যতদিন প্রয়োজন ততদিন গাজায় হামলা চলবে: নেতানিয়াহু

গাজা উপত্যকায় হামলা চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু। শনিবার (১৫ মে) টেলিভিশনে দেয়া ভাষণে তিনি বলেন, ‘যতদিন প্রয়োজন ততদিন গাজায় হামলা চলবে এবং যতটা সম্ভব বেসমারিক ব্যক্তিদের হতাহত এড়ানো হবে।’

তিনি বলেন, ‘এই লড়াইয়ের জন্য যারা দায়ী তারা আমরা নই, দায়ী তারাই যারা আমাদের ওপর হামলা চালিয়েছে। আমরা এই অভিযানের মধ্যবর্তী পর্যায়ে রয়েছি। অভিযান এখনো শেষ হয়নি এবং যতদিন প্রয়োজন ততদিন অভিযান চলবে।’

নেতানিয়াহু বলেন, ‘হামাস উদ্দেশ্যশূলকভাবে বেসমারকি মানুষের মধ্যে লুকিয়ে তাদের ক্ষতি চায়। আমরা সবকিছু করছি, তবে বেসমারকি মানুষের ক্ষতি কমাতে সম্ভাভ্য সবকিছু করছি এবং সরাসরি সন্ত্রাসীদের ওপর হামলা করছি।’

সাতদিন ধরে গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি আগ্রাসন চলছেই। রোববার সকালের দিকেও বিমান হামলা চালিয়েছি ইসরায়েলি বাহিনী। এতে নতুন করে আরও চার ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ডজন খানেক। ইসরায়েলি হামলায় ফিলিস্তিনের কমপক্ষে দু’টি আবাসিক ভবন ধসে পড়েছে।

গাজা উপত্যকায় সাতদিন ধরে চলা ইসরায়েলি হামলায় এ পর্যন্ত ১৪৯ জন ফিলিস্তিনি প্রাণ হারিয়েছেন। এর মধ্যে ৪১ জন শিশু ও অনেক নারী রয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ৯৫০ জন।

এদিকে হামলার প্রতিশোধ নিতে ইসরায়েলে চালিয়েছে ফিলিস্তিনের ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস। এখন পর্যন্ত ইসরায়েলে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে, এদের মধ্যে দুজন শিশু রয়েছে। শনিবার নতুন করে দুই ইসরায়েলি নিহত হয়েছেন।

শনিবার হামলা চালিয়ে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা ও যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদ সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের (এপি) কার্যালয় ভবন গুঁড়িয়ে দিয়েছে ইসরায়েল। আকস্মিকভাবে হামলা চালিয়ে গাজার ১১তলা বিশিষ্ট আল-জালা ভবন গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে। ভবনটিতে আল-জাজিরা, এপিসহ কিছু মিডিয়া অফিসের কার্যালয় ছিল। ছিল কিছু আবাসিক অ্যাপার্টমেন্টও।

সূত্র: রয়টার্স

Reply