিবর্তন না হলেও মায়ের স্বাস্থ্য ভাল থাকবে না। বছরের বেশির ভাগ সময় তিনি কোনও না কোনও রোগে কষ্ট পাবেন। বাবা-মায়ের সঙ্গে জাতকের মতবিরোধ ঘটতে পারে। অবিবাহিতের বিবাহ হওয়া সম্ভব। বিবাহকে কেন্দ্র করে বেশ কিছু ধনসম্পদ লাভ হবে। বিবাহিত জীবন অসুখের হবে না। বিবাহের পর সোজা কথায় স্ত্রীর ভাগ্যে আয় ক্রমশ বাড়বে। স্ত্রীর শরীরে অ’ স্ত্রো’ পচারের দরকার হতে পারে। জরায়ুঘটিত রোগ বা শরীরে কোনও ক্ষত সৃষ্টি হলে ভাল চিকিৎসা করানো দরকার হবে। তার ভোগের আশঙ্কা থাকলেও জীবনহানি ঘটবে না বলেই মনে হয়। কিছু শত্রু থাকবে। তারা ক্ষতিরও চেষ্টা করবে, তবে সফল হবে না। জাতকের শত্রুজয়ী যোগ আছে। রাহু অনিষ্টের চেষ্টা করলেও জাতকের ধর্মাচরনে মতি থাকবে। বাধাবিঘ্ন কাটিয়ে দৃঢ়তার সঙ্গে অগ্রসর হতে পারলে আধ্যাত্মিক উন্নতি লাভ হবে।

অর্থ: ব্যবসায় মনোযোগ টিকিয়ে রাখতে পারলে ভাল অর্থ আসতে পারে। চাকরির দিকে উন্নতির যোগ থাকলেও বছরের শেষের দিকে সমস্যা আসতে পারে। বাড়তি কোনও ব্যবসায় ব্যয় বৃদ্ধি।
পরিবার: বাড়িতে সকলের সঙ্গে ভাল ব্যবহার থাকবে না। গুরুদেবের প্রতি ভক্তি বাড়তে পারে। পরিবারে যদি কোনও বিবাদ থাকে তা মিটে যাওয়ার সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে।
সম্পর্ক: প্রেমের সম্পর্ক ভাল থাকবেনা। বাড়িতে স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক উন্নতি হতে পারে। বন্ধুদের সঙ্গে ব্যবহার ভাল হতে পারে। নতুন সম্পর্ক হওয়ার জন্য খুব ভাল সময়।
জীবিকা: জীবিকায় খুব ভাল উন্নতি দেখা যাচ্ছে। চাকরির জন্য ভাল যোগাযোগ আসতে পারে। ব্যবসায় আরও ভাল ফল পাবেন। তবে নতুন কোনও ব্যবসা শুরু করার জন্য বছরটা খুব ভাল নয়।

কন্যা রাশির ব্যক্তিদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য
রাশি চক্রের ষষ্ঠ রাশি কন্যা। এই রাশির অধিকর্তা গ্রহ বুধ। বুধ প্রধান ব্যক্তি উদ্যমশীল, হাস্যকৌতুক ও আনন্দ প্রিয় হয়। স্বভাব চরিত্র সহজে বোঝা যায় না। আইনবিদ্যা, চিকিৎসা, রসায়ন বিজ্ঞান, গণিত ইত্যাদিতে প্রায়ই পটু হয়ে থাকে। ব্যবসা বাণিজ্যে উন্নতি করে। একা স্বাধীন ভাবে ব্যবসা করার চেয়ে যৌথ ব্যবসায় উন্নতি করে। সকলের জন্য চিন্তা করে তবে নিজের স্বার্থ ভাল বোঝে। মনের দু’টি পরপর বিপরীত ভাবের জন্য প্রায়ই উন্নতি ব্যাহত হয়। ব্যবসায়ী, প্রচারকর্তা, ওকালতি, এজেন্ট, জ্যোতিষী ইত্যাদি শুরু করলে জীবনে অবশ্যই উন্নতি করবে। এরা একা থাকতে ভালবাসে না। বন্ধুপ্রীতি অপরিসীম। কন্যা, মিথুন, মীন ও মেষ রাশির লোকের সঙ্গে বন্ধুত্ব বা বিবাহ শুভ। এরা খুব কর্তব্যপরায়ণ হয়ে থাকে। মন দৃঢ় রাখতে পারলে জীবন কুব সুখকর হবে।

