ফের গ্যাসের দাম বাড়ল ২৫ টাকা, এক মাসে তিন দফায় মোট ১০০ টাকা বৃদ্ধি…

আগের দফায় ৫০ টাকা দাম বৃদ্ধির পরে দু’সপ্তাহও কাটেনি। বুধবার মধ্যরাতে ফের ২৫ টাকা দর বাড়ল বাড়িতে রান্নার গ্যাস-সিলিন্ডারের। এই নিয়ে এ মাসে তিন বারে মোট ১০০ টাকা।

রাষ্ট্রায়ত্ত তেল-গ্যাস সংস্থাগুলির ঘোষণা, ১৪.২ কিলোগ্রামের ভর্তুকিহীন সিলিন্ডারের দাম কলকাতায় ২৫ টাকা বেড়ে হচ্ছে ৮২০.৫০ টাকা। ১৯ কিলোগ্রামের বাণিজ্যিক সিলিন্ডারের দর কমছে ৫ টাকা। হচ্ছে ১,৫৮৪ টাকা। এর আগে এ মাসে বাড়িতে ব্যবহারের সিলিন্ডারের দাম যে দু’বার বেড়েছে, তখন ভর্তুকির অঙ্ক বাড়েনি। এ বারও কি তা আদৌ বাড়বে, প্রশ্ন গ্রাহকদের। এ দিন ভর্তুকির অঙ্ক জানানো হয়নি।

দেশে পেট্রলের দর সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছে। অগ্নিমূল্য ডিজেলও। এ বার আমজনতার দুশ্চিন্তা বাড়িয়ে ৮০০ টাকা ছাড়াল রান্নার গ্যাসের সিলিন্ডারের দামও। সং‌স্থাগুলির দাবি, বিশ্ব বাজারে গ্যাসের ও তার উপাদানের দাম বৃদ্ধিই এর কারণ। কিন্তু প্রশ্ন, তা হলে পর পর দু’বার বাণিজ্যিক কাজে ব্যবহারের সিলিন্ডারের দাম কমল কী ভাবে?

ফেব্রুয়ারিতে মাস পয়লায় দাম একই রাখার কথা বলে, কয়েক দিন পরে দর বাড়ানোর কথা জানিয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত তেল-গ্যাস সংস্থা। এই মাসে দর বেড়েছে তিন বার। ডিসেম্বরে দু’দফায় সিলিন্ডারের দাম ১০০ টাকা বেড়েছিল। আমজনতার প্রশ্ন, এই ‘কৌশলের’ অর্থ কী? দ্বিতীয়ত, তাঁদের বড় অংশের অভিযোগ, কিছু দিন ধরেই গ্যাসে ভর্তুকির অঙ্ক ‘চুপিসারে’ কমাচ্ছে কেন্দ্র। প্রায় প্রতি বার সিলিন্ডারের দাম বৃদ্ধির অঙ্ক জানানো হলেও, ভর্তুকি কতটা বাড়বে, তা তেমন স্পষ্ট করা হচ্ছে না। সেটি বোঝা যাচ্ছে নতুন দামে সিলিন্ডার নেওয়ার পরে।

নিখরচায় গ্যাস সংযোগ দেওয়ার উজ্জ্বলা প্রকল্পের সাফল্যের কথা ঢাক-ঢোল পিটিয়ে বলেন খোদ প্রধানমন্ত্রী। প্রশ্ন, সিলিন্ডার কিনতে ৮০০ টাকা কী ভাবে বার করবেন গরিব মানুষ?

Reply