“হিন্দুরা কখনও দেশদ্রোহী হতে পারে না”, বললেন মোহন ভাগবত, পাল্টা জবাব ওয়েইসির

আবারো হিন্দু জাতীয়তাবাদ নিয়ে সরব হলেন আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত। তাঁর দাবি,”আপনি হিন্দু মানেই আপনি দেশপ্রেমী। দেশভক্তি হিন্দুদের চরিত্রের প্রাথমিক বৈশিষ্ট। হিন্দুরা আর যাই হোক, দেশদ্রোহী হতে পারে না।”

আরএসএস প্রধানের এই মন্তব্যের জবাব দিয়েছেন মিম প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়েইসি। পাল্টা প্রশ্ন করে তাঁর বক্তব্য,”হিন্দুরা যদি স’ন্ত্রা’সবাদী নাই হবে, তাহলে নাথুরাম গডসে বা গুজরাটের দা’ঙ্গাকারীরা কী?”

শুক্রবার জে কে বাজাজ এবং এম ডি শ্রীনিবাসের লেখা “Making of a Hindu Patriot: Background of Gandhiji’s Hind Swaraj” বইটির উদ্বোধন করতে গিয়েছিলেন মোহন ভাগবত। সেখানে তিনি বলেন,”গান্ধীজি বলেছিলেন, আমার ধর্মই আমাকে দেশভক্তির শিক্ষা দেয়।

আমি আমার ধর্মকে বুঝে দেশভক্ত হব। এবং অন্যদেরও বলব ধর্ম থেকে শিক্ষা নিয়ে দেশভক্ত হতে।” সংঘপ্রধান আরও দাবি করেন, ‘গান্ধীজি নাকি বলেছিলেন, স্বরাজ বোঝার জন্য স্বধর্ম আগে বোঝা জরুরি।”

এখানেই শেষ নয়, তাঁর মতে,”আপনি যদি হিন্দু হন, তাহলে আপনাকে দেশভক্ত হতেই হবে। কারণ, দেশপ্রেম হিন্দুদের চরিত্রের মূল বৈশিষ্ট। একজন হিন্দু কখনও দেশদ্রোহী হতে পারে না।

হয়তো কখনও কখনও তাঁর মধ্যে দেশপ্রেমের ভাব জাগিয়ে তুলতে হয়। কিন্তু দেশবিরোধী কখনই হতে পারে না।” অভিযোগ উঠেছিল, সরসংঘ গান্ধীজির ভাবধারাকে নিজেদের পরিভাষায় বিকৃত করেছে। তিনি অভিযোগ করে তিনি বলেন,গান্ধীজির মতো মহান মানুষদের মতবাদকে বিকৃত করা সম্ভবই নয়।

আসাউদ্দিন ওয়েইসি মোহন ভাগবতের মন্তব্যের সম্পূর্ণ বিরোধিতা করেছেন। তিনি বলেন,”তাহলে গান্ধীজির হত্যাকারীরা কী? নেলি গণহত্যার নেপথ্যে কারা? গুজরাট দাঙ্গায় এত মানুষের প্রাণ কারা কাড়ল? শিখ দাঙ্গা কাদের কীর্তি? ভাগবত কী জবাব দেবেন?”

তাঁর দাবি,”জাতি ধর্ম নির্বিশেষে বেশিরভাগ ভারতীয়ই দেশপ্রেমী। আরএসএসের ভ্রান্ত ধারণার জন্যই একটা ধর্মের মানুষকে চোখ বন্ধ করে দেশপ্রেমের সার্টিফিকেট দেওয়া হয়, আর অন্যদের তা প্রমাণ করতে জীবন দিয়ে দিতে হয়।”

Reply