—শ্রী জয়দেব

তুলা

আয় খুব ভাল হবে। আয়ের তুলনায় ব্যয় কম হবে। সঞ্চয় হবে অনেক। নতুন সম্পত্তি কেনার জন্য মোটা টাকা ব্যয় হতে পারে। তবুও অর্থের অভাব ঘটবে না। পেশাদার খেলোয়াড়, ওষুধ ব্যবসায়ীরা অনেক অর্থ উপার্জন করবেন। অভিনেতাদের জন্য বছরটি শুভ। চাকরিজীবীর পদোন্নতি ও বিদেশ গমনে অনেক অর্থলাভ হবে। মাঝে মাঝে সামান্য শারীরিক কষ্ট দেখা দিলেও সার্বিক বিচারে শরীর ভাল থাকবে বলা যায়। তবে শ্বাসকষ্ট জাতীয় রোগ হলে অবিলম্বে চিকিৎসার ব্যবস্থা করবেন। লেখাপড়ায় বাধা বিঘ্নের আশঙ্কা আছে। পরীক্ষার ফলও তেমন ভাল না হতে পারে। সম্পত্তির ভাগ বাঁটোয়ারা নিয়ে ভাইবোনোদের সঙ্গে বিরোধ হওয়া অসম্ভব নয়।তবে সম্পর্কচ্ছেদ হবে না। বন্ধুভাব শুভ নয়। কোনও বন্ধু শত্রুর মতো আচরণ করতে পারে। বন্ধুর শত্রুর মতো আচরণের ফলে জাতক একাধিক বার বিব্রত হয়ে পড়তে পারেন। সন্তানদের স্বাস্থ্য ভাল না থাকতেও পারে। তাদের লেখাপড়া ও পরীক্ষার ফল জাতককে সন্তুষ্ট করবে না বলে মনে হয়। বাবা-মায়ের সঙ্গে মনোমালিন্যের যোগ রয়েছে। তাঁদের স্বাস্থ্য নিয়ে মাঝে মাঝে চিন্তায় পড়তে হবে। তবে তঁদের কারও অকাল মৃত্যুর যোগ নেই। পত্নীভাব অশুভ নয়।দু’একবার শারীরিক কষ্ট হলেও বেশির ভাগ সময় তাঁর শরীর ভাল থাকবে। তার সঙ্গে বড় ধরনের কোনও মনোমালিন্য হবে না। তাঁর ভাগ্যে এ বছর কিছু প্রাপ্তি যোগ আছে। ধর্মভাব মধ্যম। সদ্‌গুরুলাভের আশা আছে। বাধা-বিঘ্নে হতাশ না হয়ে জপ-ধ্যানে মন দিলে ভাল উন্নতি হবে।
অর্থ– আর্থিক ব্যাপারে সতর্ক থাকলে সঞ্চয় ভাল হবে। অর্থ ভাগ্য খুব ভাল হবে এই বছর। ব্যবসায় অর্থ আসতে পারে। কিন্তু পাওনা টাকা আদায়ে বিবাদের আশঙ্কা রয়েছে। নতুন কোনও ব্যবসা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া যেতে পারে। সঞ্চয় নিয়ে নিশ্চিন্ত থাকুন।
পরিবার– পরিবারে কোনও ছোট বিবাদ বড় আকার নিতে পারে। গুরুজনের সঙ্গে আলোচনা করে সব কাজ করুন। ভাইয়ের সঙ্গে বিবাদের জন্য মানসিক চাপ বাড়তে পারে।
সম্পর্ক– অনেক দিনের পুরনো কোনও সম্পর্কে চিড় ধরতে পারে। প্রেমের দিকে বছরের মধ্য ভাগে ভাল সময়। স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক ভাল মন্দ মিশিয়ে থাকার যোগ দেখা যাচ্ছে।
জীবিকা– বছরের প্রথম দিকে জীবিকার জন্য দূরে যেতে হত পারে। ব্যবসা ও চাকরি ভাল যাবে। নিজের প্রচেষ্টায় বাড়তি কিছু আয় হতে পারে। মোটের ওপর জীবিকা ভাল থাকবে এই বছর।

