বিজেপির থেকে বড় শত্রু নেই! সব দল গুলিকে জোট বাঁধার ডাক কৌশিক সেনের

এ রাজ্যে বিধানসভা ভোট দরজায় কড়া নাড়ছে। প্রত্যেক দল তাদের মত ভীত প্রচারও শুরু করে দিয়েছে। সম্প্রতি অভিনেতা কৌশিক সেন রাজ্যে বিজেপিকে রুখতে সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলিকে জোট বাঁধার আহ্বান জানিয়ে বললেন, ‘বিজেপি ও আরএসএস দেশের আর্থ সামাজিক ব্যবস্থাকে শেষ করে দিচ্ছে।

যে যেই রাজনীতি করুন না কেন, যে মতাদর্শেই বিশ্বাস করুন না, আমি মনে করি, এখন বিজেপির থেকে বড় শত্রু আর কেউ নেই। কংগ্রেস ও সিপিএম-র জোট হয়ে লড়াই করা এই মুহুর্তে খুবই প্রয়োজনীয়।’

একুশের বিধানসভা ভোটে 200 আসন নিয়ে বাংলার জয়ের লক্ষ্যে কাজ শুরু করেছে বিজেপি । জেপি নাড্ডা ,অমিত শাহ ছাড়াও রাজ্যে বিজেপির দলের সর্বভারতীয় নেতাদের আসা যাওয়া তো লেগেই রয়েছে।

তৃণমূলের শুভেন্দু অধিকারী সহ একাধিক নেতা তৃণমুল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেছে।ধীরে ধীরে বিজেপি শক্তিশালী হচ্ছে আর তৃণমূলের মধ্যে ভাঙন ধরছে। তবে সৌমিত্র খাঁ এর স্ত্রী সুজাতা খাঁ বিজেপি ছেড়ে রাজ্যের শাসকদলে গিয়ে যোগদান করেছেন।

তৃণমূলের সাথে লড়তে কংগ্রেস ও সিপিএম জোট বেঁধেছে । সেই সিদ্ধান্তকে সমর্থন করে কৌশিক সেন তৃণমূল সহ সব দলকে একজোট হতে বলেছেন বিজেপির বিরুদ্ধে ল’ড়াই করার জন্য।

তিনি আরও বলেন, ‘ভারতীয় রাজনীতিতে যে রোগগুলি একটি রাজনৈতিক দলকে কুড়ে কুড়ে খায়, তৃণমূলে তার সবকটি রোগই আছে। কিন্তু এটাও সত্যি যে তৃণমূলও বিজেপির মতো বিপজ্জনক নয়।’

তিনি সতর্ক করে বলেন, ‘তৃণমূলের মতো শক্তিশালী জোটও যে কীভাবে নিজেদের মধ্যেকার সংঘর্ষে শেষ হতে যেতে পারে আমরা সেটা দেখছি।

বিজেপির মধ্যে কিন্তু তৃণমূলের মত সংঘ’র্ষ নেই, ওরা রেজিমেন্টেড পার্টি, একটা আদর্শ আছে। ওরা রবীন্দ্রনাথ থেকে অরবিন্দ ঘোষ, কাউকে অপমান করতে ছাড়ে না। সময় এসেছে আগে শক্রুকে আগে করো।’

Reply