অধিকারী পরিবারে ফের ফুটল পদ্ম, দাদার হাত ধরে BJP-তে সৌমেন্দু

যাবতীয় জল্পনার অবসান। ফের পদ্ম ফুটল কাঁথির অধিকারী পরিবারে। দাদার হাত ধরে এবার বিজেপিতে যোগ দিলেন সৌমেন্দু অধিকারীও। এদিন কাঁথিতে শুভেন্দুর (Suvendu Adhikari) সভায় আনুষ্ঠানিকভাবে গেরুয়াশিবিরে নাম লেখালেন তিনি। ভোটের মুখে দলবদল করলেন কাঁথি পুরসভার ১৫ জন বিদায়ী কাউন্সিলর ও নন্দীগ্রামের প্রাক্তন বিধায়ক ফিরোজা বিবিও।

প্রসঙ্গত, শুভেন্দুর দলত্যাগের পর সৌমেন্দুকে নিয়েও জল্পনা ছড়িয়েছিল। শুভেন্দু (Suvendu Adhikari) দল ছাড়লেও, তাঁর পরিবারের কেউ সেই পথে হাঁটেননি বলে কটাক্ষ করেছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee)। পাল্টা জবাবে শুভেন্দু বলেন, ‘এখনও তো বাসন্তী পুজোটা আসেনি, রামনবমী আসেনি। রামনবমীটা আসতে দিন। আমার বাড়ির লোকেরাও পদ্ম ফোটাবে। শুধু আমার বাড়ির লোক কেন? হরিশ চ্যাটার্জি স্ট্রিটে ঢুকেও পদ্ম ফুটিয়ে আসব।’এরপর যখন কাঁথি পুরসভা প্রশাসক পদ থেকে অপসারিত হন অধিকারীর বাড়ির ছোট ছেলে সৌমেন্দু, তখন তাঁর বিজেপি যোগ নিয়ে জল্পনা আরও বাড়ে।

বৃহস্পতিবার কাঁথিতে শুভেন্দুর (Suvendu Adhikari) সভা পূর্ব নির্ধারিতই ছিল। তার আগে এদিন বিজেপির নন্দীগ্রাম-১ পূর্ব মণ্ডলের আয়োজনে নন্দীগ্রামের সোনাচূড়াতে একটি প্রতিবাদ সভায় যোগ দেন তিনি। সেখানে ঘোষণা করেন, কাঁথির ডরমেটরি মাঠের জনসভায় বিজেপিতে যোগ দেবেন ভাই সৌমেন্দু। বাস্তবে হলও তাই। এদিনের জনসভা থেকেও যথারীতি তৃণমূলের (TMC) বিরুদ্ধে সুর চড়ান শুভেন্দু। বলেন, ‘ভয়ে পুরসভা ভোট ক্ষমতা নেই। সবকিছু ঝুলিয়ে রেখেছে। ভোট করলে পঞ্চায়েতের মতো অবস্থা হবে।’ বিশ্বাসঘাতক ইস্যুতে তিনি আরও বলেন, ‘লালমাটির দিলীপ ঘোষ ও বালুমাটির শুভেন্দু, দু’জনে একজোট হয়ে লড়াই করছি। তৃণমূলের এমপি বলল, মেদিনীপুরে বিশ্বাসঘাতক জন্মায়। আপনারা বদলা নেবেন না? বদলা নিতে হবে।’ এবার শুভেন্দুর বাবা শিশির অধিকারী ও আর এক ভাই, সাংসদ দিব্যেন্দু কি করেন? সেদিকেই নজর রাজনৈতিক মহলের।

Reply