তুলা রাশির ব্যক্তিদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য
রাশি চক্রের সপ্তম রাশি তুলা। এই রাশির অধিকর্তা গ্রহ শুক্র। এদের মধ্যে যে লক্ষণ সাধারণত দেখা যায়, তা হল— এরা খুব সৌন্দর্য ও ভোগবিলাস প্রিয়, ভাবপ্রবণ, বিজ্ঞ, রাজনীতিক, প্রখর অনুমান শক্তিসম্পন্ন ও প্রেমিক। চেষ্টা করলে এরা ভাল শিল্পী, গায়ক, চিত্রকর, সুরকার, সাহিত্যিক, নৃত্যশিল্পী, অভিনেতা প্রভৃতি হতে পারে। এদের স্বাস্থ্য ভাল, রোগব্যধি বিশেষ হয় না। এরা একটু নির্জনতাপ্রিয়। ভীরের চেয়ে একাকী থাকতে বেশি পছন্দ করে। এদের সহিষ্ণুতা ও ধৈর্য যথেষ্ট। জাতক শান্তি প্রিয় তবে ভিরু নয়। চাকরি অপেক্ষা ব্যবসা জাতকের পক্ষে বিশেষ ফলপ্রদ। জাতক সৎকর্ম পরায়ণ, বহু ভাষায় অভিজ্ঞ। ধর্ম ভাব বেশি থাকলেও তা চাপা থাকে। খেতে খাওয়াতে খুব ভালবাসে। বিচার বিশ্লেষণ শক্তি প্রবল। তুলা, মেষ, কুম্ভ ও মিথুন রাশির লোকের সঙ্গে বন্ধুত্ব বা বিবাহ সুখের হয়।

—শ্রী জয়দেব

বৃশ্চিক

ধনভাব শুভ। এ বছর আয় অনেক বাড়বে।খরচ হবে কম, জমা হবে বেশি। কর্মে উন্নতির যোগ আছে। কর্মক্ষেত্রে ও খেলাধূলায় কৃতিত্ব দেখাতে পারেন। দু’একবার শরীর খারাপ হওয়া অসম্ভব নয়। সামান্য আঘাত লাগার যোগ আছে। মন থেকে চিন্তা ঝেড়ে ফেলার চেষ্টা করা উচিত। লেখাপড়া যথারীতি চলবে। পরীক্ষার ফল ভাল হবে।তবে খুব ভাল না হতেও পারে। ভাই-বোনেদের সঙ্গে সদ্ভাব থাকবে। বন্ধুভাব ভাল। বিশেষ বন্ধু কোনও উপকারে আসবে না। অন্য বন্ধুদের সহযোগিতা পাওয়া যাবে। বাবা-মায়ের দিক থেকে বছরটি শুভ। মাঝেমধ্যে মায়ের শরীর নিয়ে কিছু গোলযোগ দেখা দিতে পারে,তবে তা সাময়িক। অবিবাহিতের বিবাহ যোগ আছে। স্ত্রীর স্বাস্থ্যের অবনতি অথবা তাঁর সঙ্গে মতান্তর মনকে ভারাক্রান্ত করতে পারে। সন্তানদের স্বাস্থ্য ভাল থাকবে। তাদের লেখাপড়া ও পরীক্ষার ফল আনন্দের কারণ হবে। শত্রুভাব ভাল নয়। একাধিক শত্রু কর্মক্ষেত্রে ক্ষতির চেষ্টা করবে বলে মনে হয়। এ বছর সদ্গুরুলাভ ও আধ্যাত্মিক উন্নতির যোগ রয়েছে। ঈশ্বরে বিশ্বাস রেখে চলার চেষ্টা করলে অনেক সুফল পাওয়া যাবে। স্ত্রীর শরীর বছরের শেষের দিকে একটু ভালর দিকে যাবে।তবে তাঁর জন্য খরচ হবে ভালই। যাঁরা অংশীদারি ব্যবসা করেন তাঁদের সময় খুব ভাল। বন্ধুকে নিয়ে বিশেষ ভাবে সাবধান থাকতে হবে।
অর্থ– ব্যবসায় অর্থ নিয়ে একটু চাপ বাড়লেও নিজের বুদ্ধিতে সেটা মিটিয়ে নিতে সক্ষম হবেন। পাওনা অর্থ আদায়ে সুবিধা হওয়ার যোগ রয়েছে। বুদ্ধির ভুলে অর্থ নষ্ট।
পরিবার– এই বছর পরিবারের সব সদস্যের সঙ্গে আনন্দে দিন কাটবে। স্বামী-স্ত্রীর ভিতর ঝগড়া ও ভালবাসা দুই-ই থাকবে। সন্তানদের নিয়ে চিন্তা বাড়তে পারে।
সম্পর্ক– সম্পর্ক নিয়ে চিন্তা বাড়তে পারে। প্রেমের জন্য বাড়িতে বিবাদ বাড়বে। নতুন কোনও সম্পর্কে যাওয়ার আগে খুব ভাল করে চিন্তা ভাবনা করুন।
জীবিকা– জীবিকার জন্য বাইরে যেতে হতে পারে। অফিসে অশান্তি থেকে দূরে থাকুন। ব্যবসা মোটামুটি যাবে। বাড়তি কোনও ব্যবসা নিয়ে ভাল করে ভেবে সিদ্ধান্ত নিন।

