যিনি নিজের বাড়িতে পদ্ম ফোটাতে পারেন না, তিনি বাংলায় পদ্ম ফোটাবেন, কটাক্ষ অভিষেকের

একুশে নির্বাচনের আগে শুভেন্দু অধিকারীর বিজেপিতে যোগদান করা নিয়ে শুরু হয়েছে দলবদল এর খেলা। দলবদল ইস্যু নিয়ে বারংবার তৃণমূল শীর্ষ নেতাদের সাথে দ্বন্দ্ব চরমে উঠেছে শুভেন্দুর। বিজেপিতে যোগদান করার পর বেশিরভাগ তৃণমূল নেতা শুভেন্দুর বিরুদ্ধে একাধিক ইস্যু নিয়ে আ’ক্রমণ করেছেন।

আবার এরই মধ্যে ডায়মন্ডহারবার সভা থেকেই বিরোধীদের জবাব দিল ও শুভেন্দুকে একহাত নিয়ে মন্তব্য করলেন দাপুটে তৃণমূল নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

কাঁথি, পূর্বস্থলী-সহ একাধিক জায়গা থেকে ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে আ’ক্র’মণ করেছেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। তাঁর দাবি, তোলাবাজ ভাইপো হঠাও।

পাশাপাশি, গত ১০ ডিসেম্বর ডায়মন্ড হারবার যাওয়ার পথে হামলা হয় বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার কনভয়ে। এনিয়ে তুলকালাম হয় রাজ্য রাজ্নীতি। ডায়মন্ড হারবার এর সভা থেকেই শুভেন্দু অধিকারী কে কড়া ভাষায় আ’ক্র’মণ করলেন মমতা ব্যানার্জির ভাইপো অভিষেক ব্যানার্জি।

তৃণমূল সাংসদ তথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো অভিষেক বন্দ্যোপাধ‍্যায়কেও তুলোধনা করেন শুভেন্দু। মন্তব্য করেন, “মানুষ ভাইপো কে চায়, কিন্তু তোলাবাজ ভাইপোকে চায় না।

মানুষ আমাদের পাশে সবসময়ই আছে। ” তিনি আরও বলেন, বিজেপিতে যোগ দেওয়ার আগে থেকেই অভিষেক কে নিশানা করছেন শুভেন্দু। গতকাল বিজেপির সংবর্ধনা সভায় শুভেন্দু বলেন, “একুশ বছর তৃণমূল করেছি, ভাবতে লজ্জা করছে”।

পাল্টা উত্তরে আজ শুভেন্দুকে একহাত নিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, অভিষেক এ দিন বলেন, “বলছেন একুশ বছর তৃণমূল করে লজ্জা লাগছে। তাঁর বাবা-ভাই-ও তো এখনও তৃণমূলে রয়েছেন। যিনি নিজের ঘরে পদ্ম ফোটাতে পারেননি, তিনি বলছেন বাংলায় পদ্মফুল ফোটাবেন”

Reply