বৃশ্চিক রাশির ব্যক্তিদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য
রাশি চক্রের অষ্টম রাশি বৃশ্চিক। এই রাশির অধিকর্তা গ্রহ মঙ্গল। এই রাশির ব্যক্তি প্রায়ই তেজী, নির্ভীক এবং একগুঁয়ে প্রকৃতির হয়। নিজের মতে চলতে ভালবাসে। মঙ্গল প্রধান লোক প্রায়ই স্বেচ্ছাচারি, প্রভুত্বকামী হয়ে থাকে। মঙ্গল অশুভ হলে অহংকারী, দাঙ্গাবাজ ও গুন্ডা প্রকৃতির হয়ে থাকে। এরা প্রায়ই প্রচুর ভু সম্পত্তি বা বাড়ির মালিক হয়। জীবনে প্রতিষ্ঠা পাওয়ার জন্য ন্যায় অন্যায় বিচার করে না। পাইলট, সামরিক অফিসার, সৈনিক, পুলিশ অফিসার, পদস্থ সরকারি কর্মচারী, প্রভৃতি বৃত্তি অবলম্বন করলে জীবনে দ্রুত উন্নতি করবে। অধ্যাবসায়ের দিকে কঠোর পরিশ্রম করে নিজেকে নিজের ভাগ্য গড়ে তুলতে হবে। হঠাৎ কিছু পাওয়ার আশা করা তার পক্ষে উচিৎ হবে না। এই লোকের স্বাস্থ্য ভাল যায় না। বৃশ্চিক, মীন, বৃষ, কর্কট ও সিংহ রাশির লোকের সঙ্গে মিত্রতা বা বিবাহ হলে হবে।

—শ্রী জয়দেব

ধনু

ধনভাব ও কর্মভাব অতিশয় শুভ। কাজের চাপ অনেক বেশি থাকবে, আয় খুব ভাল হবে। ব্যয় বেশি হতে পারে তবুও জমা হবে অনেক। চাকরি অপেক্ষা ব্যবসায়ে অর্থলাভ হবে অনেক বেশি। সাফল্য পাবেন। আসলে যে কোনও কাজে এ বছর অনেক বেশি উন্নতি করতে পারবেন। কাজের জন্য দূরে যেতে হতে পারে। সব কাজেই সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। আঘাত পাওয়ার ভয় আছে। অর্শাদি গুহ্যরোগ দেখা দিতে পারে। ভাই-বোনেদের সঙ্গে সদ্ভাব থাকবে। একটি বোনের উপদেশে অনেক উপকার হবে। ছেলে-মেয়েদের স্বাস্থ্য ভাল না-ও থাকতে পারে। একটি ছেলের কৃতিত্বে মুখ ঊজ্জ্বল হবে। তাদের লেখাপড়ার মান খারাপ হবে না, পরীক্ষার ফলও মোটামুটি ভাল হবে। জাতকের নিজের লেখাপড়ায় গাফিলতি দেখা দিতে পারে, তবুও পরীক্ষার ফল খারাপ হবে না। দু-একজন ছাড়া বাকি সব বন্ধুর সহযোগিতা পাবেন। সোজা কথায় এ বছর বন্ধুর দ্বারা উপকার হবে। পত্নীভাব অশুভ না হলেও তার শারীরিক কারণে ও রুক্ষ আচরণে মন ব্যথিত হবে বলে মনে হয়। পিতা-মাতার সঙ্গে সদ্ভাব ঠিকই থাকবে। তাঁদের সদুপদেশ অথবা আশীর্বাদে প্রায় সব সমস্যা থেকে মুক্ত থাকতে পারবেন বলে মনে হয়। মায়ের স্বাস্থ্যের সামান্য অবনতি ঘটতে পারে। তাঁদের কাছ থেকে আর্থিক আনুকুল্য লাভের যোগ প্রবল। শত্রু থাকবে, তারা ক্ষতির চেষ্টা করবে, তবুও বিশেষ কিছু করতে পারবে না। নিজের কথাবার্তায় সংযম থাকলে অনেক উপকার হবে। ধর্ম্ম-কর্মে মন বসবে না, তবুও ধর্মাচরণের চেষ্টা করা একান্ত কর্তব্য।
অর্থ– এই বছর কোনও আয় আসতে পারে, লটারি পাওয়ার যোগ দেখা যচ্ছে। পাওনা আদায়ে অশান্তি বৃদ্ধি হলেও টাকা পেয়ে যাওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। ব্যবসার ব্যাপারে কোনও অপবাদ আসতে পারে।
পরিবার– পরিবারে চাপ লেগে থাকবে। স্বামী-স্ত্রী মনোমালিন্যের পরিমাণ বাড়তে পারে। গুরুজনের সঙ্গে মতের অমিল হতে পারে। মানসিক চাপ বাড়তে পারে।
সম্পর্ক– বাইরের কোনও মহিলা বা পুরুষের সঙ্গে নতুন ভাবে সম্পর্কে জড়িয়ে পরতে পারেন। ভাল কোনও সম্পর্ক শত্রুতার কারণে নষ্ট হতে পারে। প্রেমের দিকে কোনও বিবাদ বৃদ্ধি হলেও মিটে যাবে।
জীবিকা– কর্মস্থানে কোনও ক্ষতি হবার সম্ভাবনা আছে। খুব সতর্ক থাকতে হবে। ব্যবসার দিকে লাভের পরিমাণ বাড়বে। আয় করতে একটু দূরে যেতে হতে পারে। চাকরির জায়গায় অশান্তি থেকে মুক্তি।

ধনু রাশির ব্যক্তিদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য
রাশি চক্রের নবম রাশি ধনু। এই রাশির অধিকর্তা গ্রহ বৃহস্পতি। এই রাশির ব্যক্তিরা ধার্মিক, সৎ, পরোপকারী এবং আদর্শবাদী হয়। ব্যক্তিত্বসম্পন্ন হওয়ায় অন্যের অধীনে কাজ করতে অসুবিধা ভোগ করে। এরা সধারণত কর্মকুশল, দেবদ্বিজে ভক্তিমান, দৃঢ় প্রতিজ্ঞ, সত্যপ্রিয়, জ্ঞানি ও প্রতিভাশালী হয়। এদের বন্ধু সংখ্যা একটু কম। জাতকের বদান্যতার জন্য আয়ের চেয়ে ব্যয় বেশি হয়। দৈবে অত্যধিক বিশ্বাসী হওয়ায় কর্মে ব্যাঘাত আসতে পারে। বিষয় সম্পত্তিতে আসক্তি কম। দৃঢ়তা ও স্পষ্টবাদিতার জন্য প্রায়ই মতান্তর ঘটে। প্রথম জীবনে নানা বাধা বিঘ্ন, মানসিক অস্থিরতা, অর্থাভাব ইত্যাদি প্রায়ই দেখা দেয়। প্রচণ্ড পরিশ্রমী হওয়ায় অবস্থা পাল্টে যায়। মেষ, মিথুন ও ধনুরাশির জাতক জাতিকার সঙ্গে বন্ধুত্ব বা বিবাহ সুখের হয়। অর্থ ভাগ্য খুব ভাল নয়। কিন্তু মধ্য জীবনের পর থেকে আর্থিক অবস্থা ভাল হতে থাকে।

—শ্রী জয়দেব

মকর

আর্থিক অবস্থা মোটামুটি ভাল থাকবে। আয় ভাল হবে, ব্যয় একটু বেশি। আর্থিক স্বাচ্ছন্দ্য বজায় থাকবে না। বাড়িঘরের সংস্কার কিংবা নতুন সম্পত্তি কেনার ব্যাপারে বেশ কিছু ব্যয় হবে, তবুও লাভবান হবেন। শরীর ভাল থাকবে না। পেটের গোলমাল, অর্শাদি গুহ্যরোগ ও সর্দি-কাশিতে কষ্ট পেতে পারেন। বছরের প্রথম ভাগে দৈহিক অবনতির আশঙ্কা আছে, তবে তা বড় আকার ধারণ করবে না। লেখাপড়ায় মন বসবে না। পরীক্ষার ফল ভাল ন-ও হতে পারে। স্বার্থপরতা ও রূঢ় আচরণের ফলে ভাই-বোনেদের মনে বিরক্তি সৃষ্টি হতে পারে। তাদের স্বাস্থ্য খারাপ যাবে না। নিজের কথার দোষে বন্ধুরা দূরে সরে যেতে পারে, তবে তাদের দ্বারা কোনও অনিষ্ট হবে না। পিতা-মাতার বিশেষতঃ পিতার শারীরিক ক্লেশভোগ যোগ প্রবল। তাঁদের কাছ থেকে আনুকুল্য লাভের আশা কম। সন্তানভাব শুভ। তাদের লেখাপড়া ও পরীক্ষার ফল ভাল হবে। একটি সন্তানের কঠিন রোগভোগের আশঙ্কা আছে। তাদের আচরণ মন্দ হবে না। অবিবাহিতের বিবাহ যোগ প্রবল। স্ত্রীর স্বাস্থ্য চিন্তা ও উদ্বেগের কারণ হতে পারে। তার সঙ্গে মনোমালিন্য এড়িয়ে চলা দরকার। কর্মক্ষেত্রে শত্রুরা ক্ষতির চেষ্টা করবে, কিছু সফলও হবে, তবে বেশি ক্ষতি করবে পারবে না। কারণ, শত্রু জয়ী যোগ আছে। ঈশ্বরে বিশ্বাস রেখে ধর্মাচরণে ব্রতী হলে সুফল পাওয়া যাবে। হতাশা ও অস্থির বুদ্ধি ক্ষতির কারণ হতে পারে।
জীবিকা– পুরোপুরি মনোযোগ জীবিকার ওপর রাখতে হবে, কারণ ব্যবসায় একটু আয় বৃদ্ধি হতে পারে। চাকরির জায়গায় কোনও ভাল যোগাযোগ আসতে পারে।
অর্থ– এ বছর প্রচুর অর্থ ব্যয়ের সম্ভাবনা। ব্যবসার দিকে অর্থ নিয়ে চিন্তা থাকবে। বাড়তি কোনও ব্যবসা না করাই ভাল। পাওনা অর্থ আসতে পারে।
পরিবার– এই বছর পরিবারে দিকে কোনও চিন্তা বৃদ্ধি পেতে পারে। সকলের সঙ্গে যোগাযোগ ভাল থাকবে। পরিবারের সকলের মন জয় করতে সক্ষম হবেন। পারিবারিক দায়িত্ব বৃদ্ধি।
সম্পর্ক– নতুন কোনও সম্পর্ক খুব ভাল হবে, ভাল যোগাযোগ আসবে। প্রেমের দিকে চিন্তা বৃদ্ধি। বিবাহ ব্যাপারে কোনও যোগাযোগ আসতে পারে। পুরনো সম্পর্ক ঠিক থাকবে।

মকর রাশির ব্যক্তিদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য
রাশি চক্রের দশম রাশি মকর। এই রাশির অধিকর্তা গ্রহ শনি। শনি গ্রহের জাতকদের নিঃসঙ্গ এবং একা থাকতে ভাল লাগে। অবসাদ, বিষাদ, বৈরাগ্য, উদাসিনতা ভাব এদের চরিত্রের বিশেষ লক্ষণ। বন্ধুরা সব সময় এদের এড়িয়ে চলতে চায়। এই রাশির ব্যক্তি সহিষ্ণু, পরিশ্রমী, জেদি, ঈশ্বরবিশ্বাসী ও পরোপকারী হয়। এরা সাধারণত অল্পে সন্তুষ্ট হয়। অকাল বার্ধক্যের একটি ছাপ প্রায়ই এদের চেহারায় দেখা যায়। এরা কখনও শ্রমশীল আবার কখনও শ্রম বিমুখ হয়। স্বাস্থ্য মোটামুটি ভাল হয়। তবে শেষ জীবনে হঠাৎ নানা রোগ দেখা দিতে পারে। বিজ্ঞান, গণিত, যন্ত্রবিদ্যা, লোহা বা কয়লার ব্যবসা, টেকনিক্যাল কাজ, ইত্যাদি নিয়ে জীবনে এগোলে ফল ভাল হবে। সন্দেহ বাতিকের জন্য বিবাহ জীবন খুব একটা সুখের হয় না। এরা মিতব্যয়ী ও সঞ্চয়ী প্রকৃতির হয়ে থাকে। কন্যা, বৃষ, কর্কট, মকর রাশির মানুষের সঙ্গে বন্ধুত্ব বা বিবাহ সুখের হয়। জাতকের আকস্মিক অর্থ প্রাপ্তি হতে পারে।

—শ্রী জয়দেব

কুম্ভ

এই বছর উপার্জনে মাঝে মাঝে বিঘ্ন ঘটতে পারে। ব্যয় কিছু বেশি হবে। বার দুয়েক ঋণ করতে হতে পারে, তবে তা পরিশোধ করা সম্ভব হবে। চাকরি ক্ষেত্রে উন্নতিতে বিঘ্নের আশঙ্কা আছে। অভিনেতা-অভিনেত্রীদের বছরটা অপেক্ষাকৃত ভাল। শরীর বেশি ভাল নাও থাকতে পারে। বায়ু ও অম্বল দৈহিক কষ্টের কারণ হবে বলে মনে হয়। একটু শ্বাকষ্টেরও যোগ আছে। ভাই-বোনদের সঙ্গে সদ্ভাবে চিড় ধরতে পারে। দু’একজন বন্ধু দূরে সরে থাকলেও অনেক বন্ধুই দরকারের সময় সহযোগিতা করবে। পিতা-মাতার। বিশেষত মাতার স্বাস্থ্যের অবনতি চিন্তার কারণ হতে পারে। সন্তানদের আচরণ খারাপ হবে না। নিজের ও সন্তানদের লেখাপড়ায় বিঘ্নের আশঙ্কা রয়েছে, তবে শেষরক্ষা হবে বলে মনে হয়। একটি সন্তানের বিবাহযোগ আছে। দাম্পত্য কলহ মনকে ভারাক্রান্ত করবে। শত্রু বিষয়ে, বিশেষত গুপ্ত শত্রু সম্বন্ধে সজাগ থাকা দরকার। ধর্মভাব মধ্যম। পিতৃস্থানীয় কোন ধার্মিক লোকের উপদেশে অনেক সমস্যার সমাধান হবে বলে মনে হয়। ব্যবসার ক্ষেত্রে বছরটি খুব ভাল যাবে ন। কিন্তু শেষের দিকে ব্যবসায় একটু উন্নতি হতে পারে। প্রথম দিকে আত্মীয় নিয়ে একটু চিন্তা হলেও মধ্যভাগে সমস্যা মিটে যাবে। পড়াশোনার ব্যপারে একটু চিন্তা বাড়তে পারে ।
অর্থ– এই রাশি্র জাতক জাতিকাদের আর্থিক ব্যপারে চাপ থাকবে । মধ্য ভাগে এই বছর অর্থ নিয়ে বাড়িতে চিন্তা বাড়তে পারে। কিন্তু সকল বাধা অতিক্রম করতে খুব কষ্ট পেতে হবে।
পরিবার– বাড়িতে কোনও বিবাদ নিয়ে চিন্তা বাড়তে পারে। পরিবারে সকলের সঙ্গে মাঝে মধ্যে বিবাদ ঘটতে পারে। পারিবারিক অশান্তি নিয়ে কারোর সঙ্গে আলোচনা না করাই শ্রেয়।
সম্পর্ক– প্রেমের ক্ষেত্রে কোনও বিবাদ বৃদ্ধি। নতুন সম্পর্ক ভাল হবে। পুরনো সম্পর্ক একটু মানসিক চাপ বাড়াতে পারে। অপর কোনও ব্যক্তির জন্য অশান্তি বৃদ্ধি।
জীবিকা– এই বছর জীবিকা নিয়ে খুব একটা চাপ বাড়বে না। জীবিকায় কোনও পরিবর্তন হতে পারে। ব্যবসায় ভাল আনন্দ পাবেন।

কুম্ভ রাশির ব্যক্তিদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য
রাশি চক্রের একাদশ রাশি কুম্ভ। এই রাশির অধিকর্তা গ্রহ শনি। শনি গ্রহের জাতকরাও একা থাকতে ভালবাসে। অবসাদ, নৈরাশ্য, মনের অস্থিরতা, গুপ্তবিদ্যায় ঝোঁক, গণিত, জ্যোতিষ, বিজ্ঞান, প্রভৃতিতে পারদর্শী হয়। কালো কোনও দ্রব্যের ব্যবসায় সাফল্য। এই জাতক জাতিকারা ভাবুক, দার্শনিক ও ধর্মপরায়ণ হয়ে থাকে। সর্বদাই অন্যায়ের বিরুদ্ধে সংগ্রামে রত থাকে এরা। প্রথম জীবনে প্রচুর কষ্ট পেলেও পরে সুখভোগ করে থাকে। এদের অন্তরে যোগীভাব প্রবল থাকে। সাধারণত ভাল স্বভাবের কিন্তু গ্রহ দোষ থাকলে খল ও নিষ্ঠুর প্রকৃতির হয়ে ওঠে। কোনও কোনও ক্ষেত্রে চরিত্রের দোষে কুপথে যেতে দেখা যায়। বেশি ঝামেলা পছন্দ করে না। চাকরির থেকে ব্যবসা ভাগ্য ভাল হয়। জীবনে অনেক বার বাধা আসে আবার শুভ ঘটনাও ঘটে, বিশেষ করে ২৫ থেকে ৫৩ বছর বয়সের মধ্যে। একটু খুঁতখুঁতে হওয়ায় সংসার জীবন মধ্যম হয়।

—শ্রী জয়দেব

মীন

আয় খুব ভাল হবে। ব্যয় বেশি হলেও তা আয়ের তুলনায় কিছুই না; কাজেই জমা হবে অনেক। স্বাচ্ছন্দ্য বজায় থাকবে। চাকরি ক্ষেত্রে উন্নতিলাভের আশা আছে। ব্যবসায়ীদের কাছে বছরটি সুবর্ণ সুযোগের বছর। যে কোনও কাজেই সাফল্য আসবে। চিকিৎসাবিদ্যা, জ্যোতিষচর্চা ও ঔষধের ব্যবসায়ে সব থেকে বেশি আয় হবে। কাজের প্রসার ঘটবে অনেক, শরীর বেশি খারাপ হবে না। পেট, মাথা ও সর্দিকাশিতে মাঝে মাঝে কষ্ট পাওয়ার আশঙ্কা আছে, তবে তা বড় আকার ধারণ করবে না। ভাইবোনদের শরীরে কিছু গোলযোগ দেখা দিতে পারে। বন্ধুর সঙ্গে সদ্ভাব থাকবে। তাদের কাছ থেকে কিছু উপকার পাওয়া যাবে। আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে সদ্ভাবে চিড় ধরতে পারে। পিতা-মাতার শরীর চলনসই। স্ত্রীর স্বাস্থ্য ভাল নাও থাকতে পারে। জেদ ও একগুঁয়েমি ত্যাগ করতে পারলে সাংসারিক শান্তি বজায় থাকবে। সন্তানভাব শুভ। সন্তানদের আচরণ ও কৃতিত্ব জাতকের আনন্দের কারণ হবে। জাতকের নিজের ও সন্তানদের লেখাপড়া তথা পরীক্ষার ফল ভালই হবে। শত্রু আছে, থাকবে, তবে বেশী ক্ষতি করতে পারবে না।ধর্মভাব শুভ। মানসিক চঞ্চলতা থাকা সত্বেও আধ্যাত্মিক উন্নতিলাভ সম্ভব হবে।
অর্থ– আর্থিক ব্যপারে এই বছর খুব ভাল নতুন যোগাযোগ আসতে পারে। ব্যবসার ক্ষেত্রে উন্নতি ঘটতে পারে। সারা বছর আর্থিক ব্যপারে কোনও অসুবিধা হবে না।
পরিবার– বিবাহিত জীবন খুব ভাল কাটবে। এবং পরিবারে্র সকলের সঙ্গে সম্পর্ক ভাল থাকবে। কোনও ছোট বিবাদ হঠাৎ অনেক দূর যেতে পারে।
সম্পর্ক– এই বছর কোনও নতুন সম্পর্ক হওয়ায় অশান্তি বৃদ্ধি। পুরোনো সম্পর্ক নিয়ে একটু চিন্তা থাকবে। নতুন প্রেমের দিকে একটু চিন্তা ভাবনা করে এগোনো দরকার।
জীবিকা– এই বছর জীবিকা নিয়ে খুব একটা চিন্তা বাড়বে না। ব্যবসায় নতুন যোগাযোগ হতে পারে। চাকরির ক্ষেত্রে উন্নতির যোগ আসতে পারে। তবে ব্যবসার জন্য দূরে যেতে হতে পারে।

মীন রাশির ব্যক্তিদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য
রাশি চক্রের দ্বাদশ রাশি মীন। এই রাশির অধিকর্তা গ্রহ বৃহস্পতি। এই রাশির জাতক জাতিকারা উদার, পরোপকারী ও সৎ হয়। স্বভাবে এরা নম্র, ন্যায়পরায়ণ ও ধার্মিক। প্রতিভা যথেষ্ট কিন্তু মানসিক অস্থিরতার জন্য ঠিকমতো বিকশিত হয় না। অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে গিয়ে জীবনে অনেক বার বিপদে পড়তে হয়। এরা সাধারণত চিন্তাশীল ও খুব বিচক্ষণ হয়ে থাকে। কিন্তু বৃহস্পতি অশুভ থাকলে অবস্থা বিপরীত হয়। বন্ধুদের বেশির ভাগই হয় খল, দুষ্ট ও ধড়িবাজ প্রকৃতির। প্রেমের ক্ষেত্রে অসফল কিন্তু বৈবাহিক জীবন সুখের হয়। ভাগ্যে অনেক বাধা আসবে এবং সে সব সহজে দূর হবে না। চিকিৎসা, শিল্প, সাহিত্য, প্রেস বিভাগে কাজ ইত্যাদি এদের ভাল হবে। এদের জীবনে একটাই লক্ষ্য প্রচুর অর্থ উপার্জন করা। আর সেই অর্থে আনন্দে জীবন কাটানো। বৃষ, কন্যা, কর্কট, বৃশ্চিক রাশির সঙ্গে বন্ধুত্ব বা বিবাহ শুভ হয়।

—শ্রী জয়দেব

About M..

Check Also

সম্প্রীতির নজির, মুসলিম পরিবারের জন্য মসজিদ তৈরিতে এগিয়ে এলেন গ্রামবাসীরা

সম্প্রীতির এক অনন্য নজির স্থাপন করল পঞ্জাবের (Punjab) ভুলার (Bhoolar) গ্রাম। চার মুসলিম পরিবারের জন্য …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *